দাঁত দিয়ে নখ কাটা | অস্বাস্থ্যকর বদভ্যাসটির কারণ ও বন্ধ করার ৭টি টিপস দাঁত দিয়ে নখ কাটা | অস্বাস্থ্যকর বদভ্যাসটির কারণ ও বন্ধ করার ৭টি টিপস

দাঁত দিয়ে নখ কাটা | অস্বাস্থ্যকর বদভ্যাসটির কারণ ও বন্ধ করার ৭টি টিপস

লিখেছেন - নাইমা আক্তার এপ্রিল ২৭, ২০১৯

আপনি যখনই স্ট্রেসড ফিল করেন বা কোন চিন্তায় ডুবে যান তখনই কি নিজের অজান্তেই দাঁত দিয়ে নখ কাটার মত বিরক্তিকর এবং খুবই অস্বাস্থ্যকর এই কাজটি করে থাকেন? যদি হ্যা হয়, তাহলে এই লেখাটি আপনার জন্যই। আপনি হয়তো জানেন যে, এই দাঁত দিয়ে নখ কাটা ও এই ব্যাপারটি শুধু যে বিরক্তিকর একটি বদভ্যাস তা-ই নয়, এটি আপনার স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর। এই কাজটি করার জন্য আপনার মারাত্মক রোগ হতে পারে। কারণ, কাজ করার জন্য হাত আমাদের প্রধান অঙ্গ আর বিভিন্ন কাজের সময় বিভিন্ন ধরনের রোগ-জীবাণু, ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ইত্যাদি আমাদের শরীরে প্রবেশ করতে পারে দাঁত দিয়ে নখ কাটলে।

হাত ভালোভাবে ধুয়ে ফেললেও অনেক সময় নখের আনাচে-কানাচে বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকর জীবাণু লুকিয়ে থাকতে পারে। আর সেই হাত থেকে মুখে এবং মুখ থেকে শরীরে জীবাণু প্রবেশ করতে পারে। তাই এই বদভ্যাসটি-ই হতে পারে আপনার মারাত্মক কোন রোগের কারণ। যাই হোক, কীভাবে আপনি এই বিরক্তিকর বদভ্যাস থেকে মুক্তি পাবেন, চলুন তাহলে দেখে নেয়া যাক!

দাঁত দিয়ে নখ কাটা কেন খারাপ?

১) বদভ্যাস নখের সুন্দর শেইপ আসে যদি নেইল কাটার দিয়ে সুন্দরভাবে নখ কাটা হয়। আপনি যদি দাঁত দিয়ে নখ কাটেন তবে এতে আপনার নখ তার স্বাভাবিক আকার হারিয়ে ফেলে এতে নখের সৌন্দর্য নষ্ট হয়।

২) দাঁত দিয়ে নখ কাটলে আপনার মুখের হাসিও হারিয়ে যেতে পারে। কারণ, দাঁত দিয়ে নখ কামড়ানোর কারণে আপনার চোয়ালের পাশাপাশি আপনার দাঁতও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এমনকি অনেক সময় দাঁত ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে।

৩) এটা আপনার বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে সহায়তা করতে পারে। কারণ, আপনার হাত জীবাণুর আখড়া ছাড়া আর কিছুই নয়। এই জীবাণু পুরোপুরি আপনার নখে লুকানো থাকতে পারে। যখন আপনি আপনার নখ কামড়াবেন তখন এই জীবাণু আপনার শরীরে প্রবেশ করবে এবং আপনার অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বাড়াবে।

৪) এই বদভ্যাসটি আপনাকে সামাজিকভাবেও বিব্রতকর অবস্থায় ফেলতে পারে। অন্যদের উপস্থিতিতে নখ কামড়ানো একটি বাজে অভ্যাস এবং এটি সামাজিক আচরণ লঙ্ঘন করে।

৫) এই বদভ্যাসটি নখের ক্ষতি ছাড়াও নখের আশেপাশের টিস্যুর ক্ষতি করতে পারে। এছাড়াও এটি নখ ঠিক মতো বৃদ্ধি পাওয়ার হারও কমিয়ে দিতে পারে।

উপরে উল্লিখিত কারণগুলো ছাড়াও, দাঁত দিয়ে নখ কাটার কারণে দাঁতের মাড়ির ক্ষতি হতে পারে, ওরাল ইনফেকশন, ওরাল ড্যামেজ ইত্যাদি হতে পারে। এমনকি নখের আঘাতের কারণে মুখে ইনফেকশন হয়ে যেতে পারে।

নখ কামড়ানোর পেছনে কী কী কারণ থাকতে পারে?

নখ কামড়ানোর অভ্যাস কিছু অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্য সমস্যার লক্ষণ হতে পারে। অস্থায়ী নখ কামড়ানো খুব একটি সমস্যার সৃষ্টি করে না কিন্তু এটা যদি দীর্ঘমেয়াদী হয়ে যায় তবে সেটা অবশ্যই চিন্তার বিষয়।

অবিরত দাঁত দিয়ে নখ কাটা নখের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায় এবং এতে নখের পার্শ্ববর্তী চামড়াগুলো ড্যামেজ হয়ে যাওয়া একটি গ্রুমিং ডিজর্ডার (grooming disorder)। একে বলা হয় অনিকোফেইজিয়া (onychophagia)

