স্লিপ অ্যাপনিয়া বা স্লিপিং ডিজঅর্ডার | কেন হয়, লক্ষণ ও চিকিৎসা

স্লিপ অ্যাপনিয়া বা স্লিপিং ডিজঅর্ডার | কেন হয়, লক্ষণ ও চিকিৎসা

Sleep 4

ঘুমের মধ্যে কিছু সময়ের জন্য শ্বাস প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে যাওয়া বা শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় এই সমস্যাকে বলা হয় স্লিপ অ্যাপনিয়া। এটি একটি সিরিয়াস স্লিপিং ডিজঅর্ডার। এর কারণে ঘুমের মধ্যে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। কিন্তু স্লিপ অ্যাপনিয়া বা স্লিপিং ডিজঅর্ডার সম্পর্কে বেশিরভাগ মানুষেরই ধারণা অনেক কম। এই রোগে ভুগলেও ভুক্তভোগী নিজেও অনেক সময় বুঝতে পারেন না তার আসলে সমস্যাটি কোথায়। তাই আসুন আজকে জেনে নেই এ বিষয়ে বিস্তারিত।

স্লিপ অ্যাপনিয়া বা স্লিপিং ডিজঅর্ডার কী?

কোনো ব্যক্তির যখন এ সমস্যা হয়, তখন সেই ব্যক্তি ঘুমানোর অল্প সময়ের মধ্যেই অনেক জোরে জোরে শ্বাস নিতে থাকেন। এভাবে শ্বাস নেওয়ার গতি ধীরে ধীরে বাড়তে থাকলে এক পর্যায়ে শ্বাস প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে যায়। কিছুক্ষণ বন্ধ থাকার পর তা আবার শুরু হয়। এই শ্বাস প্রশ্বাস এর ব্যাঘাতের সময়টুকুকে অ্যাপনিয়া বলা হয়।

স্লিপ অ্যাপনিয়া

স্লিপ অ্যাপনিয়ার প্রকারভেদ

স্লিপ অ্যাপনিয়া সাধারণত তিন ধরনের হয়ে থাকে। যেমনঃ

১। সেন্ট্রাল স্লিপ অ্যাপনিয়া
২। অবস্ট্রাকটিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া
৩। কমপ্লেক্স স্লিপ অ্যাপনিয়া

এদের মধ্যে সবচেয়ে কমন হল অবস্ট্রাক্টিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া।

কেন হয়

স্লিপ অ্যাপনিয়ার মূল কারণ ঘুমের ঘোরে বারবার শ্বাস প্রশ্বাস নিলে শরীর থেকে অনেক বেশি পরিমাণ কার্বন ডাই অক্সাইড বের হয়ে যায়। শরীরে কার্বন ডাই অক্সাইড এর পরিমাণ তুলনামূলক হারে কমে গেলে একজন মানুষের শরীরে থাকা সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেম শ্বাস প্রশ্বাস প্রক্রিয়া বন্ধ করে দেয়। অন্ততপক্ষে ১০ থেকে ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত শ্বাসক্রিয়া বন্ধ থাকে। এর ফলে শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যায় এবং কার্বন ডাই অক্সাইড এর লেভেলে সাম্যতা বজায় রাখার চেষ্টা করে। কিছুক্ষণ দম বন্ধ থাকার কারণে শরীরে কার্বন ডাই অক্সাইড লেভেল আবার বেড়ে গেলে তখন নার্ভাস সিস্টেম পুনরায় শ্বাস প্রশ্বাস প্রক্রিয়া চালু করে। একে সেন্ট্রাল স্লিপ অ্যাপনিয়া বলে।

নরমাল এয়ারওয়ে

আফিম জাতীয় ঘুমের ঔষধ সেবন, কনজেস্টিভ হার্ট ফেইলিওর এর রোগী, পর্বতারোহী বা অতি উচ্চ জায়গায় যারা থাকে তাদের সেন্ট্রাল স্লিপ অ্যাপনিয়া হতে পারে। আর যদি শ্বাস যন্ত্রের কোথাও বাঁধা সৃষ্টির কারণে ঘুমের ঘোরে শ্বাস প্রশ্বাসে বাধা হয়, তবে তাকে অবস্ট্রাক্টিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া বলে। আর এই দুই সমস্যা যদি এক সাথে দেখা দেয়, তবে তাকে কমপ্লেক্স স্লিপ অ্যাপনিয়া বলে।

