বলিরেখা দূরীকরণে ৬টি কার্যকরী প্যাক!

বলিরেখা দূরীকরণে ৬টি কার্যকরী প্যাক!

almond oil

প্রথমে জেনে নিই, বলিরেখা কেন হয়। আমাদের ত্বকের তিনটি স্তর থাকে। বাইরের ত্বক এপিডরমিস, মাঝের ত্বক ডরমিস ও সবশেষের ত্বক সাব-ক্যুটেনিয়াস নামে পরিচিত। ডরমিসে এক স্পেশাল প্রোটিন থাকে যা বলিরেখা হওয়া থেকে ত্বককে রক্ষা করে। কিন্তু বয়স বাড়ার সাথে সাথে এটি ক্ষয় হতে থাকে। এর কারণেই ত্বকের উপরের অংশ পাতলা হয়ে যায় এবং ভিতরের দিকে ধসে যেতে থাকে। এর কারণে চেহারা এবং গলার ত্বকের উপরে হাল্কা লাইনের মতো দাগ দেখা যায়। এই দাগই রিঙ্কেল বা বলিরেখায় পরিনত হয়। যদি আপনার বয়স ৩৫ পেরিয়ে গিয়ে থাকে তাহলে আজই আপনার ত্বকের যত্ন নিতে শুরু করুন। কারণ, আপনার ত্বকের বলিরেখা অচিরেই আপনার দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

বলিরেখা দূরীকরণে কার্যকরী প্যাকসমূহ

বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের স্কিনের স্বাভাবিকতা নষ্ট হতে থাকে স্কিন বুড়িয়ে যায় এবং রিঙ্কেলস হয়ে থাকে। চলুন জেনে নেই বলিরেখা বা রিঙ্কেলস প্রতিরোধ এবং দূরীকরণে কি কি উপায় অবলম্বন করতে হবে।

বলিরেখা প্রতিরোধের সহজ কিছু উপায়

১) প্রচুর পানি পান করুন। পরিমান মতো খাবার গ্রহন করুন।

২) রোদের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করুন। যখন ঘরের বাইরে যাবেন ভালো সানস্ক্রিন ক্রিম লাগিয়ে নিন।

৩) অযথা দুশ্চিন্তা করবেন না। মনকে শান্ত রাখুন।

৪) যতটা সম্ভব ধুমপান ও মদ্যপান এড়িয়ে চলুন।

৫) পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুমাতে হবে। কারণ ঘুম না হলে শরীরে দুর্বলতা থাকে যার প্রভাব চেহারায় সবথেকে বেশি পড়ে।

৬) অপরিমিত পরিমানে চা কিংবা কফি পান করবেন না। কারণ এইসব লিকুইডে প্রচুর পরিমানে নিকোটিন ও ক্যাফেইন থাকে যা আপনার চেহারার উজ্জলতা নষ্ট করে দিতে পারে।

বলিরেখা দূরীকরণে প্যাক

(১) আমন্ড অয়েল

আমন্ড অয়েল ত্বকের যত্নে খুবই উপকারী। প্রতিদিন শোয়ার সময় ১ চামচ আমন্ড অয়েল চোখের পাতায় এবং চোখের চারপাশে ম্যাসাজ করুন। প্রতিদিনের ব্যবহারে আপনার ত্বকের বলিরেখা দূর হবে।

(২) বাঁধাকপি এবং মধু

বাঁধাকপির রসে রয়েছে রিবোফ্লোভিন, প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড, থায়ামিন, ভিটামিন বি৬, ভিটামিন সি ও কে যা ত্বকের যত্নে অত্যন্ত উপকারী। মধু ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে এবং বলিরেখা বা রিঙ্কেলস দূর করতে সাহায্য করে। বাঁধাকপির রস, ১ চা চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে নিন। তারপর এই প্যাকটি আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এটি খুবই কার্যকরী।

(৩) শসার রস

বলিরেখা দূরীকরণে শসার রস - shajgoj.com

শসার রসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বকের যত্নে খুব ভালো কাজ করে। শসা ত্বকের তারুণ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে বহুদিন এবং এর পাশাপাশি একনে, ব্রণ এবং সানবার্ন দূর করতেও অতুলনীয় এই শসা। ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফেরার পর, তুলার প্যাড শসার রসে ডুবিয়ে ১০ মিনিট চোখের পাতার উপর দিয়ে রিল্যাক্স করুন। প্রতিদিনের ব্যবহারে আপনার চোখের ক্লান্তি থাকবে না এবং বলিরেখা বা রিঙ্কেলস দূর হবে।

(৪) অ্যাপল সাইডার ভিনেগার ও অরেঞ্জ জুস  

অ্যাপল সাইডার ভিনেগার ও অরেঞ্জ জুস মিশিয়ে টনিক হিসেবে স্টোর করতে পারেন। এটি নিয়মিত লাগালে বয়সের ছাপ কমে যাবে। প্রতিদিন নিয়ম করে এই টনিকটি ব্যবহার করুন এবং দূর করুন বলিরেখা।

(৫) অ্যালোভেরা 

বলিরেখা দূরীকরণে অ্যালোভেরা - shajgoj.com

অ্যালোভেরাতে রয়েছে অ্যান্টি ইনফ্লামেনটরি উপাদান যা ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। রাতে শোবার আগে অ্যালোভেরা জেল পুরো মুখে লাগিয়ে রাখুন।

(৬) টকদই, ক্রিম, ওটমিল ও লেবুর রস

টকদই, ক্রিম, ওটমিল, লেবুর রস মিশিয়ে ফেইসপ্যাক তৈরি করে মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষন পরে ধুয়ে ফেলুন এতে ত্বক নরম হবে। প্রতিদিন নিয়ম করে এই প্যাকটি ব্যবহার করলে ত্বকের বলিরেখা দূর হবে।

এছাড়াও ক্লিঞ্জিং, টোনিং, ময়শ্চারাইজিং এর প্রাথমিক নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করুন। নিয়মিতভাবে এই প্যাকগুলো ব্যবহার করলে ত্বকের বলিরেখা দূর করা সম্ভব হবে।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ; সাটারস্টক

0 I like it
1 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...