রূপচর্চায় গোলাপ | স্নিগ্ধ, সতেজ ও উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার প্রাকৃতিক উপায়!

রূপচর্চায় গোলাপ | স্নিগ্ধ, সতেজ ও উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার প্রাকৃতিক উপায়!

1

গোলাপ মানেই স্নিগ্ধতা, গোলাপ মানেই সতেজতা! গোলাপের রং আর মিষ্টি সুবাস কার না ভালো লাগে! সৌন্দর্যচর্চায় এই ফুলটির যে আলাদা কদর আছে, সেটা আর নতুন করে বলার কিছু নেই। বিভিন্ন স্কিনকেয়ার প্রোডাক্টে ইনগ্রেডিয়েন্ট হিসাবে রোজ পেটাল বা গোলাপের পাপড়ি ইউজ করা হয়। স্নিগ্ধ, সতেজ ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে রোজ পেটাল ফেইস মাস্ক আর রোজ ওয়াটার দারুণ কার্যকরী। রূপচর্চায় গোলাপ এর ব্যবহার নিয়েই আজকের ফিচার।

সৌন্দর্যচর্চায় এই ফুলটির কদর এত বেশি কেন?

যুগ যুগ ধরেই রূপচর্চায় গোলাপ ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আসলে এই ফুলটির এমন কিছু ন্যাচারাল প্রোপারটিজ আছে, যা স্কিনকেয়ারে দারুণ বেনিফিট দেয়। চলুন দেখে নেই সেগুলো কী-

  • গোলাপে আছে ভিটামিন সি যা স্কিনের কোলাজেন প্রোডাকশন বুস্ট করে
  • এতে থাকা ন্যাচারাল এস্ট্রিঞ্জেন্ট (astringent) ত্বকের পি এইচ লেভেল ব্যালেন্স করতে হেল্প করে
  • পিগমেন্টেশন কমিয়ে স্কিনকে ন্যাচারালি ব্রাইট করে
  • এতে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্টস যা প্রিম্যাচিউর এজিং সাইনস প্রিভেন্ট করে
  • মাইল্ড এক্সফোলিয়েটর হিসাবে কাজ করে স্কিনের ডেড সেলস ক্লিন করে

রূপচর্চায় গোলাপ জল বা রোজ ওয়াটার

রোজ ওয়াটার যে কতভাবে ইউজ করা যেতে পারে সেটা আমরা অনেকেই জানি না। টোনার হিসাবে, ফেইস মিস্ট হিসাবে, ফেইস প্যাকের সাথে মিক্স করে, লিপ স্ক্রাবের সাথে- এমন আরও নানা রকম পারপাসে ব্যবহার করা যায় Skin Cafe 100% Natural Rose Water Face and Body Mist। আমি শিওর, আমার মতো অনেকেই আছেন যাদের এই প্রোডাক্টটি ছাড়া চলেই না! যারা ইউজ করেছেন বা করছেন, তারা তো জানেনই এই রোজ ওয়াটারটি কতটা বেনিফিসিয়াল। যারা এখনও ট্রাই করেননি, তাদের জন্য ছোট্ট করে রিভিউ শেয়ার করছি।

১) সাভারের বিখ্যাত গোলাপ গ্রাম থেকে বেস্ট কোয়ালিটির গোলাপ সংগ্রহ করে স্টিম ডিসটিলেশনের মাধ্যমে রোজ ওয়াটার প্রস্তুত করা হয়। এটা ১০০% পিওর ও ন্যাচারাল।

২) সব ধরনের স্কিনেই স্যুট করে। এতে কোনো আর্টিফিসিয়াল কালার বা হার্মফুল ক্যামিকেল নেই, তাই সেনসিটিভ স্কিনেও ব্যবহার করা যাবে।

৩) টোনিং এর জন্য ফেইস ওয়াশ দিয়ে স্কিন ভালোভাবে ক্লিন করে রোজ ওয়াটার স্প্রে করে নিতে পারেন। মেকআপ শুরুর আগে স্কিন প্রিপেয়ারের সময় রোজ ওয়াটার স্প্রে করে নিলে বেইজ মেকআপ ফ্ললেস দেখাবে।

৪) এসি তে লং টাইম ধরে থাকার কারণে বা আবহাওয়ার প্রভাবে স্কিন ডিহাইড্রেটেড ফিল হতে পারে। এক্ষেত্রে কুইক ফিক্স সল্যুশন হতে পারে রোজ ওয়াটার! জাস্ট একটু দূর থেকে ফেইসে স্প্রে করে নিন, নিমিষেই পাবেন ফ্রেশ ও হাইড্রেটেড লুক।

