৮টি বিউটি প্রোডাক্টস সহজেই বানিয়ে ফেলুন বাড়িতে বসেই  ৮টি বিউটি প্রোডাক্টস সহজেই বানিয়ে ফেলুন বাড়িতে বসেই 

৮টি বিউটি প্রোডাক্টস সহজেই বানিয়ে ফেলুন বাড়িতে বসেই 

লিখেছেন - জান্নাতুল মৌ মে ২২, ২০১৯

প্রতিনিয়ত বাজারে নতুন নতুন ধরনের বিউটি এবং মেকআপ প্রোডাক্টস আসছে। আর আমরা বিউটি ও মেকআপ লাভার-রা তার উপরে ঝটপট ঝাপিয়ে পড়ছি। সেসব প্রোডাক্টগুলোর দামও কিন্তু কম না। তাই ফলাফল, আমাদের ওয়ালেট খালি! যদি বলি, আজ থেকে আপনি চাইলে ৮টি বিউটি প্রোডাক্টস বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারবেন এবং বেশ কিছু টাকাও সেইভ করতে পারবেন। তবে কেমন হয়? কিন্তু কিভাবে? চলুন জেনে নেই, ৮টি বিউটি প্রোডাক্টস কিভাবে আপনি বাড়িতেই বানিয়ে ফেলতে পারবেন এবং তা দোকানে কেনা প্রোডাক্টস-এর মতই কাজ করবে।

৮টি বিউটি প্রোডাক্টস বানান ঘরে বসেই

১. মেকআপ রিমুভার

মেকআপ করার পরে সেটা প্রোপারলি তোলাটা কিন্তু খুবই জরুরী। কারণ, মেকআপ ঠিকমতো না তুললে ফেইস-এ বিভিন্ন ধরনের প্রবলেম দেখা যাওয়া অস্বাভাবিক কিছু না। এজন্য আমরা অনেক দাম দিয়ে মাইসেলার ওয়াটার বা ক্লিনজিং বাম কিনে থাকি। চলুন, বাড়িতে কিভাবে মেকআপ রিমুভার বানিয়ে নেয়া যায় তা জেনে নেই।

একটি বোতলে কিছুটা বিশুদ্ধ পানি নিয়ে তাতে ২ চা চামচ কোকোনাট অয়েল এবং হাফ চা চামচ ক্লিয়ার ফেইস ওয়াশ নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। ব্যস, আপনার মেকআপ রিমুভার রেডি।

২. টোনার

স্কিন কেয়ার রুটিনের মধ্যে টোনারটা খুবই ইম্পরট্যান্ট।  সেই টোনার আমরা অনেক টাকা খরচ করে কিনে থাকি । চাইলে বাড়িতেই সহজে টোনার বানিয়ে নেয়া যায়।

রাইস ওয়াটার বা রোজ ওয়াটারের সাথে লেবুর রস, মিন্ট, শশার রস ইত্যাদি মিলিয়ে সহজেই টোনার বানিয়ে নিতে পারবেন। সব থেকে ভালো দিক হলো, বাড়িতে বানানো টোনার সম্পূর্ণ ন্যাচারাল এবং কেমিক্যাল ফ্রি হবে।

৩. লিপ স্ক্রাব

এখন বলতে গেলে আমরা সবাই লিকুইড লিপস্টিক-এর ফ্যান। তবে, ডেইলি লিকুইড লিপস্টিক ব্যবহার করার ফলে ঠোঁট ভীষণ ড্রাই হয়ে যায়। মরা চামড়া ওঠে। যার কারণে লিপ-টাকে স্ক্রাবিং করা খুবই জরুরী। বাজারের লিপ স্ক্রাবার-গুলো ভালোই এক্সপেনসিভ হয়। তার থেকে ভালো কম খরচে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলা।

অলিভ অয়েল বা কোকোনাট অয়েলের সাথে চিনি মিশিয়ে সহজেই লিপ স্ক্রাব বানাতে পারেন। চাইলে সাথে একটু মধুও যোগ করতে পারেন।

৪. শিট মাস্ক

আজকাল স্কিন কেয়ারে শিট মাস্ক বেশ ভালো জায়গা দখল করে নিয়েছে। মার্কেটে যে সব ভালো মানের শীট মাস্ক পাওয়া যায় তা যেহেতু একবারের বেশি ব্যবহার করা যায় না, তাই বলতে গেলে সেগুলো এক্সপেনসিভ-ই বটে! তাই বাড়িয়ে বানিয়ে নেয়াই ভালো। আর বাড়িতে বানালে কেমিক্যাল ফ্রিও হবে।

বাজারে আজকাল কমপ্রেসড শিট মাস্ক পাওয়া যায়। যেগুলো কম দামেই এক প্যাকেটে অনেকগুলো থাকে। সেইরকম এক প্যাকেট কিনে নিলে অনেকদিন ব্যবহার করতে পারবেন। একটি বাটিতে অ্যালোভেরা জেল, গ্রিন টি মিক্স করে নিন। চাইলে কোকোনাট মিল্ক দিয়েও করতে পারেন। এগুলো ভালোভাবে মিক্স করে নিয়ে একটি কমপ্রেসড শিট মাস্ক-এর মধ্যে চুবিয়ে নিন। এরপর মাস্কটি উঠিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। ব্যস!

