লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল | ৭টি ব্যবহারে পাবেন সুস্থ ত্বক ও চুল! লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল | ৭টি ব্যবহারে পাবেন সুস্থ ত্বক ও চুল!

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল | ৭টি ব্যবহারে পাবেন সুস্থ ত্বক ও চুল!

লিখেছেন - নিগার বর্ষা জানুয়ারী ২৪, ২০১৯

ত্বক ও চুলের যত্নের জন্য কতকিছুই না ব্যবহার করা হয়। কিন্তু অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করেছেন কখনও? অ্যাসেনশিয়াল অয়েল নামটি শুনে অনেকে ভ্রু কুঁচকে ফেলেন? ভাবছেন অ্যাসেনশিয়াল অয়েল এটা ত্বকের ও চুলের কী কাজে লাগবে? কিন্তু ত্বক পরিষ্কার করা থেকে শুরু করে বয়সের ছাপ রোধ, ত্বকের নমনীয়তা ধরে রাখা, চুলের প্রবলেমসহ ত্বকের ও চুলের অনেকগুলো সমস্যা সমাধান করে থাকে অ্যাসেনশিয়াল অয়েল। আবার অনেকে অ্যাসেনশিয়াল অয়েলের নাম শুনেছেন কিন্তু এর ব্যবহার সম্পর্কে জানেন না। বাজার ঘুরলে অনেক ধরনের অ্যাসেনশিয়াল অয়েলের দেখা মিলবে। এর মধ্যে পরিচিত এবং জনপ্রিয় একটি অ্যাসেনশিয়াল অয়েল হলো লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল।

 

কী এই লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল?

লেমনগ্রাস ঘাস জাতীয় একটি হার্ব। যা সাধারণত রান্নায় এবং হারবাল ওষুধে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল সাইট্রিস ফ্লেভারের একটি পাওয়ারফুল অ্যাসেনশিয়াল অয়েল। সাধারণত সুগন্ধি এবং সাবান তৈরিতে এই অ্যাসেনশিয়াল অয়েলটি ব্যবহার করা হয়। এটি কিন্তু লেবু জাতীয় কোন হার্ব নয়। লেবুর মত গন্ধ পাওয়া যাওয়ার কারণে এই হার্বের নাম লেমনগ্রাস।

অরিজিনাল লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল বাংলাদেশেই পাবেন। স্কিন ক্যাফে-এর ১০০% অরিজিনাল লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল পাবেন শপ.সাজগোজ.কম-এর যমুনা ফিউচার পার্ক ও সীমান্ত স্কয়ার-এ অবস্থিত ফিজিক্যাল শপ দু’টো এবং তাদের অনলাইন ওয়েবসাইটে পাবেন মাত্র ৪০০/-টাকায়।

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল - shajgoj.com

কেন ব্যবহার করবেন লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল?

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েলে রয়েছে অ্যান্টি-ফাঙ্গাল, অ্যান্টিসেপটিক, অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান যা ত্বকের নানান সমস্যা সমাধান করে থাকে। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকে ইস্টের গ্রোথ রোধ করে। এটি পেশির ব্যথা রোধ, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, ত্বক এবং স্বাস্থ্যের নানান সমস্যা দূর করে থাকে।

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল যেভাবে ব্যবহার করবেন

১. ত্বকের তেলতেলেভাব দূর করতে

লেমনগ্রাস ওয়েল ত্বকের তেলতেলেভাব দূর করে ত্বকের ওয়েল কন্ট্রোল করে থাকে। এটি আপনি ফেসিয়াল টোনার হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

যেভাবে ফেসিয়াল টোনার তৈরি করবেন-

১/২ কাপ পানি এর সাথে এক চা চামচ হ্যাজেল অ্যাসেনশিয়াল অয়েল  এবং ৩ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল  একসাথে মিশিয়ে নিন। এরপর মিশ্রণটি সম্পূর্ণ ত্বকে স্প্রে করুন।  এটি শুকিয়ে গেলে ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে ভুলবেন না যেন।

হ্যাজেল অ্যাসেনশিয়াল অয়েল - shajgoj.com

২. দূর করবে ত্বকের ব্রণ

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ত্বকের ব্যাকটেরিয়ার সাথে লড়াই করে ত্বক রাখে ব্রণমুক্ত। এটি দিয়ে আপনি তৈরি করে নিতে পারেন অ্যান্টি-অ্যাকনি ফেইস মাস্ক।

