নিমের ভেষজগুণে প্রাকৃতিকভাবেই ত্বক ও চুল হবে সুন্দর

নিমের ভেষজগুণে প্রাকৃতিকভাবেই ত্বক ও চুল হবে সুন্দর

1 (14)

নিম আমাদের কাছে সুপরিচিত এর ঔষধি গুণাবলির জন্য। নিম গাছের পাতা এবং ক্ষেত্র বিশেষে এর অন্যান্য অংশও অ্যান্টি সেপটিক, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও হিলিং প্রোপারটিজের জন্য বেশ জনপ্রিয়। এই সবুজ পাতার গাছটি ফ্যাটি অ্যাসিড, মিনারেল ও ভিটামিনের একটি চমৎকার উৎস হিসেবে কাজ করে; যা স্কিন ও হেয়ার প্রবলেমের সল্যুশন দেয় ঠিক ম্যাজিকের মতো। নিমের ভেষজগুণে প্রাকৃতিকভাবেই ত্বক ও চুল হবে সুন্দর, কিন্তু কীভাবে? চলুন জেনে নেই নিমের গুণাগুণ ও ব্যবহারবিধি নিয়ে।

নিমের বিউটি বেনিফিটস

চুল ও ত্বকের যত্নে নিমের ব্যবহার হয়ে আসছে যুগ যুগ ধরেই। নিমে আছে nimbidin, nimbolide ও azadirachtin, যেগুলোর অ্যামেজিং মেডিসিনাল প্রোপারটিজ ত্বক ও চুলের সমস্যা দূর করতে দারুণ কার্যকরী। এর পাতায় আছে এমন সব বেনিফিসিয়াল ইনগ্রেডিয়েন্টস যা আপনার বিউটি গেইমকে চেঞ্জ করে দেয়! তাহলে চলুন আজ আলোচনা করা যাক নিমের সেই উপকারী দিকগুলো নিয়ে যা দিয়ে আপনি পেতে পারেন গর্জিয়াস হেয়ার ও হেলদি স্কিন।

নিমের ভেষজগুণে ত্বক হবে সুন্দর

নিমের ভেষজগুণে সুন্দর ত্বক

১) একনে কন্ট্রোল করতে

এতে যে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রোপারটিজ আছে তা একনে সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে। তাই একনে ও বাম্পস কমে আসে। এছাড়াও এটি ত্বকে অতিরিক্ত তেল বা সেবাম প্রোডাকশনকে কমিয়ে আনে।

২) ইচিনেস ও রেডনেস কমাতে

নিমের যে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি গুণাগুণ আছে তা ত্বকের জ্বালাপোড়া কমিয়ে আনতে সাহায্য করে। স্কিন সেনসিটিভিটি কমানোর পাশাপাশি নিমের ব্যবহার ত্বকে বেশ সুদিং ও কুলিং ইফেক্ট দেয়। ইচিনেস ও রেডনেস রিডিউস করতে নিম পাতার জুড়ি নেই।

 

৩) বয়সের ছাপ কমাতে

এর সবুজ পাতায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, ময়েশ্চারাইজিং ট্রাই গ্লিসারাইডস ও ভিটামিন ই। এগুলো একসাথে চমৎকারভাবে অ্যান্টি এজিং বেনিফিটস দেয়। রিংকেলস, ফাইন লাইনস ও দাগছোপ কমায়, সেই সাথে স্কিনকে টোনড আপ করে তোলে।

বয়সের ছাপ

৪) ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডস দূর করতে

স্কিন কেয়ারে নিম পাতার যে কত ধরনের উপকারিতা আছে! বিশেষ করে ত্বককে ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডসমুক্ত রাখতে নিমের কার্যকারিতা অসাধারণ। নিম পাতা ত্বককে ডিপ ক্লিন করে। তাই ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডস কমে যায়, পাশাপাশি ওপেন পোরসের প্রবলেমও রিডিউস হয়।

স্কিন কেয়ারে নিম কীভাবে ব্যবহার করবেন?

