গ্লোয়িং ত্বকের জন্য উপটানের ৩টি চমৎকার ফেইসপ্যাক!

গ্লোয়িং ত্বকের জন্য উপটানের ৩টি চমৎকার ফেইসপ্যাক!

গ্লোয়িং ত্বকের জন্য উপটানের ফেইসপ্যাক

নারীদের রূপচর্চায় এমন একটি রূপ সামগ্রী আছে যেটি হাজার হাজার বছর ধরে এবং এখন পর্যন্ত ব্যবহার হয়ে আসছে। বলুন তো, কিসের কথা বলছি? হ্যাঁ, ঠিকই ভেবেছেন! আমি উপটানের কথা বলছি। উপটান ভারতীয় উপমহাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী রূপ সামগ্রী। নিয়মিত উপটান ব্যবহারে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে দাগমুক্ত, কোমল এবং উজ্জ্বল। অনেক বছর আগে; বিয়ের কনে অথবা বিভিন্ন উৎসবে নারীরা উপটান ব্যবহার করতো। কিন্তু এখন ত্বকের যত্নে ঘরে বসেই যেকোনো সময় উপটানের তৈরি ফেইস প্যাক ব্যবহার করে ত্বককে করে তুলতে পারবেন আরও উজ্জ্বল ও সুন্দর। গ্লোয়িং ত্বকের জন্য উপটানের ফেইসপ্যাক অপরিহার্য। তাই; উপটানের ৩টি চমৎকার ফেইসপ্যাক সম্পর্কে আজকের এই ফিচার!

গ্লোয়িং ত্বকের জন্য আমার পছন্দের উপটান

প্রাকৃতিক উপাদান যেমনঃ হলুদ, চন্দন, নিম, বেসন, মুলতানি মাটি, কমলার খোসা গুঁড়ো ইত্যাদির মিশ্রণে এই প্রাকৃতিক রূপ সামগ্রীটি তৈরি করা হয়। রোজ এতোকিছু একসাথে মিশিয়ে উপটান বানানোর সময় বা ধৈর্য সবার নেই। তাই এক্ষেত্রে আমার পছন্দ “রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটান”। এটি প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি এমন একটি উপটান যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে দারুন কার্যকরী।

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটান  

Rajkonna glowing face uptan

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটানে ৬টি কার্যকরী উপাদান আছে। যেগুলোর সংমিশ্রণ এই ফেইস উপটানটিকে করে তোলে অনন্য। এই ম্যাজিক্যাল  ফেইস প্যাক আপনার ত্বককে উজ্জলতা দেয়ার পাশাপাশি ময়েশ্চারাইজডও করবে। এটি-

  • ১০০% প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি।
  • অর্গানিক।
  • সব স্কিনে স্যুট করবে।

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটানে আছে,

  • হলুদ,
  • চন্দন,
  • নিম,
  • বেসন,
  • মুলতানি মাটি ও
  • কমলার খোসা গুঁড়ো।

উপকারিতা

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটানের আছে অনেক গুণাবলি। এর উপকারিতা গুলো হচ্ছে-

স্কিনটোন উজ্জ্বল করে

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটানে উপস্থিত ছয়টি উপাদানের সংমিশ্রণটি আপনার ত্বকে প্রাকৃতিক আভা এনে দিয়ে পুনরজ্জীবিত করতে সহায়তা করবে।

ইনফ্লেমেশন কমায়

হলুদ এবং চন্দনে আছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং সুদিং প্রপার্টিজ যা যেকোনো প্রদাহ কমাতে সহায়তা করে। হলুদ থাকায় ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমিয়ে আনে। যেহেতু হলুদ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল।

পিগমেন্টেশন ও রোদে পোড়া ভাব দূর করে

বেসন এবং চন্দন কাঠ এই উপটানের অন্যতম দুইটি সেরা উপাদান যা সানট্যান দূর করে ত্বককে উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। এতে থাকা বেসন ত্বককে ভেতর থেকে পরিস্কার করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