 

রোজ পেটাল পাউডার

গোলাপ জল নিয়ে তো জানা হলো, এবার আসি গোলাপের পাপড়ির ফেইস মাস্ক নিয়ে। সাপ্তাহিক স্কিনকেয়ারে অন্তত একদিন প্রাকৃতিক উপাদানের ফেইস মাস্ক বা প্যাক ব্যবহার করলে স্কিন হবে উজ্জ্বল ও কোমল। Rajkonna Rose Petal Powder আমার হলিগ্রেইল প্রোডাক্ট। ত্বকের ধরন অনুযায়ী রোজ পেটালের DIY ফেইস প্যাক বানিয়ে অ্যাপ্লাই করুন, ডিফারেন্সটা নিজেই বুঝতে পারবেন। আগে চলুন জেনে নেই রাজকন্যা রোজ পেটাল পাউডারের স্পেশালিটি কী।

  • এতে কোনো প্রিজারভেটিভ বা কালার অ্যাড করা হয় না
  • ১০০% ন্যাচারাল ও অরগানিক
  • সব ধরনের স্কিনেই ইজিলি স্যুট করবে

১) অয়েলি স্কিনের জন্য গোলাপের পাপড়ির ফেইস প্যাক

১ টেবিল চামচ রাজকন্যা রোজ পেটাল পাউডার, ১ টেবিল চামচ রোজ ওয়াটার ও হাফ চা চামচ মধু মিক্স করে স্মুথ পেস্ট বানিয়ে ফেইসে ও গলায় অ্যাপ্লাই করে নিন। ১০ মিনিট রেখে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে অন্তত একদিন এভাবে ফেইস প্যাক বানিয়ে ইউজ করুন। এতে স্কিনের এক্সেস অয়েলিনেস কন্ট্রোল হবে, সেই সাথে স্কিন ব্রাইট ও হেলদি হয়ে উঠবে অল্প কিছু দিনেই।

২) ড্রাই স্কিনের জন্য নারিশিং ফেইস প্যাক

১ টেবিল চামচ রাজকন্যা রোজ পেটাল পাউডার, ২ টেবিল চামচ দুধ ও ১ চা চামচ মধু মিক্স করে ফেইসে ও গলায় লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। এই ফেইস প্যাকটি স্কিনে ময়েশ্চার ও হাইড্রেশন প্রোভাইড করে, তাই সপ্তাহে অন্তত একদিন ব্যবহার করলে স্কিন হবে সফট ও স্মুথ।

৩) অ্যান্টি এজিং ফেইস প্যাক

পরিমাণমতো অ্যালোভেরা জেল, ১ টেবিল চামচ রাজকন্যা রোজ পেটাল পাউডার ও ১ চা চামচ টকদই মিশিয়ে ফেইসে অ্যাপ্লাই করুন। ১০ মিনিট পর পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে অন্তত একবার ব্যবহার করুন। রিংকেলস, ফাইন লাইনসের ভিজিবিলিটি কমে আসবে অনেকটাই।

৪) বডি স্ক্রাব হিসাবে

৪ টেবিল চামচ রাজকন্যা রোজ পেটাল পাউডার, ১ চা চামচ মধু ও সামান্য চিনি দিয়ে স্ক্রাব বানিয়ে নিন। আপনার স্কিন যদি ড্রাই হয় তাহলে কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল মিক্স করে নিন। গোসলের সময় সারা শরীরে ম্যাসাজ করুন এটি দিয়ে। এরপর ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে এক বা দুইবার এভাবে বডি স্ক্রাবিং করতে পারেন। এতে বডি পিগমেন্টেশন কমে আসবে, স্কিনটোন ব্রাইট হবে।

সতেজ ও উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার ন্যাচারাল সল্যুশন জেনে নিলেন তাহলে! এখন বুঝতে পারছেন নিশ্চয়ই যে রূপচর্চায় গোলাপ কতটা বেনিফিসিয়াল। রাজকন্যা ও স্কিন ক্যাফে দু’টোই আমার ফেবারিট ব্র্যান্ড। সাজগোজেই পেয়ে যাবেন এই প্রোডাক্টগুলো। অনলাইনে অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে পারেন শপ.সাজগোজ.কম থেকে অথবা সাজগোজের ৪টি শপ- যমুনা ফিউচার পার্ক, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার, উত্তরার পদ্মনগর (জমজম টাওয়ারের বিপরীতে) ও সীমান্ত সম্ভার থেকেও বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি।

 

ছবি- সাজগোজ, সাটারস্টক

1 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...