হাত-পায়ের ত্বক মলিন দেখাচ্ছে? জেনে নিন সমাধানগুলো!

হাত-পায়ের ত্বক মলিন দেখাচ্ছে? জেনে নিন সমাধানগুলো!

2 (17)

আমরা ফেইসের যত্ন নিতে নিতে এতটাই মগ্ন হয়ে যাই যে, আমাদের হাত পায়ের ত্বকের যত্ন নেয়াটা আমাদের কাছে গুরুত্বহীন হয়ে পরে। বডির স্কিনের যত্ন নিতেই যেন আলসেমি লাগে, তাই না? যদি ফেইসের যত্ন নেয়ার পর কিছু সময় থাকে, তবে আমরা শরীরের ত্বকের দিকে একটু লক্ষ্য দেই! তাও ময়েশ্চারাইজিং লোশন লাগানো পর্যন্তই, এর বেশি কিছু না! এতে করে দিন দিন হাত, পা এবং শরীরের অন্যান্য অংশ মুখের তুলনায় মলিন হয়ে যাচ্ছে। আচ্ছা, হাত পায়ের ত্বকের যত্নে শুধু লোশন লাগানোই কি যথেষ্ট ? অনেকের মুখের তুলনায় হাত পা কালো দেখায়। কীভাবে যত্ন নিলে শরীরের ত্বক থাকবে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত, সেটাই জেনে নেয়া যাক আজ।

হাত-পায়ের ত্বকের যত্ন

বডির স্কিনের যত্ন নিতে এই স্টেপগুলো ফলো করতে পারেন-
১। বডি ওয়াশ
২। বডি স্ক্রাবিং বা এক্সফোলিয়েটিং
৩। সান প্রটেকশন

শরীরের ত্বক পরিষ্কারে বডি ওয়াশের ব্যবহার

গোসল করার মেইন উদ্দেশ্যই হল শরীরের ত্বক পরিষ্কারের পাশাপাশি একটা রিফ্রেশিং ফিল নিয়ে আসা। বডি ওয়াশ প্রতিদিন ব্যবহারে শরীরের ঘাম, ধুলা-বালি পরিষ্কার হবে। বডি ওয়াশ শাওয়ার পাফ অথবা হাতে নিয়ে ব্যবহার করা যায়। শরীর ভিজিয়ে নিয়ে পরিমাণ মত বডি ওয়াশ শাওয়ার পাফ অথবা হাতে নিয়ে ২-৩ মিনিটের মত শরীরে রাব করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এটি আমাদের শরীরের ত্বকে পি এইচ লেভেল ব্যালেন্স করতে কাজ করে, আর এটা অনেক বেশি জেল্টল বা মাইল্ড হয়ে থাকে, তাই স্কিন ড্রাই হয়ে যায় না। বডি ওয়াশের যে স্মেল থাকে সেটা বডিতে রিফ্রেশিং ফিল দেয় দিনভর।

বডি স্ক্রাবিং বা এক্সফোলিয়েটিং 

আমরা যেমন ফেইসের ডেড সেলস রিমুভ করার জন্য স্ক্রাবিং করে থাকি, ঠিক তেমনি শরীরের ডেড সেলস রিমুভের জন্য প্রয়োজন বডি স্ক্রাবিং। হাত, পা এবং শরীরের অন্যান্য অংশ যদি কালো এবং মলিন লাগে, তবে তার আরেকটি কারন হতে পারে স্কিনে ডেড সেলস পাইল আপ হওয়া বা ত্বকে ডেড সেলস-এর স্তর জমে যাওয়া। বডি স্ক্রাবিং কেন জরুরি, সেটাই এখন জানবো।

১। বডি স্ক্রাবিং করলে শরীরের উপরিভাগের ময়লা, ডেড সেলস রিমুভ হয় সহজেই। এতে আমাদের ত্বকের লোমকূপগুলো পরিষ্কার থাকে।

২। বডি স্ক্রাবিং-এর সময় ম্যাসাজ করার কারনে শরীরের ব্লাড সার্কুলেশন ইম্প্রুভ হয়।

৩। স্কিনের টেক্সচার, ইলাস্টিসিটি ঠিক থাকে। ত্বক হয় ইউথফুল এবং রেডিয়েন্ট।

কীভাবে বডি স্ক্রাবিং করতে হবে?