১. একনে প্রন স্কিনের জন্য নিম পাতা সেদ্ধ পানি ন্যাচারাল টোনার হিসেবে কাজ করে। একটি স্প্রে বোতলে এই টোনার নিয়ে ফেইসে অ্যাপ্লাই করুন। এতে ব্রণ কমে যাবে এবং ব্রণের স্পটসও ফেইড হবে।

২. নিম পাউডার, মধু ও সামান্য হলুদ একসাথে মিশিয়ে সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করলে ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর হয় এবং ধীরে ধীরে ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল। ফেইস প্যাকটি ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

নিম ফেইস প্যাক

৩. নিম পাউডারের সাথে অ্যালোভেরা জেল ও টকদই মিশিয়ে ফেইস প্যাক তৈরি করুন। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই ফেইস প্যাক ত্বককে ময়েশ্চারাইজড ও হাইড্রেটেড রাখে। ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে এক বা দুইবার এই ফেইস প্যাকটি ইউজ করুন।

চুলের যত্নে নিম

১) ইচি স্ক্যাল্প থেকে মুক্তি পেতে

নিমের অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান স্ক্যাল্পের ড্যানড্রাফ ও ইচিনেসের সমস্যা সারাতে খুবই কার্যকর। নিয়মিত ব্যবহারে মাথার ত্বকের চুলকানি, জ্বালাপোড়া ও খুশকি দূর হয়। উকুনের উপদ্রব থাকলে সেটাও কমে আসে।

২) চুলের গ্রোথ বৃদ্ধি করতে

নিমে রয়েছে বিশেষ ধরনের রিজেনারেটিভ প্রোপারটিজ যা হেয়ার গ্রোথ বুস্ট করে। চুল পড়া কমাতে এবং নতুন চুল গজাতেও যথেষ্ট কার্যকরী এই নিম। তাই ঘন ও লম্বা চুল পেতে এই উপাদানটি আপনার উইকলি হেয়ার কেয়ারে যোগ করে নিন।

নিমের ভেষজগুণ

৩) প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং প্রিভেন্ট করতে

প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকার কারণে এটি ফ্রি রেডিক্যালস নিউট্রিলাইজ করে। যেসব ফ্রি রেডিক্যালসের কারণে মাথার চুল সাদা হতে থাকে, নিমে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সেগুলোকে প্রতিরোধ করে। তাই প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং প্রিভেন্ট করতে এটি দারুণ কার্যকরী।

৪) স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে

নিম পাউডারে আছে অ্যাসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড যা স্ক্যাল্পের হেলথ কন্ডিশন ইম্প্রুভ করে। এটি চুলের গোড়ায় নিউট্রিয়েন্টস প্রোভাইড করে। নিমের ভেষজগুণে চুল হয়ে ওঠে সুন্দর ও ঝলমলে।

হেয়ার কেয়ারে কীভাবে ব্যবহার করবেন?

১. এক থেকে দেড় লিটার পানিতে ৩০-৪০টা নিমপাতা সেদ্ধ করে পানি আলাদা করে রেখে দিন এবং সেই পানি দিয়ে স্ক্যাল্প ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুইবার এটি করলে খুশকিজনিত চুলকানি, জ্বালাপোড়া থেকে খুব দ্রুত রিলিফ পাবেন।

২. নিম পাউডার, টকদই, ডিম, হানি ও কয়েক ড্রপ লেমন জুস একসাথে মিশিয়ে স্মুথ পেস্ট বানিয়ে চুলে অ্যাপ্লাই করুন। ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে। এই হেয়ার প্যাকটি উইকলি একবার ব্যবহার করলেই চুলের রুক্ষতা, খুশকি এই প্রবলেমগুলো কমে আসবে।

নিম পাতার এত এত গুণাগুণ যখন জানলেন, তখন আজই খোঁজ নিয়ে দেখুন আপনার আশেআশে কোথায় নিম গাছ আছে! আর যদি না থাকে নিম পাউডার কিনে নিন। সাজগোজেই পেয়ে যাবেন পিওর নিম পাউডার। অনলাইনে অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে পারেন শপ.সাজগোজ.কম থেকে অথবা সাজগোজের ৪টি শপ- যমুনা ফিউচার পার্ক, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার, উত্তরার পদ্মনগর (জমজম টাওয়ারের বিপরীতে) ও সীমান্ত সম্ভার থেকেও বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি। ভালো থাকুন, সুন্দর থাকুন।

 

ছবি- সাজগোজ, সাটারস্টক

7 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...