৫. ড্রাই শ্যাম্পু

যাদের স্ক্যাল্প অয়েলি এবং প্রতিদিন শ্যাম্পু করার সময় পান না অথবা ড্রাই শ্যাম্পু বেশ কাজে দেয়, তবে এক বোতল ড্রাই শ্যাম্পু কিনতে গেলে আপনাদের বেশ ভালো টাকাই গুনতে হবে। আর বাড়িতে বানাতে গেলে লাগবে শুধু কোকো পাউডার এবং কর্ন ফ্লাওয়ার।

একটা বাটিতে ২ টেবিল চামচ কর্ন ফ্লাওয়ারের সাথে ২ টেবিল চামচ কোকো পাউডার মিশিয়ে নিন। ব্যস, আপনার ড্রাই শ্যাম্পু রেডি। চাইলে, বেবী পাউডারকেও ড্রাই শ্যাম্পু হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

৬. নেইল পলিশ

আমাদের কালেকশন-এ ডিফারেন্ট কালারের নেইল পলিশ তো থাকেই। কিন্তু যখন কোনো প্রোগ্রামে যাবেন, তখন দেখলেন, ড্রেসের কালারের সাথে ম্যাচিং নেইল পলিশ নেই আপনার কাছে। তখন কী করবেন?

একটি ক্লিয়ার নেইল পলিশ নিন এবং আপনার ড্রেসের কালারের আইশ্যাডো নিন। আইশ্যাডোটি ভালো করে গুঁড়ো করে নিন। এবার ক্লিয়ার নেইল পলিশের মধ্যে আইশ্যাডো ঢেলে নিন। একটা টুথপিক নেইল পলিশের ভেতরে ঢুকিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিলেই আপনার নেইল পলিশ তৈরি হয়ে গেল।

৭. বডি বাটার

স্কিনকে সফট এবং স্মুদ রাখতে বডি বাটারের কোনো তুলনাই নেই। বাজারের বডি বাটারগুলো যেহেতু বেশ এক্সপেনসিভ হয়, তাই বাড়িতেই বানাতে পারেন।

একটি হিট প্রুভ পাত্রে হাফ কাপ শিয়া বাটার, ৪ টেবিল চামচ কোকোনাট অয়েল এবং চার টেবিল চামচ বিস ওয়্যাক্স (Bees wax) নিয়ে মাইক্রোওয়েভ বা ডাবল বয়লারে গলিয়ে নিন। এরপর নামিয়ে এর মধ্যে পছন্দমত অ্যাসেনশিয়াল অয়েল মিক্স করুন। এবার একটি ঢাকনাওয়ালা কৌটায় মিশ্রণটি ঢেলে নিন। ঠান্ডা হয়ে গেলেই আপনার বডি বাটার রেডি।

৮. টিনটেড লিপ বাম

ঠোঁটের যত্নে লিপ বাম-তো ব্যবহার করা হয়ই। তার সাথে যদি হালকা একটু কালার ঠোঁটে যোগ হয়, তবে তো দেখতেও বেশ লাগে। চলুন তবে কেমিক্যাল ফ্রি লিপ বাম বাড়িতেই বানিয়ে ফেলি।

এজন্য, ৫০ মি.লি. বীটরুটের জুস লাগবে। বীটরুটের জুসটা একটা পাত্রে নিয়ে চুলায় জাল দিয়ে ঘন করে নিন। যাতে এক্সট্রা ওয়াটারি ভাবটা চলে যায়। এবার, এর মধ্যে ২ টেবিল চামচ ভ্যাসলিন যোগ করুন। ভ্যাসলিনটা গলে গেলে বীটরুটের সাথে ভালোভাবে মিলিয়ে নিন। পাত্রটি চুলা থেকে নামিয়ে নিন এবং একটি ছোট কৌটায় ঢেলে নিন। ব্যস, ঠান্ডা হলেই আপনার টিনটেড লিপবাম ব্যবহারের জন্য তৈরী।

এই তো জেনে নিলেন, কিভাবে বাড়িতে বসে সহজেই ৮টি বিউটি প্রোডাক্টস নিজেই বানিয়ে ফেলবেন এবং তা ব্যবহার করতে পারবেন। এগুলো কিন্তু কোনো অংশে দোকানের প্রোডাক্টগুলোর থেকে কম না। আশা করছি, আপনাদের অনেক বেশি হেল্প হবে।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