ত্বকের যত্নে ক্যারট ফেসিয়াল সম্পর্কে জানা আছে কি?

ত্বকের যত্নে ক্যারট ফেসিয়াল সম্পর্কে জানা আছে কি?

গ্লোয়িং স্কিন পেতে ক্যারট ফেসিইয়াল - shajgoj.com

ক্যারট বা গাজরের উপকারিতা সম্পর্কে আমরা কম বেশি সবাই জানি। গাজর রূপচর্চায় অতুলনীয়। গাজর নিয়মিত খেলে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে দ্বীপ্তিময় ও উজ্জ্বল। তবে আপনি জানেন কী, গাজর দিয়ে আজকাল ফেসিয়ালও করা যায় আর তা খুব কম সময়ের মধ্যেই। আপনি ঘরে বসেও করে নিতে পারেন ক্যারট ফেসিয়াল। চলুন জেনে নেওয়া যাক ত্বকের যত্নে ক্যারট ফেসিয়াল সম্পর্কে।

ত্বকের যত্নে ক্যারট ফেসিয়াল

ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক - shajgoj.com

উপকরণ

১. গাজর

২. মধু

৩. ভিটামিন-ই ক্যাপসুল

কেন ক্যারট ফেসিয়াল করব

১. ক্যারটে রয়েছে ভিটামিন-ই যা সরাসরি আমাদের ত্বকের ভেতরে গিয়ে পৌঁছবে।

২. গাজরের ভেতর আছে ভিটামিন এ, সি, পটাশিয়াম (Potassium) এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট (Anti-Oxidant)

৩. মধুতে আছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল (Anti-Bacterial) প্রপার্টিজ।

৪. ত্বক ময়েশ্চারাইজ করে।

৫. ব্রণের প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।

ক্যারট ফেসিয়াল করার পূর্বে যা করণীয়

ক্লিঞ্জিং

ক্লিঞ্জিং এর পূর্বে গরম পানির ভাপ নিয়ে নিন - shajgoj.com

 

ক্লিঞ্জিং দিয়ে মুখ ধোয়ার পূর্বে প্রথমে গরম পানির ভাপ নিয়ে নিন। এটি আপনার মুখের রন্ধ্র খুলে দিতে সাহায্য করবে। ভাপ নেওয়া হয়ে গেলে ক্লিঞ্জার দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন ভালো করে।

স্ক্রাবিং

ক্যারট ফেসিয়ালের পূর্বে স্ক্রাবিং - shajgoj.com

এবার স্ক্রাব দিয়ে মুখ আলতো ভাবে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ঘষুন। তারপর উষ্ণ তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে ফেলুন। মুখে কোন তেল থেকে থাকলে তোয়ালে দিয়ে মুছে ফেলুন। যদি আপনি ভারী মেকআপ নিতে চান, সেক্ষেত্রে আপনি চাইলে আবার মুখ ক্লিঞ্জিং করে নিতে পারেন।

টোনিং

টোনিং খুব গুরত্বপূর্ণ ধাপ ক্যারট ফেসিয়ালের - shajgoj.com

এ পর্যায়ে টোনিং করে নিতে হবে। টোনিং খুব গুরত্বপূর্ণ ধাপ ফেসিয়ালের। তুলা দিয়ে টোনার মুখে লাগান কিন্তু ভুলেও ঘষবেন না। চোখের কাছে লাগাবেন না।

মাস্ক

১. প্রথমে ২-৩ টি গাজর ধুয়ে নিন এবং স্লাইস করে গোল করে কেটে নিন।

২. এবার স্লাইস করে কাটা গাজরের টুকরাগুলো সেদ্ধ করে নিন অথবা আগুনের তাপে ভাপ নেন।

৩. এবার একটি ব্লেন্ডার নিন এবং এতে গাজরের টুকরাগুলো, ভিটামিন-ই  ক্যাপসুল ৪-৫ টি, মধু প্রায় ৪-৫ টেবিল চামচ মিশিয়ে নিন। সব কিছু একসাথে মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।

ব্যস তৈরি হয়ে গেল আপনার ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক। এবার এই মাস্ক মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন ভালো করে। ২০-৩০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে অন্যভাবেও মাস্ক প্রস্তুত করতে পারেন। আপনাদের সুবিধার্থে নীচে কয়েকটি মাস্ক প্রস্তুত করার নিয়ম দেখানো হলঃ

ত্বকের উজ্জ্বলতায় ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক

ত্বকের উজ্জ্বলতায় ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক - shajgoj.com

১. ২টি খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ চটকানো গাজর (ঠান্ডা হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন)

২. লেবুর রস- ২ চা চামচ

৩. মধু- ২ টেবিল চামচ

৪. অলিভ অয়েল (ত্বক তৈলাক্ত হয়ে থাকলে অলিভ অয়েল দিবেন না)- ১ টেবিল চামচ

এবার সব কিছু একসাথে মিশিয়ে পেস্ট করে নিন এবং মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। এবার ৩০ মিনিট পর্যন্ত লাগিয়ে রাখুন। তারপর কুসুম কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বকে লাল আভা আনার জন্য ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক

১. খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ চটকানো গাজর (ঠান্ডা হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন)- ১টি।

২. খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ চটকানো আলু (ঠান্ডা হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন)- ১টি।

৩. যবের গুঁড়ো- ১ টেবিল চামচ।

সব কিছু একসাথে মিশিয়ে পেস্ট করে নিন এবং মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। এবার ৩০ মিনিট পর্যন্ত লাগিয়ে রাখুন। তারপর কুসুম কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

বয়সের বলিরেখা দূরীকরণে ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক

• ১টি খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ চটকানো গাজর (ঠান্ডা হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন)।

• ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল (ত্বক তৈলাক্ত হয়ে থাকে অলিভ অয়েল দিবেন না)।

সবকিছু একসাথে মিশিয়ে পেস্ট করে নিন এবং মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। এবার ২০ মিনিট পর্যন্ত লাগিয়ে রাখুন। তারপর কুসুম কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

আপনি এভাবে আপনার পছন্দ মত ক্যারট ফেসিয়াল মাস্ক প্রস্তুত করে নিতে পারেন। নিয়মিত এই ফেসিয়াল করে আপনি হয়ে উঠতে পারেন লাবণ্যময়ী ও রূপসী। ১৫ দিন অথবা ১ মাস পর পর করে নিতে পারেন এই ফেসিয়াল।

আশা করি ত্বকের যত্নে ক্যারট ফেসিয়াল মাস্কটি আপনাদের উপকারে আসবে।

ছবি – সংগৃহীত: ফ্লিকার.কম, সিতারে.কম, বিউটি৯, পিনটারেস্ট.কম, কুকিডু.সিও.ইউকে, ইমেজেসবাজার.কম, টুইটার.কম

6 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...