ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করবেন কীভাবে? জেনে নিন দারুণ কিছু টিপস!

ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করবেন কীভাবে?

ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করেছেন একজন

কার্লি চুল নিয়ে বিড়ম্বনার যেন শেষ নেই! আমাদের যাদের চুল কার্লি, হেয়ার ম্যানেজেবল রাখতে কত ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়। ফলে; আমাদের মধ্যে অনেকেই চুল পার্মানেন্টলি স্ট্রেইট করার সিদ্ধান্ত নিই। অথবা রেগুলার টেম্পোরারি হিট স্টাইলিং এর প্রতি ঝুঁকে পড়ি এবং অসতর্কভাবে স্ট্রেইটনার দিয়ে হিট স্টাইলিং করি। যা মোটেই স্থায়ী সমাধান না। কারণ; এতে করে চুলে ড্যামেজ হওয়ার চান্স থাকে। তাহলে ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করবেন কীভাবে? জেনে নিন কিছু ঘরোয়া হেয়ার ট্রিটমেন্টের পাশাপাশি চমৎকার কয়েকটি চুল বাঁধার টেকনিক; যা আপনার কার্লি চুল স্ট্রেইট করতে সাহায্য করবে।

ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করার ৫টি ঘরোয়া হেয়ার ট্রিটমেন্ট

৫টি দারুণ ঘরোয়া হেয়ার ট্রিটমেন্ট আছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসেই কার্লি চুল স্ট্রেইট করতে পারবেন। চলুন জেনে নিই!

ক্যাস্টর ও কোকোনাট অয়েল ট্রিটমেন্ট

একটি বাটিতে কোকোনাট অয়েল ও ক্যাস্টর অয়েল মিক্স করে রাখা

ক্যাস্টর অয়েল এবং কোকোনাট অয়েল চুলের যত্নে যুগ যুগ ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে। ক্যাস্টর অয়েল যেমন চুলকে রিপেয়ার করতে সাহায্য করে ঠিক তেমনি কোকোনাট অয়েল চুলকে হাইড্রেশন দেয় এবং ফ্রিজি চুলকে করে তোলে হেলদি ও ম্যানেজেবল। এই দুইটি তেলের সমন্বয়ে কার্লি চুল খুব সহজেই ন্যাচারালভাবে স্ট্রেইট হবে।

ট্রিটমেন্ট পদ্ধতি-

  • পরিমাণমত ক্যাস্টর ও কোকোনাট অয়েল একসাথে একটি কাঁচের বাটিতে মিক্স করে নিন।
  • ১০ সেকেন্ডে তেলটি গরম করুন।
  • পুরো চুলে গরম তেলটি অ্যাপ্লাই করে নিন। ১৫ মিনিট সময় নিয়ে স্ক্যাল্প এবং রুটে ভালোভাবে ম্যাসাজ করে নিন।
  • একটি গরম তোয়ালে দিয়ে পুরো মাথা ৩০ মিনিট মুড়িয়ে রাখুন।
  • একটি শ্যাম্পু ব্যবহার করে ঠান্ডা পানি দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

ডিম ও অলিভ অয়েলের মাস্ক

চুলে পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন সাপ্লাই দিতে ডিমের বিকল্প আর কিছুই নেই। ডিম ও অলিভ অয়েলের মিক্স আপনার চুলকে ডিপ কন্ডিশনিং করার পাশাপাশি স্ট্রেইট করবে। ডিমে আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা আপনার চুলের ড্যামেজ রিপেয়ার করবে এবং আরও আছে ফ্যাটি এসিড যা চুলের ফলিকলে নারিশমেন্ট প্রভাইড করবে।

ডিম ও অলিভ অয়েলের মাস্ক যেভাবে ব্যবহার করবেন-

  • চুলের লেন্থ অনুযায়ী পরিমাণমত ডিম ও অলিভ অয়েল নিন। ভালোভাবে মিক্স করে ফেলুন।
  • পুরো চুলে মাস্কটি সমানভাবে অ্যাপ্লাই করুন।
  • ৩০ মিনিট রেখে দিন।
  • একটি জেল বেইজড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন যাতে করে ডিমের স্মেল চুলে না থাকে।

অ্যালোভেরা হেয়ার মাস্ক

অ্যালোভেরা জেল দিয়ে কোকোনাট তেল মিশিয়ে নেয়া হয়েছে

অ্যালোভেরায় আছে প্রটিওলাইটিক এনজাইম যা কন্ডিশনার হিসাবে কাজ করে। ফলে; আপনার চুলকে করবে হাইড্রেট, সিল্কি ও শাইনি! যেভাবে ব্যবহার করবেন-