কোন ক্ষেত্রে হতে পারে

  • টনসিল ফুলে গেলে
  • শ্বাসনালী ও গলার সংযোগস্থলের মাংস পেশী ফুলে গেলে (একে এডেনয়েড বলা হয়)
  • নাকের মাংসপেশি বড় হলে এবং নাকের হাড় বেড়ে গেলে
  • ওজন বেশি বা শরীরে মেদ বেশি রয়েছে এমন বয়স্ক মানুষ ও শিশুদের
  • অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় শ্বাসনালীর মাংস পেশী ফুলে গেলে এ সমস্যা হতে পারে

লক্ষণসমূহ

  • বার বার ঘুম ভেঙে যায় বা ঘুম ভাঙার পর অনেক টায়ার্ড লাগলে
  • কোনো প্রকার দুঃস্বপ্ন ছাড়া বা অকারণেই আতঙ্কিত অবস্থায় ঘুম ভাঙা
  • নাক ডাকা বা ঘুমের ঘোরে বাতাসের অভাবে ছটফট করা
  • ঘুমের মধ্যে মুখ হা করে নিঃশ্বাস নিতে হয় বা ঘুম ভাঙার পর মুখ ও গলা শুকনা লাগে
  • রাতে ভালো ঘুম না হওয়ার কারণে দিনের বেলা ঝিমুনি ভাব হয়
  • কাজে মনোযোগের অভাব এবং ঘন ঘন মাথা ব্যথা হওয়া
  • ইনসমনিয়া বা অনিয়মিত ঘুম
  • চিৎ হয়ে ঘুমালে এ সমস্যা আরো বেড়ে যায়

পজিটিভ এয়ারওয়ে প্রেসার মেশিন

চিকিৎসা

১) প্রথমেই স্লিপ অ্যাপনিয়া আছে কিনা বা থাকলেও কী কারণে হচ্ছে তা সঠিকভাবে নির্ণয় করতে হবে। পলিসমনোগ্রাফি বা স্লিপ স্টাডি করানোর মাধ্যমে সঠিকভাবে স্লিপ অ্যাপনিয়া নির্ণয় করা যায়। এই টেস্ট এর মাধ্যমে ঘুমের সময় ব্রেইন এক্টিভিটি, অক্সিজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইড লেভেল ছাড়াও অন্যান্য লক্ষণসমূহ মনিটর করা যায়।

২) স্লিপিং পিল, অ্যালকোহল, অ্যান্টি ডিপ্রেশন এর ঔষধ ইত্যাদি পরিহার করা উচিত। এসবই ঘুমের সময় শ্বাসতন্ত্রের পেশীকে বেশি রিল্যাক্স করে যার ফলে শ্বাসতন্ত্রের ক্রিয়াশক্তি লোপ পায়।

৩) ঘুমানোর সময় কন্টিনিউয়াস পজেটিভ এয়ারওয়ে প্রেশার (CPAP) মেশিন ব্যবহার করা যেতে পারে। এই মেশিনের সাহায্যে একটি প্লাস্টিক পাইপ ও ফেইস মাস্ক এর মাধ্যমে শ্বাসনালীতে নিরবচ্ছিন্নভাবে বাতাস প্রবেশ করানো হয়। যার ফলে শ্বাসনালীতে কোনো বাধা থাকলেও শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা হয় না।

৪) অপারেশনের মাধ্যমে শ্বাসনালীতে কোনো বাধা যেমন টনসিল বা এডেনয়েড থাকলে তা অপসারণ করা যায়। ঠিক একইভাবে নাকের বর্ধিত মাংসপেশী বা বাঁকা হাড়ও ঠিক করা যায়।

স্লিপ অ্যাপনিয়া হতে পারে এমন আশংকা বা উপরে উল্লেখিত লক্ষণগুলোর কোনোটি আপনার সাথে মিলে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

 

ছবিঃ সাটারস্টক

5 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...