চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব দূর করুন ৫টি ঘরোয়া উপায়ে! - Shajgoj

চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব দূর করুন ৫টি ঘরোয়া উপায়ে!

চুলের আঠালো ও তেলতেলে ভাব দেখে হতাশ একজন

আমাদের যাদের স্ক্যাল্প ও হেয়ার অয়েলি, সবসময় একটি কমন সমস্যা ফেইস করতে হয়, আর সেটি হল চুল শ্যাম্পু করার এক দুইদিনের মাথায় চুলে আঠালোভাব চলে আসে এবং চুল তেলতেলে হয়ে যায়। যা খুবই বিরক্তিকর ব্যাপার ! অনেক ধরনের প্রোডাক্ট বা ঘরোয়া হেয়ারপ্যাক ব্যবহার করছেন কিন্তু এই সমস্যা থেকে নিস্তার পাচ্ছেন না! তাহলে কীভাবে করবেন এই সমস্যার সমাধান, ভেবে পাচ্ছেন না? আজকে আমি আমার পছন্দের এবং খুবই কার্যকরী কিছু ঘরোয়া হেয়ারপ্যাক নিয়ে লিখব যা আমার চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব অনেকটাই দূর করেছে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব দূর করার ৫টি ঘরোয়া পদ্ধতি।

চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব হবার কারণ

ঘরোয়া উপায়ে সমস্যাটি সমাধানের পূর্বে জেনে নেয়া যাক কেন আপনার চুলে দ্রুত আঠালো ও তেলতেলেভাব চলে আসছে। এর পেছনে বেশ কিছু কারণ বিদ্যমান। যেমন-

চুল ওভারওয়াশিং করা

আপনি যদি প্রয়োজনের তুলনায় চুল ঘন ঘন ওয়াশ করেন তবে এই কারণেও আপনার চুলে অয়েলিনেস চলে আসতে পারে। ফলে, প্রতিবার যখন আপনি আপনার চুল শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নেন; তখন স্ক্যাল্প আরও বেশি পরিমাণে সিবাম প্রোডাকশন শুরু করে। আপনি যদি ঘন ঘন চুল শ্যাম্পু দিয়ে ওয়াশ করেন, তখন আপনার স্ক্যাল্প এই সিগন্যাল পায় যে; আপনার স্ক্যাল্প শুষ্ক ফলে আরও অয়েল বা সিবাম প্রোডাকশন শুরু করে। ধীরে ধীরে স্ক্যাল্পের অয়েল চুলেও ছড়িয়ে পড়ে। চুল হয় তেলতেলে ও আঠালো।

চুলের ধরন

স্ট্রেইট চুলে কার্লি চুলের মত কোনো ধরনের বাঁক থাকে না। ফলে স্ক্যাল্পে যে সিবাম প্রোডাকশন হয় তা সমানভাবে পুরো চুলে ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু কার্লি চুলে ঠিক উল্টো ঘটে। ফলে, চুলে তেলতেলে ভাব এসে যায় খুব সহজেই।

চুলের ধরন অনুযায়ী প্রোডাক্টস ব্যবহার না করা

চুল তেলতেলে হয়ে যাবার আরেকটা কারণ হচ্ছে; আপনি চুল যেসকল প্রোডাক্ট ব্যবহার করে ওয়াশ করেছেন, সেসকল প্রোডাক্টের উপাদানগুলো আপনার চুলে স্যুট না করা। তাই শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহারের পূর্বে ইনগ্রেডিয়েন্ট লিস্ট চেক করে নিন।

এ সমস্যা থেকে প্রতিকার পাবেন কীভাবে?

