ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা কার্ড - Shajgoj ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা কার্ড - Shajgoj

ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা কার্ড

জানুয়ারী ১৯, ২০১৫

২০১৫ সালের ভ্যালেন্টাইন’স ডে চলে আসছে। অনেকে হয়তো এবার মনের মানুষটিকে মনের কথাটি সাহস করে বলেই দেবেন। কিন্তু কীভাবে বলা যায় আসলে? চিঠিতে বলবেন? নাকি এক গুচ্ছ গোলাপ ধরিয়ে দেবেন হাতে নাকি এমন কোন উপহারের সাথে দুটো লাইন লিখে দেবেন, যে দেখেই এক বাক্যে হ্যাঁ বলে দেবে সে?

আসলে উপহার যাই দিন না কেন, হাতে তৈরি যেকোনো কিছুরই একটি আলাদা আকর্ষণ থাকে। অনেক যত্নে আর ভালোবাসায় বানানো একটি ক্ষুদ্র শুভেচ্ছা কার্ড দিয়েও তাই হতে পারে আপনার লাভ-লাইফের সূচনা! আজ খুব সহজ আর সাধারণ একটি মিনি কার্ড বানানোর কৌশল দেখাবো। ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা জানাতে আপনি নিজেই এটি তৈরি করে নিতে পারবেন। চলুন ধাপগুলো দেখে নিইঃ

০১। শুরুতে কার্ডটি বানানোর জন্য আমাদের যা যা লাগবে, তা যোগাড় করে নিতে হবে। আমাদের লাগবেঃ

1

-সাদা অ্যালবাম পেপার – ৮.৫” X ৫.৫” মাপের

-সাদা অফসেট কাগজ – এ ফোর সাইজ

-হালকা সবুজ হ্যান্ডমেইড টিস্যু পেপার – ৩” X ২” মাপের

-হালকা গোলাপি হ্যান্ডমেইড কাগজ – ৩” X ১” মাপের

-গোলাপি ও সবুজ কাগজ – প্রতিটি ৩” X ৩” মাপের

-পাখির স্টেন্সিল

-স্কেল

-কাঁচি

-জিগ জ্যাগ কাঁচি

-অ্যান্টি কাটার

-গ্লু স্টিক

-ম্যাজেন্টা গ্লিটার কলম

-পেন্সিল

-ডাব্‌ল সাইডেড ফোম টেপ

০২। সব যোগাড় হয়ে যাওয়ার পর প্রথমে অ্যালবাম পেপারটাকে মাঝ বরাবর ভাঁজ করে নিতে হবে কার্ডের মত করে। অ্যালবাম পেপার ছাড়াও যেকোনো মডেল পেপার বা আর্ট পেপার বা হ্যান্ডমেইড পেপার আপনি এখানে ব্যবহার করতে পারেন। আমি অ্যালবাম পেপার ব্যবহার করেছি, কারণ এর উপরের দিকটা চকচকে। সব ধরনের কাগজই নিউমার্কেটে মডার্ন স্টেশনারিতে কিনতে পাবেন।

2

এরপর উপরের দিকে পাখির স্টেন্সিলটাকে বসিয়ে পেন্সিল দিয়ে আউটলাইন এঁকে নিতে হবে। এই স্টেন্সিল কাগজে এঁকে কেটেও নিতে পারেন অথবা প্রিন্ট করে কেটেও নিতে পারেন।

০৩। এবারে নিচের ছবির মত করে আউটলাইন আঁকা জায়গাটি অ্যান্টি কাটার দিয়ে সুন্দর করে কেটে নিতে হবে।

3

তবে অ্যান্টি কাটারের তুলনায় ডিসেক্টিং নাইফ দিয়ে কাটতে বেশি সুবিধা হয়।

০৪। এবারে কেটে নেয়া স্টেন্সিলের মাপের চেয়ে খানিকটা বড় মাপে হ্যান্ডমেইড টিস্যু পেপারটিকে কেটে নিতে হবে ঠিক ছবির মত করে।

4

এতে পাখির আকৃতি একদম ঠিকঠাক হবে না, তবে তাতে কোন অসুবিধে নেই।

০৫। এখন হ্যান্ডমেইড টিস্যু কাগজের এই কাট-আউটটিকে কার্ডে কেটে রাখা জায়গাটির পেছনে গ্লু দিয়ে লাগিয়ে দিন।

5

এবারে কার্ডটি দেখতে ঠিক এই উপরের ছবিটির মত হবে।

০৬। এখন গোলাপি হ্যান্ডমেইড কাগজটিকে দুটো টুকরো করতে হবে। এরপর জিগ জ্যাগ কাঁচি দিয়ে সাইডগুলোকে কেটে নিতে হবে। এরপর গ্লিটার পেন দিয়ে যা খুশি লিখে দিতে পারেন কাগজের টুকরোগুলোর ওপর। আমি ম্যাজেন্টা গ্লিটার পেন ব্যবহার করেছি, আপনি আপনার পছন্দের যেকোনো রঙ ব্যবহার করতে পারেন।

6

এরপর টুকরোগুলোকে ছবির মত করে ডাব্‌ল সাইডেড ফোম টেপ দিয়ে আটকে দিতে পারেন। এই টেপ ব্যবহারের কারণে কাগজের ট্যাগদুটো একটু উঁচু হয়ে থাকবে, কার্ডে সেটি দেখতে খুব ভালো লাগে। আর এই টেপ পাওয়া যাবে মডার্ন স্টেশনারিতেই। জিগ জ্যাগ কাঁচি পাওয়া যাবে ধানমণ্ডি হকার্স মার্কেটের হলুদের ডালা-কুলোর দোকানগুলোতে।

০৭। এই পর্যায়ে বেঁচে যাওয়া টিস্যু কাগজটি দিয়ে দুটো হৃদয় বানিয়ে কার্ডের উপর বসিয়ে দিতে পারেন।

7

দেখতে ঠিক এমন হবে সেটি।

০৮। এবারে কার্ডের ভেতর দিক সাজানোর পালা। স্কয়ার করা সবুজ কাগজটি দিয়ে একটি অরিগ্যামি খাম তৈরি করুন। করে সেটিকে লাগিয়ে দিন কার্ডের ভেতরে। ভেতরে আরও একটি কাগজে লিখে দিন মনের খুশিমত দুটি লাইন।

kham

ইউটিউবে অরিগ্যামি খাম তৈরি করার অনেক টিউটোরিয়াল আছে। দেখে নিন বানানোর আগে।

০৯। এবারে সর্বশেষ ধাপ। সাদা অফসেট কাগজটি দিয়ে তৈরি করে ফেলুন কার্ডের খামটি। এর টিউটোরিয়ালও রয়েছে ইউটিউবেই। উপরে হালকা-পাতলা একটু সাজিয়ে কিছু লিখেও দিতে পারেন। তবে অফসেট কাগজের বদলে আরও শক্ত কাগজও ব্যবহার করতে পারেন।

8

হয়ে গেল ভালোবাসা দিবসের জন্য খাঁটি ভালোবাসায় তৈরি উপহার। ভালোবাসাময় হোক আপনার বাকি দিনগুলো। শুভ কামনা!

লেখা ও ছবিঃ নুজহাত ফারহানা