  • একটি পাত্রে অ্যালোভেরা জেল ও কোকোনাট অয়েল বা অলিভ অয়েল মিক্স করে নিন।
  • চুলে মিক্সচারটি অ্যাপ্লাই করে ৪০ মিনিট রাখুন।
  • একটি সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু ব্যবহার করে ঠান্ডা পানি দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

রাইস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট

রাইস ওয়াটারে আছে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, ফ্লাভিনয়েডস এবং ফেনোলিক কমপাউন্ড যা চুলের টেক্সচার ইম্প্রুভ করে।

তৈরির পদ্ধতি ও ব্যবহারবিধি-

  • চাল ভালো করে ধুয়ে নিন যাতে করে কোনো ধরনের ময়লা বা ইমপিউরিটিস না থাকে।
  • চাল ভালো করে ধুয়ে নেওয়ার পর, পরিস্কার পানি নিয়ে তাতে চালগুলো ভিজিয়ে নিন। এরপর যতক্ষণ পর্যন্ত ফেনা না উঠছে ততক্ষণ পর্যন্ত তাপ দিয়ে ফুটিয়ে নিন।
  • এরপর রুম টেম্পারেচারে একটি গ্লাস কন্টেইনারে ঢাকনা দিয়ে ১২-২৪ ঘণ্টা রেখে দিন।
  • পরবর্তীতে একটি খালি স্প্রে কিংবা পাম্পযুক্ত শ্যাম্পুর বোতলে ঢেলে রেফ্রিজারেটরে সংরক্ষণ করুন। এক সপ্তাহ এভাবে সংরক্ষণ করতে পারবেন।
  • গোসলের পর শ্যাম্পু করা চুলে রাইস ওয়াটারটি ব্যবহার করুন। ধীরে ধীরে আপনি নিজেই পরিবর্তন বুঝতে পারবেন।

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার ব্যবহার করুন

যখনি আপনার চুলে তেলতেলে ভাব এসে যাবে; অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার ব্যবহার করুন। এটি আপনার হেয়ার ও স্ক্যাল্পের পিএইচ নিয়ন্ত্রণ করে। শাইনি ও সিল্কি ভাব আনে। যেভাবে অ্যাপ্লাই করবেন অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার –

  • যতটুকু অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার নিবেন, সমপরিমাণ পানি নিবেন।
  • চুল ভালো করে শ্যাম্পু করে ধুয়ে নিন।
  • পানি ও অ্যাপেল সাইডার ভিনেগারের মিক্সচারটি চুলে অ্যাপ্লাই করুন।
  • তবে, পানি দিয়ে চুল ওয়াশ করবেন না।

কিছু দারুণ টেকনিক যা আপনার চুলকে করবে স্ট্রেইট

এখন আমি চুল বাঁধার কিছু দারুণ টেকনিক সম্পর্কে লিখবো যেগুলো ফলো করতে আপনার কোন ধরনের হেয়ার ট্রিটমেন্ট ফলো না করলেও চলবে।

হেয়ার রোলার ব্যবহার করে

ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করতে চুলে হেয়ার রোলার ব্যবহার করেছেন একজন

এজন্য আপনাকে বড় আকৃতির রোলার ব্যবহার করতে হবে। যত বড় রোলার হবে তত ভালো রেজাল্ট পাবেন। রোলারের সাহায্যে চুলকে যেভাবে স্ট্রেইট করবেন-

  • কয়েকটি বড় রোলার নিন।
  • ভেজা চুলে রোলারগুলো শক্তভাবে পেঁচিয়ে নিন।
  • ববি পিনের সাহায্যে রোলারগুলো চুলে আটকিয়ে নিন।
  • চুল যখন পুরোপুরি শুকিয়ে যাবে রোলারগুলো খুলে ফেলুন।

ছোট টিপসঃ রোলারগুলো যখন চুলে বাঁধবেন তখন ববিপিনে টিস্যু লাগিয়ে নিবেন। এতে করে চুল আঘাতপ্রাপ্ত হবে না।

হেয়ার ব্যান্ডের সাহায্যে

ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করতে চুলে হেয়ার ব্যান্ড ব্যবহার করেছে একজন

অনেক গুলো পদ্ধতির মধ্যে সবচেয়ে ইফেক্টিভ মেথড হচ্ছে হেয়ার ব্যান্ডের সাহায্যে চুল বেঁধে সোজা করা। এটাকে সবচেয়ে সাশ্রয়ী পদ্ধতি বলা যায়। হেয়ার ব্যান্ডের সাহায্যে চুল যেভাবে স্ট্রেইট করবেন-

