এক জোড়া মোহনীয় চাহনি - Shajgoj এক জোড়া মোহনীয় চাহনি - Shajgoj

এক জোড়া মোহনীয় চাহনি

ফেব্রুয়ারী ৬, ২০১৭

চোখ এমন একটা অঙ্গ, যা ছাড়া আমাদের জীবন অপরিপূর্ণ। এক জোড়া মোহনীয় চাহনি সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তুলে অনেকাংশে। এ জন্যেই তো চোখকে সাজিয়ে তুলতে আমাদের কতো তোরজোড়। কিন্তু ডার্ক সার্কেল আমাদের চোখের জন্যে এমন একটি সমস্যা, যা আমাদের চোখের সৌন্দর্য পুরোটাই নষ্ট করে দেয়।  চোখের পাতা এবং চোখের নিচে কালচে দাগ হয়ে যাওয়াকেই ডার্ক সার্কেল বলা হয়। এর কিছু কারণ তো রয়েছেই। অতিরিক্ত টেনশন, রাত জেগে থাকা বা বেশি রাত করে ঘুমতে যাওয়া, প্রতিদিনকার অনিয়ম ইত্যাদি দায়ী। আর এটি একবার হয়ে গেলে সহজে যেতে চায় না। তাই বলে ডার্ক সার্কেল নিয়ে ঘুরে বেড়াবেন? তা তো হতে পারে না।  তাই আজকে জানাবো, কীভাবে ডার্ক সার্কেল দূর করবেন।

কিছু কথা বলে রাখা ভালো, চোখেরে ত্বক বেশ সংবেদনশীল তাই কখনই সস্তা মেকাপ প্রোডাক্ট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকা উচিত। অনেক সময় সস্তা মেকাপ প্রোডাক্ট ব্যবহার করার কারণে ত্বক বার্ন হয়ে কালো হয়ে যায় সেই দাগ তোলা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে।  আজ প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে কীভাবে চোখের ডার্ক সার্কেল দূর করবেন তাই লেখার চেষ্টা করব। তবে এই আই সিরামের পাশাপাশি চোখের সৌন্দর্য দীর্ঘ সময়ের জন্য ধরে রাখতে চাইলে ভালো মানের কিছু আই ক্রিম ব্যবহার করার কথা বলব। আই ক্রিম চোখের ত্বকে ভেতর থেকে নারিশ করার মাধ্যমে বলি রেখাসহ কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে।

এবার আসা যাক আই সিরামটি তৈরির প্রক্রিয়ায়। প্রথমে দেখে নিই, কী কী উপাদান লাগছে-

  • শসার রস (শসার রস চোখের এড়িয়া ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।)
  • আলুর রস (আলুর রস চোখের ডার্ক সার্কেল রিমুভ করবে।)
  • অ্যালোভেরা জেল (অ্যালোভেরা জেল আমাদের আই এড়িয়া কুল এবং সুদিং ফিল দিবে)
  • ক্যাস্টর অয়েল (ক্যাস্টর অয়েল ব্লাড সার্কুলেশন বাড়িয়ে তোলে, যা ডার্ক সার্কেল দূর করতে হেল্প করে।)
  • ছোট ঢাকনাসহ কৌটো

প্রথমে শসা এবং আলু গ্রেট / ব্লেন্ড করে নিন এবং এর থেকে জুসটা ছেঁকে নিন। যেন প্রত্যেকটি ১ চা চামচ পরিমানে হয়। এবার একটি ছোট বাটিতে ১ চা চামচ শসার রস, ১ চা চামচ আলুর রস, হাফ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল, ১ চা চামচ অ্যালোভেরা জেল নিন। একটি চামচের সাহায্যে উপকরণগুলো ভালোভাবে মেশাতে থাকুন। যাতে অ্যালোভেরা জেল এবং ক্যাস্টর অয়েল খুব ভালোভাবে মিশে যায়। ২-৩ মিনিট ধরে ভালো করে মেশানোর ফলে মিশ্রণটি অনেকটা ঘন লিকুইডে পরিণত হবে। এবার এই মিশ্রণটি একটি ছোট কৌটাতে ঢেলে নিন। ব্যস, আপনার আই সিরাম প্রস্তুত।

ব্যবহারবিধি:

এই আই সিরামটি রাতের বেলা ব্যবহারে ভালো ফল পাওয়া যাবে। রাতে মুখ পরিষ্কারের পর, আপনার রিং ফিংগারে একটু আই সিরাম নিয়ে আপনার ডার্ক সার্কেল এর উপর লাগান এবং হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন ১-২ মিনিট। এর পর সারারাত রেখে দিন। এই আই সিরামটি প্রতিদিন রাতে ব্যবহার করতে হবে। তাহলেই ভালো ফল পাওয়া যাবে। এই সিরামে ব্যবহৃত বেশির ভাগ উপাদান পচনশীল তাই ১ সপ্তাহের মতো ভালো থাকবে। তাই  এতে ব্যবহৃত উপাদানগুলো পরিমাণে অল্প নেয়া হয়েছে। এক সপ্তাহ অন্তর অন্তর এই আই সিরামটি তৈরি করে নিন।

ছবি –  ল্যান্সকুইনপ্রোডাকশন 

লিখেছেন – জান্নাতুল মৌ