আপনার অবসর কাটুক সাচ্ছন্দে! - Shajgoj

আপনার অবসর কাটুক সাচ্ছন্দে!

leisure time

কাজের সময় তো ব্যস্তই থাকা হয়। ব্যস্ত সময়ে আবার কেউ বিরক্ত করলেও মেজাজ বিগড়ে যায় অনেকের। তাই কাজের সময়ে কারো অন্য কিছু নিয়ে হস্তক্ষেপ করা উচিতও নয়। অন্যদিকে নিজের কাজের সময়ে অন্যান্য সব ব্যাপার নিয়ে ভাবতে গেলেও গোলমাল হয়ে যাবে। অল্প সময়ে এতো সব চিন্তা করে চলাও মুশকিল। ব্যস্ত সময়ে অন্যদের এমনকি নিজেকেও একটু সময় দেয়া হয়ে উঠে না অনেকের,তারপরও সময় তো দিতেই হয়।

[picture]

তাই সারা দিনে কাজের বাইরের ভাবনাগুলো নিয়ে সময় কাটাতে হলে অবসরেই উপায় বের করতে হয়।

  • সপ্তাহের ছুটির দিনগুলো বাদেও প্রতিদিন কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। আর প্রতিদিন প্রায় একই রকম কাটে। তাই এর মাঝেই সময় বের করে নিন নিজের জন্য।
  • প্রতিদিন কাজে থাকলেও ঘরে ফিরে ফ্রেশ হয়ে পরিবারকে সময় দিতে অনেকেই ভুলে যান। তাই মাঝে মাঝে পুরো পরিবার নিয়ে ঘুরতে যেতে না পারলেও একসাথে দেখে নিন কোন মুভি। সেটা হতে পারে কমেডি বা পরিবারের সবার দেখার মতো।
  • ঘরের দৈনন্দিন কাজে পরিবারের সাথে থাকতে না পারলেও সময় দিতে পারেন কেনাকাটায়। পরিবারের সবাইকে তাদের পছন্দ মতো কিছু কিনে দিন। অথবা তাদের সাথে করে নিয়ে যান। হয়তো আপনার এতে নিজেরো ভালো লাগবে।
  • পরিবারে বাচ্চারা থাকলে তাদের সময় দিন। দেখবেন বাড়তি সময়গুলো এমনিই কেটে যাবে।
  • অবসরে নিজের যত্ন নিন। মনে রাখবেন, আপনি ভালো থাকলেই আপনার পরিবারও দুশ্চিন্তামুক্ত থাকবে।
  • সাপ্তাহিক ছুটিগুলোতে বন্ধুদের নিয়ে কোথাও ঘুরে আসুন। ছোট খাটো রিফ্রেসমেন্ট হয়ে যাবে আপনার।
  • অবসরে গাছ লাগানো সবচেয়ে ভালো একটা কাজ। তাই গাছ লাগান। বিভিন্ন ঋতুর ফুলের গাছ লাগাতে পারে। ছাদে বা বারান্দায় বিভিন্ন ফুলের গাছ লাগাতে পারেন। গাছের পরিচর্যার দিকে সময় দিন।
  • লেখা-লিখির অভ্যাস থাকলে অবসরে লিখুন। অনেক কথা নিজের মধ্যে জমে থাকে। সেসব লিখলে নিজের মধ্যে স্বস্থিবোধ আসবে।
  • ২-৩ দিনের ছুটিতে ঘরে বসে না থেকে দূরে কোথাও ঘুরে আসুন। বন্ধুদের অথবা পরিবার নিয়ে ঘুরে আসুন। পরিবার,বন্ধুদের নিয়ে তো পুরনো অনেক স্মৃতিই থাকে, নতুন করে আরো বানালে ক্ষতি কি!
  • অনেক সময় কিছুই ভালো লাগে না সারাদিন। তাই মন ভালো করতে একটু জোরে সাউন্ড দিয়ে গান শুনুন। অথবা নিজের পছন্দের গানগুলো গাইতে পারেন।
  • শুধু কি বাইরে গেলেই সাজগোজ হবে! মাঝে মাঝে ঘরেই সাজবেন। নিজেকে দেখে মন ভালো হয়ে যাবে।
  • প্রতিদিনের একঘেয়েমি দূরে সরিয়ে রাখুন গল্পের বই পড়ে। বই পড়ে শেষ করতে খুব বেশি সময় না লাগলেও বই-এর ভালো লাগার রেশটা কিন্তু অনেক সময় ধরেই থেকে যায়।
  • নিজের ঘরটা নিজেই গুছিয়ে রাখুন। সম্ভব হলে মাঝে মাঝে ঘরের আসবাবপত্রের জায়গা বদল করুন। এতে আপনার ঘরের কাজের উপর একটা চেইঞ্জ আসবে। তবে সেটা যেন দৃষ্টিকটু না হয়।
  • বাসায় ফিরার পথে টুকটাক জিনিস কিনে আনুন। যেমন- নাস্তার খাবার, ঘর সাজানোর ছোটখাটো জিনিস, নুতুন-পুরনো দু’একটা গল্পের বই এইসব।
  • ছুটির দিনে ঘরের বারতি কাজগুলো করে ফেলুন। যেমন-অনেক বেশি পুরনো কাপড়গুলো কাউকে দান করে দিন অথবা যাকাতের জন্য রেখে দিন। বাড়তি আসবাবপত্র সরিয়ে ফেলুন। পুরনো কাগজপত্র বিক্রি করে ফেলুন। এতে আপনার ঘর দেখতেও হালকা লাগবে।

অন্তত অবসর সময়টা ভালো না কাটলে কাটখোট্টা আর একঘেয়েমি হয়ে যায় জীবনটা। তাই নিজের মতো করেই সাজিয়ে নিন আপনার অবসর।

লিখেছেন – সোহানা মোরশেদ

ছবি – ইনদিসটাইম.কম

0 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...