সামার হেয়ার কেয়ার | গরমে চুলের যত্ন নিশ্চিত করতে ৮টি টিপস

সামার হেয়ার কেয়ার | গরমে চুলের যত্ন নিশ্চিত করতে ৮টি টিপস

সামার হেয়ার কেয়ার নিয়ে আমরা কতটা জানি? আর গরমে কি আমরা চুলের যত্ন নিয়ে থাকি? অথচ, বাংলাদেশে ১২ মাসের ৪ ভাগের প্রায় ৩ ভাগই গরম আবহাওয়া থাকে। যেহেতু গ্রীষ্মকাল চলছে, সেহেতু এখন প্রচণ্ড গরম। আর এই গরমের প্রভাব তো আমাদের শরীরে পড়ছেই। চুলও বাদ যাচ্ছে না গরমের খারাপ প্রভাব থেকে। ফলে গরমে চুল রুক্ষ হয়ে যায়, মাথার তালু ঘেমে চুল পড়া শুরু হয় ইত্যাদি আরো কতো কি! তাই আজকে জানাবো কিভাবে এই প্রচন্ড গরমেও চুল সুস্থ এবং সুন্দর রাখতে পারবেন তথা গরমে চুলের যত্ন বা সামার হেয়ার কেয়ার নিতে কিছু টিপস।

সামার হেয়ার কেয়ার নিশ্চিত করতে ৮টি টিপস

(১) গরমের সময়ে চুল ড্যামেজ হয়ে যায়। বিশেষ করে রোদে গেলে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। আর যাদের চুল এমনিতেই ড্রাই, তাদের তো সমস্যার শেষ থাকে না। তাই চুলকে সুন্দর এবং ড্যামেজ ফ্রি করে তুলতে দরকার ডাবল কন্ডিশনিং করা। প্রতিবার শ্যাম্পু করার আগে চুলে কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন। ৫-১০ মিনিট অপেক্ষা করে শ্যাম্পু করে নিন। শ্যাম্পু করার পর আবার কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন। চুলে ২ বার কন্ডিশনার ব্যবহারের ফলে চুলে এক্সটা কন্ডিশনিং হবে। যা আপনার ড্রাই এবং ড্যামেজ হেয়ারকে অনেক সফট এবং স্মুদ বানিয়ে দেবে।

(২) গরমের দিনে যে কোনো ব্রেইড অথবা হেয়ার বানকে বন্ধু করে ফেলুন। চুল খোলা রেখে বাইরে না যাওয়াই ভালো। কারণ, বাইরের কড়া রোদে খোলা চুল আপনার অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে ।

(৩) বাইরে রোদে গেলে চুলগুলো কোনো স্কার্ফ অথবা হ্যাট দিয়ে ঢেকে নিন। কারণ আপনি অবশ্যই চাইবেন না যে আপনার চুল সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির কবলে পড়ে নষ্ট হোক ।

(৪) সবসময় চেষ্টা করবেন সন্ধ্যা অথবা রাতে চুল ওয়াশ করতে। কারণ সকাল বেলা যদি আপনি চুল ওয়াশ করে বাইরে যান, তো সারাদিনে আপনার চুলে অনেক ধরণের ময়লা, অয়েল জমা হবে এবং আপনি সেই চুল নিয়েই রাতে শুয়ে পড়লেন। এতে সারারাত ধরে আপনার চুলে বা স্কাল্পে ওই সকল ডার্ট এবং অয়েল অনেক বেশী ক্ষতি করবে এবং ইনফেকশন হয়েও যেতে পারে । তাই সব সময় চুল বাইরে থেকে ফিরে বা রাতে ওয়াশ করার চেষ্টা করবেন। এতে সারারাত ধরে আপনার স্কাল্প ক্লিন থাকবে এবং হেয়ার গ্রোথও ভালো হবে ।

(৫) গরমকালে এমনিতেই চুল অনেক বেশী খারাপ হয়ে যায়। তাই এই গরমে হিট স্টাইলিং কিটগুলো একটু দূরে রাখুন। কারণ এতে চুল আরো ড্যামেজ হয়ে যায়। যদি ব্যবহারের খুবই দরকার পড়ে তবে আগে হিট প্রোটেক্টর স্প্রে লাগিয়ে নিতে ভুলবেন না।

(৬) এই গরমে মাথার স্কাল্পকে একটু রিফ্রেশমেন্ট এবং কুলিং ভাব দিতে, নিজেই বানিয়ে নিতে পারেন কুলিং শ্যাম্পু। শ্যাম্পু করার সময় এর মধ্যে ১-২ ফোটা পেপারমিন্ট অয়েল মিক্স করে নিন। ব্যাস, পেপারমিন্ট অয়েল আপনার স্কাল্পকে কুলিং ফিল দিবে এবং এটা স্কাল্পের ব্লাড সার্কুলেশন বাড়িয়ে দিয়ে হেয়ার গ্রোথকে প্রোমোট করবে।

(৭) গরমকালে আর একটি বড় সমস্যা হলো খুশকি। যাদের খুশকি বেশী হয়, তারা চুলে তেল ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু সাবধান থাকবেন । কারণ অপরিষ্কার মাথায় তেল ব্যবহার কিন্তু খুশকিকে বাড়তে সাহায্য করে। আর তেল ব্যবহারের প্রয়োজন পড়লে, শ্যাম্পু করার ১ ঘন্টা আগে তেল ব্যবহার করবেন এবং এরপর ভালোভাবে চুল শ্যাম্পু করে নিবেন।

(৮) বাইরে বের হওয়ার আগে কেমিক্যালযুক্ত প্রোডাক্ট যত পারবেন, কম ব্যবহার করবেন। বিশেষ করে হেয়ার স্প্রে এবং ড্রাই শ্যাম্পু। বাইরে রোদের সংস্পর্শে গেলে চুলের গোড়া ঘামবে এবং কেমিক্যালযুক্ত প্রোডাক্টগুলোর সাথে ঘাম এবং অয়েল মিশে স্কাল্পের ক্ষতি করতে পারে ।

এই ছিলো সামার হেয়ার কেয়ার নিয়ে  কিছু টিপস। এই গরমেও আপনার চুল থাকুক সুন্দর এবং সামার প্রুফ।

ছবি – সংগৃহীতঃ ইমেজেসবাজার.কম

22 I like it
1 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...