জেনে নিন, ওয়েডিং ফটোগ্রাফির এপিঠ-ওপিঠ - Shajgoj

জেনে নিন, ওয়েডিং ফটোগ্রাফির এপিঠ-ওপিঠ

wedding photography

ওয়েডিং ফটোগ্রাফি আজকাল বিয়ের বাজারে সবচেয়ে জরুরী জিনিষগুলির মাঝে একটি। উচ্চবিত্তদের জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠান তো বটেই, মধ্যবিত্তের বিয়েও এখন এই বিশেষ ছবি তোলার আয়োজন ছাড়া যেন জমে না। সামনেই বিয়েশাদি করে নতুন জীবনে পা রাখতে চলেছেন তো ওয়েডিং ফটোগ্রাফির এপিঠ-ওপিঠ একটু বুঝে রাখুন, কাজে দেবে।

ছবি তোলায় হাত ভালো তেমন জানাশোনা মানুষ থেকে থাকলে তাকে আগেভাগেই বাগিয়ে রাখুন। স্বস্তি আর সুবিধা সবটাই বেশি পাবেন। আবার ডিএসএলআর থাকা মানেই কেউ একজন যে ফটোগ্রাফার হয়ে গেলো, তাও তো নয়, খেয়াল রাখুন সেদিকে। আপনি ফটোগ্রাফার চাচ্ছেন, ক্যামেরাওয়ালা যেকোন লোককে না!

বাঙ্গালী বিয়ের সাধারণত তিনটা ভিন্ন ভিন্ন অনুষ্ঠান হয়েই থাকে। গায়ে হলুদ, বিয়ের মূল পর্ব আর সবার শেষ দিনে বৌ ভাত। প্রতিটা দিনের জন্যই প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার চাই নাকি কেবল বিয়ের দিন, তা সিদ্ধান্ত নিন আগে। যাকে ঠিক করতে যাচ্ছেন ফটোগ্রাফার হিসেবে, তার কাজ সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। ফেসবুক পেইজে ফটোগ্রাফারদের অন্যান্য কাজের নমুনা থাকে, তো পেইজে ঢুঁ মারুন কাজ দেখতে। আবার কোন প্রতিষ্ঠানের নাম জেনে তাদের কাজ দিলেও ওখানকার যে ফটোগ্রাফার আপনার অনুষ্ঠানে ছবি তুলবে তার সাথে কথা বলে নিন।

শুধু প্রফেশনাল ফটোগ্রাফারের জন্যই ক্যামেরা-রেডি থাকবেন, পোজ দেবেন, সেটা কিন্তু একদম ভুল হবে। বিয়ের পুরোটা সময়জুড়ে কাছের-দূরের বন্ধুবান্ধব আর অন্যান্য মানুষদের হাতে বহু ছবি উঠবে, তার মাঝেই অসাধারণ কিছু ছবি পাবেন। তাই ক্যামেরা হাতে যে কাউকেই হেলাফেলার নজরে দেখবেন না যেনো!

wedding photography 4

নিপুণ নির্দেশনায় তোলা হাজার ছবির ভীড়ে হুট করে তোলা অপ্রস্তুত কিন্তু স্বতঃস্ফূর্ত কিছু ছবি বেড়িয়ে আসবে, যা আরো অনেক দামী হয়ে থাকবে। বিয়ের অনেক এমন ন্যাচারাল মোমেন্টের খোঁজ মিলবে অপেশাদার আলোকচিত্রীদের সংগ্রহেই। কাজেই তাদের সুযোগ করে দিন ছবি তোলার।

ছোট ছোট সব নিয়মকানুন, রীতিনীতি যা বিয়েতে পালন করা হয়, সব কয়টা মুহূর্ত যত্নে ধরে রাখুন। তখন হয়তো ফটোগ্রাফার গ্রুপ ফটো তুলতে ব্যাস্ত, এদিকে কোন একটা রীতি পালিত হচ্ছে। সময় যা যাবে তা তো আর ফিরে আসবে না, তাই খেয়াল রাখুন আপনার এই সময়টা ছবিবন্দী হচ্ছে কিনা। এমন অনেক মুহূর্ত বাদ পড়ে যেতে পারে আপনার স্মৃতির অ্যালবাম থেকে, তা হতে দেবেন না। পরে আফসোস না হয়!

wedding photography collage 1

বেশি রঙঢঙ অপছন্দ হলে খুব জেনেশুনে ফটোগ্রাফার ঠিক করুন। আজকাল অতিরিক্ত নাটকীয়তার চর্চা করতে গিয়ে ওয়েডিং ফটোগ্রাফি পুরো ড্রামাটিক ব্যাপার হয়ে গেছে। এসবের মধ্যে স্বতঃস্ফূর্ত ছবি তোলায় ভালো হাত রয়েছে তেমন ফটোগ্রাফার খুঁজে পাওয়া অসুবিধা হতে পারে। বিয়ের আসরে দেখা গেলো ফটোগ্রাফার বলে চলেছে, একজন আরেকজনের দিকে খুব রোমান্টিক চোখে তাকান তো! আর আপনি ফটোগ্রাফারের দিকেই জ্বলন্ত চোখে তাকিয়ে আছেন! কী বাজে ব্যাপার হবে, ভাবুন দেখি?

আপনার বিশেষ দিনটির প্রতিটা বিশেষ মুহূর্ত খুব যতনে তোলা থাকুক স্মৃতির পাতায়। ছবির দল যেনো বহু বছর বাদেও এই সময়টার মুগ্ধতা নিয়ে আসে নতুন করে।

ছবি- ফটোগ্রাফারস.ক্যানভেরা.কম, ওয়েডিংবেল.কম, ৫০০ পিএক্স.কম

লিখেছেন – মুমতাহীনা মাহবুব

2 I like it
1 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...