স্পিনাচ স্টাফড চিকেন | ২০ মিনিটে তৈরি করুন রেসিপিটি!

স্পিনাচ স্টাফড চিকেন

স্পিনাচ স্টাফড চিকেন - shajgoj.com

একই রকমভাবে চিকেন খেতে খেতে একঘেয়েমি লাগছে? মাঝে মধ্যে স্বাদের একটু পরিবর্তন আসলে মন্দ হয় না! চিকেনের নতুন কোনো রেসিপি খুঁজছেন কি যেটা একই সাথে হেলদি আর টেস্টি হবে? যারা রান্না করতে ভালোবাসেন কিন্তু ব্যস্ত জীবনে সময়ের অভাবে রান্নার জন্য বেশি আয়োজন করতে পারেন না, তাদের জন্য চাই চটজলদি ওয়ান ডিশ রেসিপি। “স্পিনাচ স্টাফড চিকেন” নাম শুনে কঠিন বলে মনে হতে পারে কিন্তু এটা খুবই কম সময়ে ও অল্প উপকরণ দিয়ে বানিয়ে নেয়া যায়। স্পিনাচ স্টাফড চিকেনের জন্য কী কী লাগবে ও কিভাবে তৈরি করতে হয় চলুন জেনে নেই।

স্পিনাচ স্টাফড চিকেন তৈরির পদ্ধতি  

উপকরণ

  • চিকেন ব্রেস্ট- ৪ পিছ
  • ক্রিম চিজ- ২৫০ গ্রাম
  • ব্রেড ক্রাম্ব- ১ কাপ
  • পালংশাক কুঁচি (হালকা করে ভাপিয়ে রাখা)- ২ কাপ
  • রসুনকুঁচি ( মিহি করা)- ৩ কোঁয়া
  • গোলমরিচ গুঁড়ো- ১ চা চামচ
  • কাঁচা মরিচ কুঁচি- ১ চা চামচ
  • পেঁয়াজ কুঁচি- ২ চা চামচ
  • লবণ- স্বাদ অনুযায়ী
  • ডিম– ২টি
  • কর্ণ ফ্লাওয়ার- ৩ টেবিল চামচ
  • তেল- ভাজার জন্য

প্রস্তুত প্রণালী

১) প্রথমে বোনলেস চিকেন ব্রেস্টের যে অংশটি সবচেয়ে বেশি মাংস, সেখানে ছুরির সামনের অংশটি ঠেকিয়ে সাবধানে মাঝ বরাবর একটা চেম্বার বা পকেট তৈরি করুন। পুরোপুরি দুই ভাগ করবেন না।

২) এরপর কিচেন ন্যাপকিন দিয়ে চেপে চেপে চিকেন থেকে পানি মুছে নিয়ে এতে লবণ ও গোলমরিচ ছিটিয়ে নিন, পকেটের ভিতরের অংশটাও বাদ দিবেন না।

৩) অন্যদিকে আলাদা একটি বোলে পুর বা স্টাফ তৈরির জন্য ক্রিম চিজ, পালং, পেঁয়াজ কুঁচি, কাঁচা মরিচ কুঁচি, সামান্য লবণ আর মিহি করে রাখা রসুন কুঁচি খুব ভালো করে মিক্স করে নিন।

৪) তারপর এই পুর চিকেনে ব্রেস্টে যে পকেট করে রাখা হয়েছিল সেখানে সাবধানে ভরে দিন।

৫) এবার পুরসহ চিকেন ব্রেস্ট কর্ণ ফ্লাওয়ারে গড়িয়ে নিন।

৬) একটি বড় বাটিতে ডিম ফেটিয়ে নিয়ে সামান্য লবণ ও গোলমরিচের গুঁড়ো মিক্স করে নিন।

৭) এবার চিকেন ব্রেস্টগুলো ডিমের গোলাতে চুবিয়ে ব্রেড ক্রাম্ব দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিন।

৮) তারপর গরম তেলে চিকেনগুলো বাদামি করে ভেজে নিতে হবে। চুলার আঁচ কমিয়ে ভাজবেন, এতে চিকেনগুলো ভালোভাবে সেদ্ধ হবে এবং বাইরের অংশ ক্রিস্পি হবে।

ব্যস, স্পিনাচ স্টাফড চিকেন রেডি। এবার সালাদ, গার্লিক টোস্ট কিংবা পছন্দমতো সসের সাথে চিকেন স্লাইস করে কেটে পরিবেশন করুন। অফিসের লাঞ্চে, বাচ্চার টিফিনে কিংবা ডিনারেও অনায়াসে চলতে পারে এই ডিশটি।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ; ফোস্টারফার্মস.কম

1 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...