গরম গরম ফ্রেশ রূপচাঁদা ফ্রাই - Shajgoj গরম গরম ফ্রেশ রূপচাঁদা ফ্রাই - Shajgoj

গরম গরম ফ্রেশ রূপচাঁদা ফ্রাই

অগাস্ট ২১, ২০১৬

ফ্রেশ রূপচাঁদা ফ্রাই এর তুলনাই হয় না, অনেক মজা । তাই রূপচাঁদা হাতের কাছে পেলে একবার হলেও ফ্রেশ রূপচাঁদার ফ্রাই করে দেখুন। গরম ভাত বা পোলাও এর সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন । লবন একটু কম দিলে এই রূপচাঁদা ফ্রাই এমনি এমনি ও খাওয়া যায় ।  রান্নার সুবিধার্থে পুরো প্রণালী দেয়া হল।

উপকরণ

 

  • রূপচাঁদা মাছ ২ টা
  • আদা বাটা আধা চা চামচ
  • রসুন বাটা আধা চা চামচ
  • মরিচ গুড়া আধা চা চামচ
  • জিরা গুড়া আধা চা চামচ
  • হলুদ গুড়া সামান্য
  • গোল মরিচ গুড়া ১/৩ চা চামচ
  • চাট মসলা সামান্য ( না থাকলে নাই )
  • লেবুর রস ১ চা চামচ
  • লবন পরিমান মত
  • এবং ভাজার জন্য তেল ২-৩ টেবিল চামচ

প্রণালী

( ১ ) প্রথমে মাছ দুটো ভালো করে ধুয়ে মাছের উভয় পিঠে দুই তিন জায়গায় চাকু বা বটির সাহায্যে লম্বা করে ফেড়ে দিতে হবে । এতে মাছের ভিতরে মসলা ভালোভাবে ঢুকবে আর টেষ্ট ও ভালো হবে ।

( ২ ) এরপর মাছ দুটোতে লেবুর রস ও লবন মাখিয়ে ৫ মিনিট রেখে দিতে হবে ।

( ৩ ) এখন একটি বাটিতে আদা, রসুন, হলুদ, মরিচ,জিরা, চাট মসলা ও গোলমরিচ গুড়া নিয়ে ভাল ভাবে একসাথে মিশিয়ে নিয়ে মাছের গায়ে মসলা হাত দিয়ে ভালোভাবে ডলে ডলে মাখাতে হবে । এমন ভাবে মাছের গায়ে মসলা মাখাতে হবে যেন সব জায়গায় মসলা সমানভাবে লাগে ।

( ৪ ) তারপর মাছ দুটোকে কমপক্ষে ২০ মিনিটের জন্য ঢেকে রেখে দিতে হবে মসলা মাছের ভিতরে ঢুকার জন্য ।

( ৫ ) এবার চুলায় একটি প্যানে তেল দিয়ে গরম হবার জন্য অপেক্ষা করতে হবে । তেল গরম হলে চুলার আঁচ মাঝারি করে দিতে হবে ।

( ৬ ) এখন গরম তেলে মাছ ছেড়ে দিতে হবে । এক পিঠ ভাজা হলে তারপর উল্টে দিতে হবে । ঘন ঘন নাড়া চাড়া করার দরকার নেই , এতে মাছ ভেঙ্গে যেতে পারে । মাছের দুই পাশ বাদামী করে ভাজা হয়ে গেলে তেল থেকে তুলে কিচেন টিস্যুর উপর রেখে দিন বাড়তি তেল ঝরার জন্য ।

সংরক্ষন করতে চাইলে:
মসলা মাখানো মাছ প্লাষ্টিক বক্সে ভরে ডীপ ফ্রিজে রেখে দিন । যেদিন প্রয়োজন ২ ঘন্টা আগে ফ্রিজ থেকে বের করে বক্সের মুখ খুলে রেখে দিন । ঠান্ডা ছেড়ে গেলে গরম তেলে ভেজে পরিবেশন করুন । তবে যেকোন মাছ টাটকা খেতেই বেশি ভালো লাগে ।

ছবি ও রেসিপি –  আফরুজা শিল্পী