নখ কামড়ানোর বিভিন্ন সম্ভাব্য কারণ-

(১) প্রভাবিত ব্যক্তির বাবা বা মায়েরও এই অভ্যাসটি ছিলো বা আছে।

(২) ইমোশনাল বা মানসিক চাপ

(৩) নার্ভাসনেস

(৪) উদ্বেগ

(৫) বিরক্তি

(৬) ক্ষুধা

(৭) নিরাপত্তাহীনতা

শিশুদের মধ্যে, দাঁত দিয়ে নখ কাটার ব্যাপারটি বেশি লক্ষ্য করা যায় যখন তারা উদ্বেগ বা বিরক্তিতে ভোগে। কিছু শিশু ঝোঁকের বশেও এই কাজটি করে থাকে।

আপনি দেখেছেন, দাঁত দিয়ে নখ কাটার অনেক কারণ হতে পারে। তবে আপনি যদি বুঝতে পারেন যে এটি সত্যিই একটি খারাপ অভ্যাস এবং এতে আপনার নখ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তাহলে এর অন্তর্নিহিত কারণ সনাক্ত করতে চিকিৎসকের সাহায্য নিতে পারেন অথবা নিজেই চেষ্টা করতে পারেন এই বদভ্যাস থেকে মুক্তি পাবার।

দাঁত দিয়ে নখ কাটা বন্ধ করতে কিছু টিপস

১. আপনার নখ সবসময় ছোট রাখুন

আপনার নখ সবসময় ছোট করে কেটে রাখা এবং পরিষ্কার রাখা দাঁত দিয়ে নখ কাটা বন্ধের একটি ভালো উপায় হতে পারে। যখন আপনার হাতে কামড়ানোর মত নখই থাকবে না তখন এই বদভ্যাস ও আপনাআপনি দূর হয়ে যাবে।

২. নিয়মিত আপনার ম্যানিকিউর চালিয়ে যান

নিজের হাত ও নখগুলোকে সবসময় যত্নে রাখুন ম্যানিকিউর-এর মাধ্যমে। ম্যানিকিউর শুধু হাতের সৌন্দর্যই বাড়িয়ে তোলে না, এমন কী এটি আপনার নখগুলোকেও সুন্দর ও চকচকে রাখে। আর নখ সুন্দর থাকলেতো দাঁত দিয়ে নখ কাটার কোন প্রশ্নই আসে না, তাই না?

৩. নখ কামড়ানোর পেছনে মূল কারণটি খুঁজে বের করুন

 

আপনি কখন দাঁত দিয়ে নখ কামড়ান? যখন বোরিং ফিল করেন? যখন বিরক্ত থাকেন? নাকি যখন অন্যমনস্ক হয়ে কিছু ভাবেন? অথবা যখন উদ্বিগ্ন থাকেন তখন? আসলে কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দাঁত দিয়ে নখ কাটে যখন তারা বোরিং ফিল করে, ক্ষুধার্ত থাকে, স্ট্রেস ফিল করে এবং নার্ভাস থাকে। তাই এই বদভ্যাসটি দূর করার জন্য আপনি আসলে নখ কামড়ানোর পেছনে আসল ট্রিগার-টি খুঁজে বের করুন তাহলে এই বাজে অভ্যাসটি দূর করতে তেমন কোন কষ্ট হবে না।

৪. হাতে গ্লাভস বা নখে স্টিকার ব্যবহার করুন

এটা শুনতে একটু অদ্ভূত শোনালেও পদ্ধতিটা কিন্তু বেশ কার্যকরী। কারণ, নখে স্টিকার ব্যবহার করলে বা হাতে গ্লাভস পরিধান করলে আপনি নিজেকে নখ কামড়ানো থেকে বিরত রাখতে পারবেন।

৫. হাত-মুখ ব্যস্ত রাখুন

আপনার হাত ও মুখকে ব্যস্ত রাখুন প্রায় সবসময়। আপনি নখ কামড়ানোর অভ্যাস থেকে নিজেকে মুক্ত করতে মুখে চুইংগাম নিয়ে সারাক্ষণ চিবুতে পারেন এবং হাতে কাজ না থাকলে একটি বল বা যে কোন কিছু নিয়ে হাতকে ব্যস্ত রাখতে পারেন। এভাবে এক সপ্তাহ নিজেকে ব্যস্ত রেখে অভ্যাসটি দূর করতে পারেন।

৬. তিক্ত স্বাদের নেইল পলিশ ব্যবহার

তেতো স্বাদের নেইল পলিশ-এর ব্যবহার খুব ভালো একটি পদ্ধতি আপনাকে নখ কামড়ানো থেকে বিরত রাখার জন্য। এতে আপনার নখগুলোও সুন্দর লাগবে দেখতে আর আপনিও নিজেকে সংযত রাখতে পারবেন।

৭. ধীরে ধীরে চেষ্টা করুন

আপনি চাইলেই রাতারাতি নখ কামড়ানোর মত এতদিনের অভ্যাস চাইলেই পাল্টাতে পারবেন না। এর জন্য দরকার হবে প্রচুর ধৈর্য এবং ইচ্ছা শক্তি। প্রথমে আপনি নিজেকে বোঝান যে, আজ থেকে আপনি আর আপনার বুড়ো আঙ্গুলের নখ কামড়াবেন না। তারপর যখন এটা অভ্যাস হয়ে যাবে তখন তর্জনী, তারপর মধ্যমা, এভাবে চেষ্টা করলে আশা করা যায় আপনার এই অভ্যাস দূর হবেই হবে।

 

দাঁত দিয়ে নখ কাটা বন্ধ করার জন্য আপনি উপরে উল্লিখিত যে কোন একটি টিপস অনুসরণ করে দেখতে পারেন। তবে এই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাসটি দূর করার জন্য অবশ্যই মনে থাকতে হবে প্রবল ইচ্ছা ও অসীম ধৈর্য।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ; ইমেজেসবাজার.কম