ঈদে নিজেকে সাজিয়ে তুলুন ভিন্ন রূপে! - Shajgoj

ঈদে নিজেকে সাজিয়ে তুলুন ভিন্ন রূপে!

13346860_484707028386295_5501803825830450192_n

[topbanner]

বিশেষ দিনের কথা মাথায় রেখে অনেকেই নিজের চিরচেনা ছবিটা পাল্টে নতুন রূপে সাজতে চায়। উৎসব পর্বে এমন রূপবদলের সাধ অনেকের হয়। আবার রূপবদল করতে গিয়ে বাড়তি ঝামেলা এড়িয়ে যাবার চিন্তাও মাথায় থাকে। ঝামেলা নিলেই ঝামেলা জানেন তো, একটু ভেবে দেখলেই পেয়ে যাবেন সহজ সব উপায়। একটা বিশেষ দিনে নিজেকে ভিন্ন রূপে তুলে ধরা যাবে কোন বাড়তি ঝামেলা ছাড়াই।

face-tipe (1)

কেশবিন্যাসে চেহারা পাল্টায়
চেহারায় খুব বড় বদল এনে দিতে চুলের ধরণ পাল্টে নেয়া যায়। সোজা কথায়, বদলে নিন কেশবিন্যাস। বিশেষ উপলক্ষ সামনে রেখে নিজেকে উপহার দিন একটি নতুন হেয়ারকাট। মুখের সাথে মিলে যায় এমন কোন নতুন কাট বাছাই করুন এবং সেই মতো কেটে নিন চুল। যদি শখের চুলে কাঁচি চালাতে আপত্তি থাকে, তবে চিন্তা করুন উৎসবের নিন নতুন কোন হেয়ারস্টাইল অনুসরণ করার।

সিঁথির দিক পাল্টে ফেলুন।চট করেই চেহারা পুরো অন্য রকম দেখাতে থাকবে তাতে। খোলা চুলে অভ্যস্ত হলে চুল বেঁধে রাখুন সেদিনটায়। বেণী চলতে পারে নানা রকম, বা খোঁপা করে নিতে পারেন।মোট কথা, সাধারণত যেমন থাকেন তার বাইরে পা বাড়ান। সেজন্যই  যদি আগে চুল বেঁধে রাখার অভ্যাস বেশি থাকে তবে উৎসবের সাজে ছেড়ে চুল খোলা রাখুন। তাতে নতুন রূপটা সহজেই ফুটবে।

বদল হবে পোশাকে
বদল আনা যায় পরনের কাপড়েও। যদি সালোয়ার কামিজ নিত্যদিনের পোশাক হয়, তবে সেদিন শাড়ি বেছে নিন। বেছে নেয়া যায় পাশ্চাত্য ঘরানার পোশাকও, যদি তা আপনার পছন্দ হয় এবং স্বস্তিতে পরতে পারেন। তেমনি শাড়ি পরুয়া হলে এবার কামিজ ঠিক করুন উৎসবের দিনের জন্য। লম্বা কামিজ, আনারকলি এসব পোশাক মানানসই হবে বিশেষ দিনে। জিন্স-শার্টে বেশিরভাগ সময় দিন পার করা হয় যাদের, তারা বরং গাউন, কামিজ, শাড়ি পরুন। বেশ বড়সড় সাজবদল হবে। নিত্যদিনের আপনাকে দেখা মানুষগুলোর চোখে আপনার পোশাক নিয়ে যে ছবিটা গেঁথে আছে, তারা বলে দেবে ভিন্ন ধরণের পোশাকে আপনাকে কেমন নতুন লাগছে।

[picture]

রংয়ে পরিচয়

থাকে না এমন মানুষ, যাদের কিছু নির্দিষ্ট রংয়ে দেখতে দেখতে সেসব রংয়ের  সাথেই তাদের পরিচয় জড়িয়ে যায়? আপনিও কি তেমন একজন? যেমন, নতুন কাপড় কিনতে গেলে চোখে কালো রং ছাড়া আর কোন রং পড়েই না আপনার, বা গোলাপি রংয়ের  কাপড়ে আলমারি ভরে যাবার পরেও আরো কেনা হয়। তাই যদি হন তবে এই নবরূপের আয়োজনে ওসব রং ভুলে যান। সচরাচর পরা হয় না যে রংগুলো তাদের বেছে নিন এবার। আপনাকে চিরচেনা রংয়ের  নামে নাম দিয়ে দেয়া মানুষেরা চমকে যাবে। বিষয়টা কিন্তু আপনার নতুন রূপের জন্য বেশ প্রভাবক।

makeup

সাজে আসবে নতুন ছোঁয়া
সাজসজ্জায় খানিক বদল আনতে পারেন। তা হতে পারে যেকোন কিছুতেই, লিপস্টিকের রং, কাজল বা আই লাইনারের ব্যবহার, চোখের পাতায় শ্যাডোর উপস্থিতি বা অনুপস্থিতি সবটা নিয়েই কাজ করা যায়। প্রিয় রংয়ের লিপস্টিক যেটা অনেক বেশি ব্যবহার করা হয়, সেটা বাদ দিন নতুন সাজে। হালকা রংয়ের লিপস্টিক দেয়ার অভ্যাস থাকলে চেষ্টা করুন সামান্য গাঢ় শেডের লিপস্টিক বেছে নিতে। সবসময় কাজল পরা হলে সেটা সেদিন তুলেই রাখুন। বরং আই লাইনারেই নতুন রূপ এঁকে নিন নিজের।

খেয়াল রাখা চাই, নতুন রূপে সাজাতে চলেছেন নিজেকে,নিজের সাজপোশাকের চিরায়ত ধারা ভেঙ্গে বের হবেন উৎসবের দিনটায়। ইচ্ছে মতন ভিন্নতা আনুন নিজের রূপে। কিন্তু মোটেই নিজের স্বস্তি জলাঞ্জলি দিয়ে নয়।

নিজেকে নবরূপে আবিষ্কার করার আনন্দ উৎসবের আমেজের সাথে মিলেমিশে বেড়ে যাক বহুগুণ।

মডেল – সানজিদা তন্বী
লিখেছেন –  মুমতাহীনা মাহবুব

1 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...