  • চুলকে ছোট ছোট সেকশনে ভাগ করে পনিটেইল করুন।
  • খেয়াল রাখবেন পনিটেইল গুলো যেন ঢিলা করে বেঁধে রাখা হয়। যাতে চুল আঘাতপ্রাপ্ত না হয়।
  • চুলের আগা পর্যন্ত পনিটেইলগুলো হেয়ার ব্যান্ড দিয়ে বেঁধে ফেলুন।
  • এভাবে চুল বেঁধে রেখে রাতে ঘুমিয়ে পড়ুন।

চুলগুলোকে মাথার চারপাশে মুড়িয়ে বেঁধে নিন

চুলকে মাথার চারপাশে মুড়িয়ে নিয়েছে একজন

শুনে খুব অবাক লাগছে, তাই না? কিন্তু আপনি যদি এই পদ্ধতিটি সঠিকভাবে অবলম্বন করতে পারেন তবে ফ্ল্যাট আয়রন ছাড়াই চুল স্ট্রেইট করতে পারবেন। চুলগুলোকে মাথার চারপাশে মুড়িয়ে যেভাবে চুল স্ট্রেইট করবেন-

  • চুলগুলোকে একপাশে নিয়ে ভালোভাবে আঁচড়িয়ে নিন। খেয়াল রাখুন প্রতিটা স্ট্র্যান্ড যেন আঁচড়ানো থাকে।
  • চুলকে ছোট সেকশনে ভাগ করে মাথার চারপাশে মুড়িয়ে নিন। ববিপিন দিয়ে বেঁধে নিন যাতে করে আঁটসাট করে বেঁধে রাখা যায়।
  • স্টেপটি পুনরাবৃত্তি করতে থাকুন যতক্ষণ না পর্যন্ত পুরোপুরি মুড়ানো শেষ হয়।
  • এভাবে চুল বেঁধে সারারাত রেখে দিন। পরের দিন ঘুম থেকে উঠে চুলগুলো খুলে ফেলুন। পেয়ে যাবেন স্ট্রেইট ফ্রিজ ফ্রি হেয়ার।

ছোট টিপসঃ চুল বেঁধে ফেলার পর একটি সিল্কের কাপড় কিংবা মাইক্রো ফাইবার তোয়ালে দিয়ে চুলটি সারারাত মুড়িয়ে রাখবেন।

আপনার চুলকে অন্যান্য পদ্ধতির তুলনায় খুব দ্রুত স্ট্রেইট করবেন যে উপায়ে

এই পদ্ধতি ফলো করতে হলে আপনার যা যা লাগবে-

  • একটি মাইক্রোফাইবার তোয়ালে।
  • একটি মোটা দাঁতের চিরুনি।

যেভাবে চুল স্ট্রেইট করবেন-

  • প্রথমে চুলকে মাইল্ড শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • একটি মাইক্রোফাইবার তোয়ালে দিয়ে আস্তে আস্তে চেপে ভেজা চুল মুছে শুকিয়ে নিন। এই তোয়ালে অতিরিক্ত পানি শুষে নিবে। ভেজা চুল কখনোই জোরে জোরে ঝাড়বেন না! এতে করে চুলের ড্যামেজ হয়।
  • এখন, মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুলকে ছোট ছোট ভাগ করে নিন।
  • চুল গুলো ধরে অল্প করে টেনে ধরুন। এই পদ্ধতিতে চুলের আগা পর্যন্ত আঁচড়িয়ে নিন।

বোনাস টিপস

চুলে হাত দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে একজন

  • মার্কেটে বিভিন্ন ধরনের হেয়ার স্ট্রেইটনিং ক্রিম ও সিরাম পাওয়া যায়। এগুলো ব্যবহার করলে ধীরে ধীরে চুল ন্যাচারাল ভাবে সোজা হয়ে যাবে ।
  • নিয়মিত বাদাম তেল বা আমন্ড অয়েল ব্যবহার করুন।
  • হাফ কাপ দুধ গরম করে একটি স্প্রে বোতলে সংরক্ষণ করুন। চুলে স্প্রে করে অ্যাপ্লাই করবেন।
  • প্রতিদিন হিট স্টাইলিং করতে চাইলে অবশ্যই চুলে ভালোভাবে হিট প্রটেক্টর অ্যাপ্লাই করবেন।

আশা করি, আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের জন্য হেল্পফুল ছিল। এখন ড্যামেজ ছাড়াই কার্লি চুল স্ট্রেইট করবেন নিশ্চিন্তে! অথেনটিক হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্টস কিনতে আপনারা চাইলে সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত, সেখান থেকে কিনতে পারেন আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন। ভালো থাকুন, নিরাপদে থাকুন।

ছবি- সাজগোজ, ট্রিহাগার.কম

12 I like it
1 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...