ব্লেমিশ এবং ব্রণের দাগ দূর করে

নিম, মুলতানি পাউডার এবং কমলা খোসা গুঁড়ো ডার্ক স্পট, ব্লেমিশ এবং ব্রণের দাগ দূর করে এবং ত্বকের অবস্থার উন্নতি করে।

স্ক্রাব হিসেবে

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটান ডেড স্কিন সেল দূর করে। এতে করে ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস কমে আসে।

গ্লোয়িং ত্বকের জন্য উপটানের ৩টি চমৎকার ফেইসপ্যাক

প্রাচীনকাল থেকেই ত্বকের যত্নে ব্যবহৃত হয়ে আসছে উপটান। যেকোনো অকেশনের পূর্বে ত্বককে প্রস্তুত করতে, ত্বককে প্যাম্পার করতে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে ব্যবহার করা হয় উপটান। এখন আমি রাজকন্যা গ্লোয়িং উপটান দিয়ে বানানো কিছু ফেইসপ্যাক নিয়ে লিখবো যা আপনার ত্বকে ধরন অনুযায়ী নিজেই তৈরি করে নিতে পারবেন।

উপটান দিয়ে তৈরি ফেইসপ্যাক

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ফেইসপ্যাক

যা যা লাগবে –

  • উপটান- ১.৫/২ চা চামচ।
  • টকদই- ১ চা চামচ।

যেভাবে ব্যবহার করবেন-

  • উপটান এবং টকদই ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
  • মুখে লাগিয়ে ১০/১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

শুষ্ক ত্বকের জন্য ফেইসপ্যাক

যা যা লাগবে- 

  • উপটান- ২ চা চামচ ।
  • মধু- ১ চা চামচ ।
  • তরল দুধ।

যেভাবে ব্যবহার করবেন- 

  • উপটান, মধু, দুধ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
  • মুখে লাগিয়ে ১০/১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ময়েশ্চারাইজড ত্বকের জন্য উপটান ফেইসপ্যাক

যা যা লাগবে-

  • উপটান- ২ চা চামচ।
  • কমলার রস- ১ চা চামচ।
  • গোলাপ জল- ১ চা চামচ।
  • টকদই- ১ চা চামচ।

যেভাবে ব্যবহার করবেন-

  • সব উপাদান খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
  • মুখে লাগিয়ে ১০/১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

কুইক টিপস

গ্লোয়িং স্কিনের অধিকারী একজন

  • যারা এতোগুলো উপাদান মেশানোর ঝামেলায় যেতে চান না তারা এই রাজকন্যা ফেইস উপটান শুধু পানি দিয়ে মিশিয়েও লাগাতে পারেন। তাহলেও আপনারা বেশ ভালো একটি আউটপুট পাবেন।
  • যারা ঘরে বসেই খুব সহজে হেলদি গ্লোয়িং একটা স্কিন চান; তারা রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটান দিয়ে মাত্র ১০-১৫ মিনিটেই রেজাল্ট পেতে পারেন।

রাজকন্যা গ্লোয়িং ফেইস উপটান ত্বক উজ্জ্বল করার পাশাপাশি ত্বককে করে তোলে ময়েশ্চারাইজড, এছাড়াও ত্বকের অনেক সমস্যার সমাধান করে। তাই; এই তিনটি প্যাকের মধ্যে থেকে আপনার স্কিনের প্রয়োজন অনুযায়ী বেছে নিন। যেকোনো একটি উপটান ফেইসপ্যাক নিয়মিত ব্যবহার করুন। সপ্তাহে দুই থেকে তিনদিন ব্যবহার করতে পারবেন এই গ্লোয়িং ফেইস উপটান। অথেনটিক স্কিনকেয়ার প্রোডাক্টস কিনতে আপনারা চাইলে সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত, সেখান থেকে কিনতে পারেন আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন। ভালো থাকুন, নিরাপদে থাকুন।

ছবি- সাজগোজ, সাটারস্টক 

23 I like it
5 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...