পরিমাণ মত বডি স্ক্রাব নিয়ে তা ভেজা শরীরে হাত দিয়ে বডিতে রাব করতে হবে। খুব আস্তে আস্তে সারকুলার মোশনে ম্যাসাজ করতে হবে যেন তা স্কিনের জন্য হার্শ না হয়ে যায়। ২-৩ মিনিট ভালো করে ম্যাসাজ করে তা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এরপর বডি ওয়াশ দিয়ে পরিষ্কার করে নিন।

সপ্তাহে কতবার বডি স্ক্রাবিং করা দরকার?

অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে যে, বডি ওয়াশের মত বডি স্ক্রাবও কি প্রতিদিন ব্যবহার করা যাবে নাকি! এর উত্তর, না। বডি স্ক্রাব হলো ফিজিক্যাল এক্সফোলিয়েটর যা প্রতিদিন ব্যবহারে ত্বকের উপরিভাগের নতুন কোষ ওয়াশ আউট হয়ে যেতে পারে, স্কিনের ক্ষতিও হতে পারে। সপ্তাহে ২-৩ বারের বেশি বডি স্ক্রাবিং করার দরকার হয় না।

সান প্রটেকশন 

আমরা দিনের বেলায় ফেইসের জন্য যেমন সানস্ক্রিন ইউজ করি, ঠিক তেমনি আমাদের শরীরের ত্বকের জন্যও প্রয়োজন এস.পি.এফ যুক্ত বডি লোশন যা সূর্যের ক্ষতিকর ইউ ভি রে থেকে আপনাকে প্রটেক্ট করবে। ফেইসের তুলনায় আমাদের হাত-পা কালো এবং মলিন হবার আরেকটি বড় কারন হল সান প্রটেকটিভ বডি লোশন ব্যবহার না করা। দিনের বেলায় বাসায় অথবা বাহিরে যেখানেই থাকা হোক না কেন, সান প্রটেকশন কিন্তু মাস্ট। রান্নার সময়, বারান্দায় গেলেও সানস্ক্রিনের দরকার আছে। এতে আপনার হাতের ত্বক সুরক্ষিত থাকবে।

বোনাস টিপস

হাত-পায়ের যত্ন পারসোনাল হাইজিন মেনটেইনের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আর পা, হাত কালচে লাগলে বা অপরিচ্ছন্ন হলে সেটা কিন্তু দেখতেও ভালো লাগে না, তাই না? প্রয়োজন হলে সপ্তাহে ১-২ দিন হাত-পায়ে প্যাক ব্যবহার করবেন। টকদই, সামান্য লেবুর রস, উপটান– একসাথে মিক্স করে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলবেন। আর যারা এসিতে থাকেন এবং স্কিন ড্রাই ফিল হয়, তারা রাতে ঘুমানোর আগে ভালোমানের ময়েশ্চারাইজিং লোশন ইউজ করবেন। বেশি শুষ্ক লাগলে অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েল দিয়ে ম্যাসাজ করতে পারেন। ব্যস, ফেইসের সাথে সাথে হাত-পায়ের স্কিনও থাকবে স্মুথ আর গ্লোয়িং।

যারা বডির স্কিনের যত্ন নেওয়ার জন্য প্রোপার গাইডলাইন খুঁজছিলেন, আশা করছি তারা আজকের লেখা থেকে বেসিক কিছু স্কিন কেয়ার টিপস জানতে পারলেন। ফেইসের সাথে সাথে হাত-পায়ের ত্বকের যত্ন শুরু হয়ে যাক তাহলে। বেশি কিছু না, জাস্ট কয়েকটা স্টেপ ফলো করলেই আপনার ত্বক থাকবে কোমল। অথেনটিক স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট কিনতে আমার সবসময়ই ভরসা শপ.সাজগোজ.কম। অনলাইনে অর্ডার করে ঘরে বসেই প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে যায়। আর সাজগোজের দুইটা আউটলেট আছে, যেটা যমুনা ফিউচার পার্ক আর সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত।

ছবি- সাজগোজ

13 I like it
2 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...