হিজাবিদের চুলের চিটচিটেভাব ও খুশকির সমস্যার সমাধান কী?

হিজাবিদের চুলের চিটচিটেভাব ও খুশকির সমস্যার সমাধান কী?

Untitled-1

চুলের সমস্যার কি কোনো শেষ আছে? বাইরের রোদ, ধুলাবালি, ময়লা আর জেনেটিক্যাল নানা কারণতো আছেই। আর তার উপর আমরা যারা হিজাব পরি, তাদেরতো গরমকাল আসলেই চুলের সমস্যা বেড়ে যায় আরও বহুগুণে। প্রতিনিয়ত হিজাব পরার ফলে স্বাভাবিকভাবেই মাথার স্ক্যাল্পের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। এতে করে, চুলের গোঁড়া ঘেমে তেল চিটচিটে ভাব দেখা দেয়া সহ ইচিং, খুশকির মত সমস্যাও বেড়ে যায়। তাই সবার জন্যেতো বটেই তবে, স্পেশালি যারা হিজাব পরেন তাদের জন্যে প্রয়োজন চুলের এক্সট্রা যত্ন। হিজাব পরেন এমন অনেকেই আমাদের কাছে প্রায়ই জানতে চান, কীভাবে চুলের যত্ন নিলে এবং কোন প্রোডাক্টগুলো ব্যবহার করলে খুশকিসহ চুলের এমন কমন কিছু সমস্যা থেকে সহজেই পরিত্রাণ পাওয়া যাবে। তাই আজকে আমরা জেনে নিবো, কী কী কারণে হিজাবিদের চুলে খুশকি বেড়ে যেতে পারে এবং এই সমস্যা সমাধানে কার্যকরী কিছু সমাধান। আর পাশাপাশি কথা বলবো, চুলের যত্নে আমার খুবই পছন্দের একটি শ্যাম্পু নিয়ে।

হিজাবিদের চুলে খুশকির উপদ্রব সাধারণত বেশী দেখা যায়! কিন্তু কেন?

যেকোনো সমস্যা শুরু হওয়ার আগেই যদি তা প্রতিহত করা যায়, এর চেয়ে ভালো সমাধান আর কি হতে পারে! তাই না? হিজাবিদের কিছু অসচেতনতা এবং লাইফস্টাইলে অসাবধানতার কারণেও কিন্তু দেখা দিতে পারে খুশকিসহ নানান হেয়ার প্রবলেম। তাই চলুন শুরুতেই জেনে নেয়া যাক, হিজাবিদের চুলে খুশকির উপদ্রব কেন বেশী দেখা যায় তা নিয়ে।

• টানা অনেকক্ষণ ধরে হিজাব পরে থাকলে

হিজাবিদের মধ্যে অনেকেই আছি যারা কোন রকম ব্রেক না দিয়ে সারাদিন লম্বা সময় ধরে হিজাব পরে থাকি। এর ফলে চুলে এবং চুলের গোঁড়ায় বাতাস স্বাভাবিকভাবে প্রবেশ করতে পারে না । তাই চুলের গোঁড়া তেল চিটচিটে হয়ে খুশকির সৃষ্টি হয়।

• তাড়াহুড়া করে চুল না শুকিয়েই হিজাব পরা হলে

কোথাও বের হওয়ার আগে শেষ মুহূর্তে তাড়াহুড়া করে গোসল করে হিজাব পরেই বের হয়ে যাওয়া আমাদের অনেকের একটি কমন অভ্যাস, যা চুলের জন্যে মারাত্মক ক্ষতিকর। ভেজা অবস্থায় কোনোভাবেই চুলে হিজাব পরবেন না।

• খুব টাইট করে চুল বাঁধা হলে

চুল খুলে যাওয়া বা বের হয়ে যাওয়ার ভয়ে আমরা অনেকেই খুব টাইট করে চুল বেঁধে রাখি। এতে চুলের গোঁড়া দ্রুত ঘেমে যায়। আর এই ঘাম থেকেই পরে খুশকির সৃষ্টি হয়।

• বাতাস প্রবেশে বাঁধা পায় এমন কাপড়ের হিজাব ব্যবহার করলে

হিজাবের কাপড় বাছাই করার সময় এমন কাপড় বেছে নিতে হবে যা আরামদায়ক এবং যা দিয়ে সহজেই মাথায় বাতাস প্রবেশ করতে পারে। বাতাস প্রবেশ না করার ফলে চুলের গোঁড়ায় ঘাম জমে খুশকি বেড়ে যায়।

• হিজাবের কাপড় ব্যবহারের সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না রাখলে

হিজাবের কাপড় নিয়মিত ভালোভাবে পরিষ্কার করা না হলে, এতে মাথার ত্বকের ব্যাকটেরিয়াঘটিত সংক্রমণ বেড়ে যায়। তাই কোনোভাবেই ময়লা হিজাব ব্যবহার করা যাবে না।

• সঠিক ভাবে হেয়ার কেয়ার করা না হলে

হিজাবিদের মধ্যে আমরা অনেকেই রেগুলার হেয়ার কেয়ারে প্রচণ্ড অনীহা করি। মনে করি, আমার চুলতো কেউ দেখছেই না। যত্ন নিয়ে আর কি হবে! অথচ হিজাবিদের সপ্তাহে অন্তত তিন থেকে চার দিন বা প্রয়োজন বুঝে নিয়মিত ভালো মানের শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে।

তাই, আমরা যারা হিজাব পরি আমাদের অবশ্যই চেষ্টা করতে হবে চুলের সুরক্ষার পাশাপাশি চুলকে খুশকিমুক্ত এবং অয়েল ফ্রি রাখতে উপরের কাজগুলো করা থেকে নিজেদের বিরত রাখা ।

চুলের প্রয়োজন বুঝে সঠিক প্রোডাক্ট সিলেক্ট করতে ভুলবেন না!