জেনে গেলেন কোন কারণগুলোর জন্য চুলের আঠালো ও তেলতেলেভাব হয়। এবার জেনে নিন এই সমস্যা দূর করার জন্য ৫টি দারুণ ঘরোয়া উপায়।

কোকোনাট অয়েল ডিপ কন্ডিশনিং 

কোকনাট ওয়েল ডিপ কন্ডিশনিং

কোকোনাট অয়েল ডিপ কন্ডিশনিং এর মাধ্যমে আপনার চুলের তেলতেলে ও আঠালো ভাব দূর করতে পারবেন। এক্ষেত্রে-

১/ পরিমাণমত কোকোনাট অয়েল নিয়ে চুলে ও স্ক্যাল্পে গোসলের পূর্বে ভালোভাবে ম্যাসাজ করে নিন।
২/ ২/ ১ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন।
৩/ গোসলের সময় চুল শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মাস্ক

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মাস্ক দিয়ে চাইলে তৈরি করে নিতে পারেন আপনার পছন্দের মাস্ক। এজন্য যা যা লাগবে-

১/ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার- ১ ভাগ ।
২/ পানি- ১ ভাগ ।
৩/ ল্যাভেন্ডার অ্যাসেনশিয়াল তেল- ৩/৪ ড্রপ।

যেভাবে হেয়ার মাস্কটি তৈরি করে অ্যাপ্লাই করবেন-

১/ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার পানির সাথে মিশিয়ে ল্যাভেন্ডার অ্যাসেনশিয়াল তেল অ্যাড করে নিন।
২/ চুলে শ্যাম্পু করার পর স্ক্যাল্প ও চুল এই মিশ্রণ দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন।
৩/ ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে চাইলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে পারেন কিংবা না ধুয়ে রেখে দিতে পারেন।
৪/ সপ্তাহে ৩-৪ বার ব্যবহার করুন।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগারে আছে অ্যাসিটিক এসিড যা স্ক্যাল্পের পি এইচ নিয়ন্ত্রণে আনে। ফলে, স্ক্যাল্পের সিবাম বা তেল নিঃসরণ কমে যায়। চুল অয়েল ফ্রি ও শাইনি হয়। অপরদিকে, ল্যাভেন্ডার অ্যাসেনশিয়াল তেল চুলের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা যেমনঃ খুশকি দূর করে, হেয়ারফল কমায় এবং তেলতেলে ভাব কমিয়ে আনে।

অ্যালোভেরা হেয়ার মাস্ক

অ্যালোভেরা হেয়ার মাস্কও চুলের তেলতেলে ও আঠালো ভাব কমিয়ে এনে চুলকে ঝলমলে করতে অনেকটাই সাহায্য করে। মাস্ক বানাতে আপনার যে সকল উপাদান লাগবে-

১/ অ্যালোভেরা জেল – ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ।
২/ অ্যাভোকাডো তেল- ১ টেবিল চামচ ।
৩/ লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল তেল– ৩/৪ ড্রপ ।
৪/ লেবুর রস- ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে হেয়ার মাস্কটি তৈরি করে অ্যাপ্লাই করবেন-

১/ সবগুলো উপাদান মিক্স করে পেস্ট তৈরি করে নিন।
২/ স্ক্যাল্পে অ্যাপ্লাই করে ৪০-৪৫ মিনিট অপেক্ষা করুন।
৩/ মাইল্ড বা হারবাল শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।
৪/ কার্যকরী ফলাফল পেতে সপ্তাহে ৩-৪ বার এই প্যাক অ্যাপ্লাই করুন।

অ্যালোভেরা জেলে আছে ক্লেনজিং এনজাইম যা ক্লগড হেয়ার ফলিকলকে আনক্লগ করে ও ক্লিন করতে হেল্প করে। এতে করে চুলে শাইনি ভাব আসে। লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল তেলে আছে হিলিং প্রোপার্টিজ যা ইচি এবং ইরিটেটেড স্ক্যাল্পকে সুদিং ইফেক্ট দেয়। স্ক্যাল্পের ডিপ ক্লিনিংয়ে হেল্প করে। অ্যাভোকাডো তেল চুলকে সিল্কি করে, ড্যামেজ কমিয়ে আনে।

অলিভ অয়েল ওভারনাইট হেয়ার মাস্ক

অলিভ অয়েল দিয়েও আপনি একটি দারুণ হেয়ার মাস্ক বানাতে পারবেন। এই মাস্ক বানাতে আপনার যা যা লাগবে-

১/ অলিভ অয়েল – ২ টেবিল চামচ।
২/ টি ট্রি অ্যাসেনশিয়াল তেল- ৩/৪ ড্রপ ।
৩/ লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল তেল- ৩/৪ ড্রপ ।

