গরমে কেমন হবে হিজাবিদের চুলের যত্ন? - Shajgoj

গরমে কেমন হবে হিজাবিদের চুলের যত্ন?

যারা মডেস্ট গেটআপ করেন, তারা বাইরে বের হলে হিজাবেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। কিন্তু গরমে দীর্ঘ সময় স্কার্ফ দিয়ে মাথা ঢেকে চুলের সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে অনেকেরই। কীভাবে সহজেই চুল ও স্ক্যাল্পের যত্ন নেওয়া যায়, এই প্রশ্ন কম বেশি সবার কাছ থেকেই পাওয়া যায়। ব্যস্ত লাইফে আমাদের চাই ইজি সল্যুশন। গরমে হিজাবিদের চুলের যত্ন কেমন হওয়া উচিত, সেটাই আজ আমরা জানবো।

কীভাবে হিজাবিদের চুলের যত্ন নিতে হবে?

হিজাবিদের চুলের যত্ন নেওয়া খুব একটা কঠিন নয়। কিছু বেসিক স্টেপ ফলো করেই হেলদি চুল পাওয়া সম্ভব হবে।

প্রয়োজন বুঝে শ্যাম্পু করুন

ডেইলি হেয়ার কেয়ার রুটিনে চুল ও মাথার ত্বক পরিষ্কার রাখাই মেইন স্টেপ। প্রতিদিন যদি আপনাকে বাইরে যেতে হয় এবং হিজাব পরিধান করে লং টাইম থাকতে হয়, তাহলে বাসায় ফিরে শ্যাম্পু করে নিন। এতে স্ক্যাল্প পরিষ্কার থাকবে। সেই সাথ ঘাম আর ময়লা জমে খুশকি হওয়ার চান্স থাকবে না।

কন্ডিশনার স্কিপ করা যাবে না

শ্যাম্পু করার পর চুলকে কন্ডিশনিং করা প্রয়োজন। মাথার তালু বাদে হেয়ার লেন্থে ভালোভাবে কন্ডিশনার অ্যাপ্লাই করে কিছুক্ষণ রাখুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

হিজাবিদের চুলের যত্ন

ভালোভাবে চুল শুকিয়ে নিতে হবে

অনেকে গোসলের পর চুল পুরোপুরি না ড্রাই করেই হিজাব পরেন, এটি করা যাবে না। চুল বাতাসে পুরোপুরিভাবে শুকিয়ে নিতে হবে। খুব তাড়াহুড়া থাকলে হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করতে পারেন।

খুব টাইট করে চুল বাঁধা যাবে না

হিজাবের নিচে চুল খুব টাইট করে বাঁধা যাবে না, এতে হেয়ার ফলিকল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার চান্স থাকে। চুল আঁটসাঁটভাবে না বেঁধে হালকা করে বেণী বা লুজ বান করে নিতে পারেন।

হোম মেইড হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে হবে

রেগুলার হিজাব পরে বাইরে গেলে এই গরমে অনেকেরই খুশকির সমস্যা বেড়ে যায়। তাই সাপ্তাহিক হেয়ার কেয়ার রুটিনে অ্যাড করতে পারেন হোমমেইড মাস্ক। মেহেদি, টকদই, লেবুর রস দিয়ে প্যাক বানিয়ে চুলে ও স্ক্যাল্পে অ্যাপ্লাই করতে পারেন। ৩০-৪০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

আশা করি বুঝতে পারছেন, হিজাবিদের চুলের যত্ন নেওয়া কিন্তু খুব কঠিন কিছু না! ছুটির দিনে কিংবা ফ্রি টাইমে নিজেকে কিছুটা সময় দিন। সেলফ কেয়ার করলে মনও কিন্তু ভালো থাকে। যেকোনো অথেনটিক মেকআপ, স্কিনকেয়ার ও হেয়ারকেয়ার প্রোডাক্টসের জন্য আমি সবসময়ই সাজগোজ এর উপর ভরসা রাখি। আপনারাও ভিজিট করুন সাজগোজের ওয়েবসাইট, অ্যাপ বা ফিজিক্যাল স্টোরে। সাজগোজের বেশ কয়েকটি ফিজিক্যাল শপ রয়েছে। এ শপগুলো যমুনা ফিউচার পার্ক, সীমান্ত সম্ভার, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার, ইস্টার্ন মল্লিকা, ওয়ারীর র‍্যাংকিন স্ট্রিট, বসুন্ধরা সিটি, উত্তরার পদ্মনগর (জমজম টাওয়ারের বিপরীতে), মিরপুরের কিংশুক টাওয়ারে ও চট্টগ্রামের খুলশি টাউন সেন্টারে অবস্থিত। এই শপগুলোর পাশাপাশি চাইলে অনলাইনে শপ.সাজগোজ.কম থেকেও কিনতে পারেন আপনার দরকারি বা পছন্দের সব প্রোডাক্টস।

লিখেছেনঃ মৌ মণি পুষ্প

ছবিঃ সাজগোজ

3 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...

escort bayan adapazarı Eskişehir bayan escort