হিজাবিদের চুলের যত্নে সঠিক প্রোডাক্ট বাছাই করাও অত্যন্ত জরুরী। অনেকেই এখানে যে ভুলটি করেন, মার্কেট থেকে যাচাই না করেই একটি শ্যাম্পু কিনে ফেলেন। আগে পরে তেমন একটা ভাবেন না! অথচ, মার্কেটে এখন একেক সমস্যাকে টার্গেট করে পাওয়া যায় নানা ধরণের প্রোডাক্ট। চুলের যত্নেও এর ব্যতিক্রম নয়। আর যে সকল হিজাবি নারীরা চুলে খুশকি এবং তেলতেলে ভাব নিয়ে চিন্তিত, তারা নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন হেয়ার কেয়ার ব্র্যান্ড “ক্লিয়ার” এর ‘হিজাব পিওর অ্যান্টি ড্যানড্রাফ এন্ড অ্যান্টি লিম্প’ শ্যাম্পুটি। ভাবছেন কেন এটি সিলেক্ট করেছি? চলুন এখনই জেনে নেয়া যাক।

খুশকি এবং তেল চিটচিটে ভাব দুর করতে ‘হিজাব পিওর’ শ্যাম্পু কীভাবে কাজ করে?

১) ‘হিজাব পিওর অ্যান্টি ড্যানড্রাফ এন্ড অ্যান্টি লিম্প’ শ্যাম্পুতে থাকা সোডিয়াম ক্লোরাইড বা লবণ আমাদের মাথার স্ক্যাল্পের ডেডসেল বা মৃতকোষগুলো ক্লিন করতে দারুণ কার্যকরী।

২) আমাদের অনেকের মাথার স্ক্যাল্প ড্রাই হয়ে থাকে। এই শ্যাম্পুতে থাকা সোডিয়াম স্যালিসাইলেট, মাথার ত্বকের অতিরিক্ত শুষ্কতা এবং রুক্ষতার সল্যুশন দিতে হেল্প করে। এবং ময়েশ্চার লেভেল ঠিক রেখে মাথার স্ক্যাল্পকে হাইড্রেটেড রাখে।

৩) এছাড়াও ‘হিজাব পিওর অ্যান্টি ড্যানড্রাফ এন্ড অ্যান্টি লিম্প’ শ্যাম্পুতে রয়েছে মাইসেলার ওয়াটার ও মিন্ট। আরও রয়েছে শিয়া সিড অয়েল এবং সানফ্লাওয়ার অয়েল। যা আমাদের স্ক্যাল্পে জমে থাকা খুশকি দূর করার পাশাপাশি চুলকে রাখে হেলদি।

৪) আমার মনে হয়েছে প্রোটিনসমৃদ্ধ এই শ্যাম্পু আমার মাথার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রেখে চুলকে কোমল ও মসৃণ করতে অনেকটাই হেল্প করেছে।

৫) এবং যা না বললেই না, আমার কাছে মনে হয়েছে ‘হিজাব পিওর অ্যান্টি ড্যানড্রাফ এন্ড অ্যান্টি লিম্প’ শ্যাম্পু ব্যবহারের পর চুলে ন্যাচারাল ভলিউমও দিচ্ছে।

এইতো জেনে নিলাম, চুলের যত্নে এবং খুশকিমুক্ত চুল পেতে হিজাবিদের কোন বিষয়গুলোর প্রতি আরও একটু বেশি সচেতন হতে হবে। যাই হোক, বেশ কিছুদিন ধরেই আমার স্ক্যাল্পে খুব বেশি ইচিনেস ফিল হচ্ছিল। আর গরমকাল আসতে না আসতেই তার সাথে অ্যাড হয় তেলতেলে ভাব এবং খুশকির সমস্যাও। তখন-ই আমি “ক্লিয়ার” এর নিউট্রিয়াম টেনযুক্ত শ্যাম্পু ‘হিজাব পিওর অ্যান্টি ড্যানড্রাফ এন্ড অ্যান্টি লিম্প’ এর ব্যাপারে জানতে পারি। সত্যি বলতে, ব্যবহার করার আগে আমি আসলেও আশা করিনি এটি আমার এতটা উপকারে আসবে। তাই ভাবলাম আমার মত আরও অনেকের যাদের হিজাব পরার কারণে চুলে খুশকি এবং তেল চিটচিটে ভাব দেখা দেয় এবং যারা সল্যুশন খুঁজছেন, তাদের সাথে আমি আমার এক্সপেরিয়েন্স শেয়ার করে ফেলি। আশা করছি আজকের লিখাটি কিছুটা হলেও আপনাদের উপকারে আসবে।

বিউটি রিলেটেড যেকোনো সাজেশনের জন্য সাজগোজ সবসময়ই আছে আপনার পাশে। স্কিন ও হেয়ার কেয়ারের জন্য অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে চাইলে আপনারা সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ ভিজিট করতে পারেন, যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত। আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন, সুন্দর থাকবেন।

ছবি- সাজগোজ, সাটারস্টক

10 I like it
2 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...