যেভাবে হেয়ার মাস্কটি তৈরি করে অ্যাপ্লাই করবেন-

১/ সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে একটি স্প্রের খালি বোতলে ঢেলে নিন।
২/ চুলে ও স্ক্যাল্পে স্প্রে করুন এবং স্ক্যাল্প ভালোভাবে ম্যাসাজ করে নিন।|
৩/ সারারাত চুলে রেখে দিন। পরের দিন শ্যাম্পু করে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
৪/ কার্যকরী ফলাফল পেতে সপ্তাহে ৩-৪ বার এই প্রসেস ফলো করুন।

অলিভ অয়েলে আছে অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট যা অল্প বয়সে চুল পেকে যাওয়া ও চুল পাতলা হওয়া প্রতিরোধ করে। এছাড়াও স্ক্যাল্পের ব্লাড সারকুলেশন বাড়িয়ে হেয়ার ফলিকলকে স্টিমুলেট করে। টি ট্রি অ্যাসেনশিয়াল তেল পোর আনক্লগ করে, ইরিটেটেড স্ক্যাল্পের ইরিটেশন কমায়। স্ক্যাল্পের হেলথ ইম্প্রুভ করে।

মুলতানি ক্লে হেয়ার মাস্ক

রাজকন্যা মুলতানি মাটি

মুলতানি মাটি দিয়ে তৈরি ক্লে মাস্ক ব্যবহার করেও আপনি আপনার চুলের তেলতেলে ভাব দূর করতে পারবেন। মাস্কটি তৈরি করতে যা যা লাগবে-

১/ মুলতানি মাটি- ৪ টেবিল চামচ ।
২/ লেবুর রস- ২ টেবিল চামচ ।
৩/ পানি- পরিমাণমত।
৪/ শাওয়ার ক্যাপ।

যেভাবে হেয়ার মাস্কটি তৈরি করে অ্যাপ্লাই করবেন-

১/ সব উপাদান মিক্স করে স্মুথ পেস্ট তৈরি করে নিন।
২/ মিক্সচারটি আপনার স্ক্যাল্প ও চুলে অ্যাপ্লাই করে নিন।
৩/ একটি শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল কভার করে ফেলুন।
৪/ ১৫-২০ মিনিট চুলে রেখে দিন।
৫/ একটি শ্যাম্পু ও হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।
৬/ এই মাস্কটি সপ্তাহে ১ বা ২ বার ব্যবহার করুন।

মুলতানি মাটি চুলের তেলতেলে পিউরিফাই করে। এটি গভীর থেকে অতিরিক্ত তেল বা সিবাম শোষণ করে নেয়।

বোনাস টিপস

সিল্কি ও শাইনি চুল হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন একজন মেয়ে

১/ আপনি যখন শ্যাম্পু করবেন; খেয়াল রাখবেন যেন শ্যাম্পু ভালোভাবে ক্লিন হয়। এছাড়াও স্ক্যাল্পে জমে থাকা ময়লাগুলো যেন পরিষ্কার হয়। তাই শ্যাম্পু করার পর একবার মাত্র না ধুয়ে দুইবার চুল ধুয়ে নিন।

২/ চুল পরিষ্কার রাখার একদম প্রাথমিক ধাপ চিরুনি ও হেয়ার ব্রাশ পরিষ্কার রাখা। কারণ; চিরুনিতে চুলের নোংরা ময়লা ও তেল জমে থাকে। ফলে অপরিষ্কার চিরুনি ব্যবহারে চুল হয় তেলতেলে। তাই নিয়মিত চিরুনি ও হেয়ার ব্রাশ পরিষ্কার রাখুন।

আশা করি, আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের জন্য হেল্পফুল ছিল। এখন আর চুলের তেলতেলে ও আঠালোভাব নিয়ে কোনধরনের চিন্তা করতে হবে না। এই টিপসগুলো ফলো করলেই পাবেন ঝলমলে চুল। অথেনটিক হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্টস কিনতে আপনারা চাইলে সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত, সেখান থেকে কিনতে পারেন আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন। ভালো থাকুন, নিরাপদে থাকুন।

ছবি- সাজগোজ

5 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...