বাথরুম সুসজ্জিত রাখতে ৭টি উপায়!

বাথরুম সুসজ্জিত রাখার ৭টি উপায়

আপনি সারাদিনের কাজের শেষে ঘরে ফিরলেন। ঘামে ভেজা শরীর, একটা শাওয়ার (shower) নিতে পারলে মন্দ হয় না! এই ভেবে বাথরুমে ঢুকলেন। সেইসময় বাথরুমের পরিবেশ যদি মনোরম হয়, তাহলে তা সহজেই আপনার মানসিক ক্লান্তি দূর করতে পারে। তাই আপনার বাসার বাথরুমগুলো বেশ মনোরমভাবে সাজাতে পারেন। এর জন্য যে লঙ্কাকান্ড করতে হবে এমন কোন কথা নেই। বরং হাতের কাছে যা পাওয়া যায় তাই দিয়েই সহজে সাজানো সম্ভব। বাথরুম সুসজ্জিত রাখতে কী কী পদ্ধতি অবলম্বন করবেন তা আজকে আমরা জানাবো। তো, চলুন দেখে নাই কিভাবে ৭টি উপায়ে খুব সহজে আপনার বাথরুম সুসজ্জিত রাখতে পারেন।

বাথরুম সুসজ্জিত রাখার ৭টি উপায়

১. সিদ্ধান্ত নিন, কীভাবে সাজাতে চাচ্ছেন

 

প্রথমেই সিদ্ধান্ত নিন আপনি বাথরুমের ভেতরেরটা কীভাবে সাজাতে চান। নতুন পেইন্টিং (painting) ব্যবহার করবেন? টাইলস (Tiles) ব্যবহার করবেন? নাকি কাঠের কোন কাজ করবেন। যদি এই ধরণের সিদ্ধান্ত নিয়ে মাথা ঘামাতে না চান, কিংবা বেশি ঝামেলার মনে হয় তাহলে শুধু কিছু আলাদা জিনিস যোগ করতে পারেন। যেমন একটা তাক, কিংবা দুটো ফুলদানি এই ধরণের ছোটখাটো জিনিস।

২. বাথরুম সুসজ্জিত্য রাখতে একটি থিম চয়েস করুন

 

আপনার বাথরুমকে সাজানোর জন্য একটি নির্দিষ্ট থিম (Theme) কিংবা প্যাটার্ন (pattern) চয়েস করুন। যেমন- কী ধরনের রং ব্যবহার করতে চান, আপনার বাথরুমের স্টাইল কেমন হবে, ক্লাসিক (classic) পুরনো ধাঁচের বাথরুম চান নাকি মডার্ন (modern) গ্যাজেটসহ (Gadget) বাথরুম চান এই ধরনের ব্যাপারগুলো সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিন। যদি রং নিয়ে কনফিউজড (confused) থাকেন তাহলে তার পরিবর্তে কাঁচের কোন কাজ করতে পারেন।

৩. বাথরুমের জিনিসগুলো সাজানোর ব্যবস্থা করুন

 

বাথরুমে যেসব জিনিস আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় সেগুলোকে সামনে রাখার ব্যবস্থা করুন। চাইলে ক্যাটাগরি (Category) ভাগ করে নিতে পারেন। যেমন প্রসাধনী জাতীয় জিনিসগুলো একসাথে, সাবান জাতীয় জিনিসগুলো একসাথে, টুথপেস্ট কিংবা মুখ পরিস্কার করার জিনিসগুলো একসাথে এভাবে। তবে এগুলো কোথায় রাখবেন সেটা একান্ত আপনার নিজস্ব চয়েস (choice)-এর উপর নির্ভর করে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন রাখার পর জিনিসগুলো যাতে দৃষ্টিকটু না লাগে এবং হাতের কাছেই পাওয়া যায়।

৪. ছোটখাট জিনিস কিনে সাজান

 

আপনার পছন্দের থিম অনুযায়ী বাথরুমে ছোটখাট জিনিস কিনে যোগ করতে পারেন। যেমন সাবান রাখার জন্য একটু সুদৃশ্য সাবান কেইস (Case), সুগন্ধীর বাক্স, পারফিউম (perfume)-এর বোতল, রঙিন টাওয়েল ইত্যাদি। এগুলো যেমন বাথরুম-এর সৌন্দর্য্য বর্ধন করবে তেমনি ব্যবহার উপযোগী হিসেবে বেশ কাজের। এছাড়াও বাথরুমে নতুন ম্যাট (Mate), আয়না ইত্যাদিও যোগ করতে পারেন।

৫. বাথরুম সুসজ্জিত রাখতে ম্যাচিং জিনিস রাখুন  

 

বাথরুম সাজানোর সময় যে জিনিসটা সবচাইতে বেশি মনে রাখে জরুরী সেটা হচ্ছে ম্যাচিং (Matching)। আপনার বাথরুমে জিনিসগুলো দেখতে যাতে বাজে না দেখায়। চেষ্টা করবেন মনোরম এবং গুছিয়ে রাখার। সেই সাথে বাথরুমের পরিবেশের সাথে জিনিসগুলো কতটুকু যাচ্ছে সেদিকে লক্ষ্য রাখা জরুরি।

৬. বাথরুম সুসজ্জিত রাখতে মনোরম আলোর ব্যবস্থা করুন   

 

আপনার বাথরুমে যেই জিনিসটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ সেটি হচ্ছে আলো। যেহেতু বাইরের আলো আনার ব্যবস্থা খুব কম থাকে সেই ক্ষেত্রে কৃত্রিম আলো ব্যবহার করে বাথরুম সাজাতে পারেন। তবে আলো যাতে বেশি উজ্জ্বল বা চোখে লাগার মতো না হয়। ধরুন আপনি খুব ক্লান্ত হয়ে শাওয়ার (Shower) নিতে ঢুকলেন বাথরুমে, আর অত্যাধিক উজ্জ্বল আলো আপনার মাথাব্যথা ধরিয়ে দিলো তাহলে ব্যাপারটি মোটেও সুখকর হবে না। সুতরাং হালকা এবং নরম আলো ব্যবহার করতে পারেন।

৭. সুগন্ধি এবং হালকা মিউজিকের ব্যবস্থা রাখতে পারেন

বাথরুমে সুগন্ধি ও মিউজিকের ব্যবস্থা - shajgoj.com

এই দুইটি জিনিস থাকতেই হবে এমন কোন কথা কিন্তু নেই। তবে আপনি চাইলে বাথরুমে সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন। এতে বাথরুমের ভেতরে বাতাস ফ্রেশ (Fresh) থাকবে, কারণ বাথরুমে ঢোকার পর যে কোন ধরনের বাজে গন্ধ আপনার বিরক্তির উদ্রেক করতে পারে। এছাড়া হালকা মিউজিক (Music)-এর ব্যবস্থা রাখতে পারেন যদি সম্ভব হয়। কারণ, বাথটাব (Bathtub)-এ শুয়ে ঠান্ডা পানিতে গোসল করার সময় যদি হালকা মিউজিক কানে বাজে তাহলে গোসলটা আরো উপভোগ্য হতে পারে।

এভাবেই হাতের কাছে থাকা জিনিসগুলো দিয়ে আপনি আপনার বাথরুমকে সাজিয়ে নিতে পারেন। এতে নিজের মধ্যে যেমন তৃপ্তি আসবে তেমনি বাসায় কেউ আসলেও আপনার বাথরুম দেখে আনন্দিত হবে।

 

ছবি- সংগৃহীত: ইমেজেসবাজার. কম

8 I like it
3 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...