চুলের সাজে কৃত্রিম ফুল - Shajgoj চুলের সাজে কৃত্রিম ফুল - Shajgoj

চুলের সাজে কৃত্রিম ফুল

এপ্রিল ১৬, ২০১৪

চুলের সাজের অনুষঙ্গ হিসেবে বহু আগে থেকেই চলে আসছে তাজা ফুলের ব্যবহার। তাজা ফুলের তুলনা তো শুধু সে নিজেই, তবে আজকাল কৃত্রিম ফুল ব্যবহারের চলও বেশ দেখা যাচ্ছে। চুল জেল দিয়ে বেঁধে বড় একটা কৃত্রিম ফুল গুঁজে দিলে বেশ জমকালো আমেজ পাওয়া যায় সাজে। আবার এই ফুলগুলো শুকিয়ে নষ্ট হয়ে যাওয়ারও ভয় নেই। দূরের কোন দাওয়াতের অনুষ্ঠানের জন্য তাজা ফুলের থেকে কৃত্রিম ফুল আপনাকে এনে দিবে স্বস্তি। কেননা দীর্ঘসময়ের জন্য তাজা ফুলের সেই সতেজটা থাকে না তা খোঁপাতেই নেতিয়ে পড়ে খানিক পরই। সে ক্ষেত্রে বেছে নিতে পারেন কৃত্রিম ফুল। এ ছাড়া অনেক সময় আপনার পোশাকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে প্রাকৃতিক ফুল না পেলেও খুব সহজেই পেয়ে যেতে পারেন শুকনো ফুল।

মুখের গড়নের সাথে মানানসই ফুলঃ

– যেকোনো ফুল বেছে নিলেই চলবে না। মুখের গড়ন গোল হলে একটু চ্যাপটা ও ছোট আকৃতির ফুল বেছে নিন।

– যাদের মুখ লম্বাটে, তাঁরা তুলনামূলক ছড়ানো ও বড় ফুল পরতে পারেন।

ফুলের রঙ নির্বাচনঃ

শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, পাশ্চাত্য পোশাক সবকিছুর সঙ্গেই রং মিলিয়ে পরতে পারেন শুকনো ফুল। পোশাকের রঙের সাথে মিলিয়ে একই রঙের ফুল না পরেও কখনো কখনো উজ্জ্বল রঙের সাথে সাদা রঙের ফুল বেঁছে নিতে পারেন। অথবা লালরাঙা ঠোঁট আর লাল টিপের সঙ্গে মিলিয়ে পরতে পারেন লাল ফুল।

কৃত্রিম ফুলে কীভাবে সাজাবেন চুলঃ

রাতের জমকালো পার্টিতেও শাড়ির সাথে পিঠে ছেড়ে দিন এক রাশ কাল খোলা চুল আর কানে গুঁজে দিন ছোট্ট একটি ফুল। আবার আপনি চাইলে চুলের সাজে আনতে পারেন বৈচিত্র্য। সামনের দিকের চুলটা ঢেউ খেলিয়ে চ্যাপটা করে কানের কাছে টেনে নিতে পারেন অথবা খোলা চুলে কানের ওপরে গুঁজে দিতে পারেন ফুল। চুলটা পনিটেইল করেও লাগিয়ে নিতে পারেন কোনো ফুল। রাতের সাজে গ্লিটারসহ ফুল বেছে নিন জমকালো কোনো পোশাকের সঙ্গে। দিনের বেলায় ফুল কম পরুন। বড় হলে একটা ফুলই থাক। ছোট ফুল হলে দুটি বা তিনটি নিন। হাতে ক্লাচ ব্যাগের সঙ্গে খুব ভালো মানিয়ে যাবে সাজটা। শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, পাশ্চাত্য পোশাক—সবকিছুর সঙ্গেই পরতে পারেন শুকনো ফুল।

কোথায় পাবেন?

ছোট বড় নানান ডিজাইনের আর রঙের কৃত্রিম ফুল এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। আপনি যেকোনো সাজসজ্জার দোকানে খোঁজ করলে পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দের রঙিন ফুল। গাউছিয়া, ইস্টার্ন মল্লিক, জয়িতা, মেট্রো শপিং মল, পিঙ্ক সিটি, বসুন্ধরা সিটি সহ প্রায় সব দোকানে ৫০-৩৫০ টাকার মধ্যে পাবেন ছোট-বড় নানা আকৃতির ফুল। ফুলের কৃত্রিম মালা পাবেন ১০০-৪৫০ টাকার মধ্যে।

কিছু টিপসঃ

-দিনের বেলায় ফুল কম পরুন। বড় হলে একটা ফুলই থাক। ছোট ফুল হলে দুটি বা তিনটি নিন।

-যখন বড় ফুল পরবেন, তখন গলা ও কানের গয়নাটা একটু হালকা বেছে নিন।

-ফুল কেনার সময় খেয়াল রাখুন ফুলগুলো নিখুঁত কি না এবং ফুলের পাপড়ির রং স্থায়ী কি না।

চাইলে নিজেও প্রাকৃতিক ফুল শুকিয়ে রাখতে পারেন। গোলাপ, চন্দ্রমল্লিকা ও ডালিয়া ফুলকে উল্টো করে চার সপ্তাহ ঝুলিয়ে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে একটু মোটা পাপড়ির ফুল বেছে নিন। চাইলে মনের মতো রঙে রাঙিয়ে নিতে পারেন তা অথবা রঙিন ফিতা ও কাপড় দিয়ে নিজেই বানিয়ে নিতে পারেন আপনার পছন্দের রঙিন ফুল আর নিজের ডিজাইন করা এই ফুল দিয়ে তাক লাগিয়ে দিন সকলের। যে কোনো অনুষ্ঠানেই  খোঁপায় গুঁজে দিন কৃত্রিম অথবা তাজা ফুল দেখবেন আপনিই হয়ে উঠছেন অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ। সবার নজর কাড়বে আপনার খোঁপার ফুলটি।

লিখেছেনঃ রোজেন

ছবিঃ রোজেন