ভ্যালেন্টাইন’স ডে গিফট আইডিয়া - Shajgoj ভ্যালেন্টাইন’স ডে গিফট আইডিয়া - Shajgoj

ভ্যালেন্টাইন’স ডে গিফট আইডিয়া

ফেব্রুয়ারী ১১, ২০১৫

২০১৫ এর ভ্যালেন্টাইন’স ডে চলে আসছে আর ক’দিন বাদেই। কতশত প্ল্যান-প্রোগ্রাম, কত জল্পনা-কল্পনা করতে করতে শেষে প্রিয়জনের উপহার কিনতেই ভুলে গেলেন! হতেই তো পারে এমন, তাই না? এমন পরিস্থিতি যদি ঘটেই যায়, তাহলে তার জন্যেও রয়েছে কিছু সমাধান। চলুন দেখে নিই শেষ মুহূর্তে আপনার ভ্যালেন্টাইনকে চমকে দিতে আপনি নিজেই কী করে তৈরি করে নিতে পারেন কিছু চমৎকার উপহার।

০১। কাস্টমাইজড কোস্টারঃ

5

পছন্দমত কাগজের স্টেন্সিল কেটে নিয়ে কোস্টারের উপরটেপ দিয়ে আটকে নিন। এরপর খালি জায়গাগুলো পছন্দসই রঙে রাঙিয়ে তুলুন। রঙ শুকোলে স্টেন্সিলগুলো খুলে ফেলুন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল সুন্দর ডিজাইনের কোস্টার!

০২। ক্লে হার্টসঃ

4

বাজার থেকে মডেলিং ক্লে কিনে এনে প্রথমে রুটি বেলার বেলন দিয়ে বেলে নিতে হবে গোল করে। এরপর হার্ট শেইপের কুকি কাটার দিয়ে কেটে নিতে হবে। এবার হার্টের উপর কিছু লিখতে চাইলে লেটার ডায়াস দিয়ে চাপ দিতে হবে। লেটার ডায়াস ব্লকের ডায়াসের দোকান থেকে বানিয়ে নেয়া যাবে। অথবা অন্য কোন নকশা চাইলে দড়ি বা লেসের রিবন দিয়ে চাপ দিলেও নকশা তৈরি হবে। চাইলে কাঠি দিয়ে উপরে একটা ছিদ্র তৈরি করে নিতে পারেন, যদি রিবন বা রশি বাঁধতে চান। এরপর ওভেনে ২৭৫ ডিগ্রি ফারেনহাইটে ১৫ মিনিট বেক করে নিতে হবে। ঠান্ডা হলে ক্লে হার্টটিকে রঙ করে নিলেই হয়ে গেল!

০৩। ডোর হ্যাংগিংঃ

3

প্রথমে তার দিয়ে একটি গোলাকার স্ট্রাকচার বানিয়ে নিতে হবে। এরপর সেটিকে পছন্দসই ভেলভেটের রিবন দিয়ে মুড়িয়ে দিতে হবে। এবার সেই রিবনটির ওপর অন্য আরেকটি রঙের রিবন দিয়ে মুড়িয়ে দিন। সবশেষে ফোম বা কাগজে বিভিন্ন নকশার হার্ট বানিয়ে মালার উপর লাগিয়ে দিন আঠা দিয়ে। ব্যস হয়ে গেল ডোর হ্যাঙ্গিং। এবার দরজায় পেরেক ঠেকে তাতে ঝুলিয়ে দিলেই এর সৌন্দর্য ফুটে উঠবে।

০৪। জার গিফট বক্সঃ

2

বাড়িতে জ্যাম-জেলির সাথে বিভিন্ন সাইজের সুন্দর সুন্দর জার পাওয়া যায়। সেই জারগুলোকে একটু বুদ্ধি করে খুব সুন্দরভাবে সাজিয়ে দিলে কিন্তু গিফট বক্স হিসেবে দারুণ মানিয়ে যায়!
প্রথমের জারের গায়ের লেবেলটি তুলে ফেলুন। হাত দিয়ে উঠে না এলে ভিনেগার দিন, সহজেই উঠে আসবে। এবার জারটিকে চাইলে রঙ করে নিতে পারেন বা গ্লিটার মাখাতে পারেন। কিংবা রঙিন কাগজ দিয়ে সাজিয়েও নিতে পারেন। নেটে বিভিন্ন ধরনের কোটেশান লেখা লেভেল ট্যাগ পাওয়া যায়। ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে লাগিয়ে দিন জারের গায়ে ও মুখে। এরপর সুন্দর রিবন দিয়ে বেঁধে দিন। ভেতরে চাইলে মোমও দিতে পারেন। বেশ লাগবে দেখতে!

০৫। বাটন হার্ট কার্ডঃ

1

এটি তৈ্রী করা খুবই সহজ। প্রথমে একটি মডেল পেপারের উপর বেশ বড়সড় একটি হার্ট এঁকে নিন। তারপর হার্টের উপর আঠা লাগান। এবারে বিভিন্ন সাইজ ও রঙের বোতাম বসিয়ে দিন আঠার ওপর। এবারের কার্ডের চারপাশে ভেলভেটের রিবন আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিন। চমৎকার, কিউট একটি ভ্যালেন্টাইন কার্ড হয়ে গেল!

আইডিয়া হল তো? এবার তাহলে প্রিয়জনের মন ভালো করিয়ে দেয়ার পালা। আপনাকে ভালোবাসা দিবসে আগাম শুভেচ্ছা!

লিখেছেনঃ নুজহাত ফারহানা
প্র্যাক্টিক্যালি ফাংশনাল ডট কম অবলম্বনে