যেভাবে তৈরি করবেন অ্যান্টি-অ্যাকনি ফেইস মাস্ক-

একটি পাত্রে ১ টেবিলচামচ ওটমিল নিন। এরসাথে ২ চা চামচ মধু এবং ১ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল  মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি পরিষ্কার ত্বকে ব্যবহার করুন। ৭-১০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ওটমিল ও লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল এর প্যাক - shajgoj.com

৩. ব্ল্যাকহেডস দূর করবে

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ত্বক থেকে ব্ল্যাকহেডস দূর করতে সাহায্য করে। লেমনগ্রাস স্ক্রাব ত্বকের পোরস বন্ধ করে থাকে।

যেভাবে তৈরি করবেন স্ক্রাব-

একটি পাত্রে ২ চা চামচ বেকিং সোডা, ১ চা চামচ মধু এবং ২ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ম্যাসাজ করে ত্বকে ব্যবহার করুন।  ৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন। ১০ মিনিট পর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই স্ক্রাব-টি সপ্তাহে ১-২ বার ব্যবহার করতে পারেন।

ব্ল্যাকহেডস দূর করতে বেকিং সোডা, মধু ও লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল প্যাক ব্যবহার - shajgoj.com

৪. সেলুলাইট হ্রাস করা

হাত পায়ের ভাঁজে কিংবা পেটের নিচের অংশ অনেকের সেলুলাইট দেখা দেয়। নিয়মিত লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল  ম্যাসাজ করে ত্বক থেকে এই সেলুলাইট দূর করতে পারবেন।

যেভাবে তৈরি করবেন স্ক্রাব-

একটি পাত্রে এক কাপ চিনির গুঁড়ো, ১/৪ কাপ অলিভ অয়েল এবং ৭ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল একসাথে মিশিয়ে নিন। এই স্ক্রাব-টি সেলুলাইট-এর উপর ম্যাসাজ করুন ৫-৭ মিনিট। একদিন পর পর ১ টেবিল চামচ স্ক্রাব সেলুলাইট-এর স্থানে ম্যাসাজ করুন।

চিনির গুঁড়ো, অলিভ অয়েল ও লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল প্যাক - shajgoj.com

৫. চুল মজবুত করে

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল-এ অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান মাথার তালুর ফাঙ্গাস দূর করতে সাহায্য করে। এটি চুলের ফলিকলস-কে মজবুত করে।

যেভাবে তৈরি করবেন লেমনগ্রাস ম্যাসাজ অয়েল-

৩ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল, ৩ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি মাথায় ম্যাসাজ করুন। একটি কুসুম গরম পানিতে টাওয়েল ভিজিয়ে নিন। টাওয়েলটি দিয়ে চুল পেঁচিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি আপনার চুলের গোড়া মজবুত করতে সাহায্য করবে।

লেমনগ্রাস ম্যাসাজ অয়েল - shajgoj.com

৬. ত্বকের ফোলাভাব দূর

ত্বকের ফোলাভাব দূর করে লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল - shajgoj.com

ত্বকের ফোলাভাব বিশেষ করে পায়ের ফোলাভাব দূর করতে সাহায্য করে লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল। কুসুম গরম পানিতে ৭ ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল  এবং ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এই পানিতে পা ডুবিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। এই পানি গোসলেও ব্যবহার করতে পারেন।

৭. খুশকিকে রাখবে দূরে

লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহারে খুশকিমুক্ত চুল - shajgoj.com

খুশকির যন্ত্রণায় জীবন শেষ? এই যন্ত্রণার হাত থেকে লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল করবে রক্ষা। এর অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদান  ইস্টের সাথে লড়াই করে চুলকে রাখে খুশকিমুক্ত। আপনার শ্যাম্পুর বোতলে কয়েক ফোঁটা লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল দিয়ে দিন। এবার বোতলটি ভালো ঝাঁকিয়ে নিন। এই শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করুন। শ্যাম্পু করার সময় মাথার তালুতে সামান্য জ্বালাপোড়া হতে পারে।

এইতো জেনে নিলেন ৭টি উপায়ে লেমনগ্রাস অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহারের কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য। আশা করি কাজে দেবে। ভালো থাকুন।

 

ছবি- সাজগোজ; সংগৃহীত: ইমেজেসবাজার.কম