সম্পর্কের শুরু? ছোট্ট কিছু টিপস। - Shajgoj সম্পর্কের শুরু? ছোট্ট কিছু টিপস। - Shajgoj

সম্পর্কের শুরু? ছোট্ট কিছু টিপস।

মার্চ ৭, ২০১৫

জীবনে চলার পথে সঙ্গী কার না দরকার হয়? একটু ভালোবাসা, কিংবা একটু কেয়ার পাওয়ার জন্য একজন সঙ্গীর খুবই দরকার। সঙ্গীর দেখা যে আপনি বলে কয়ে পাবেন এটা ভাবার কোন কারণ নেই। যে কোন সময়েই দেখা হয়ে যেতে আপনার কাঙ্ক্ষিত মানুষটির সাথে এবং দুজনের সম্পর্কের শুরু থেকে যাতে সবকিছু ভালোমত ঘটে সেটা খেয়াল রাখা অত্যন্ত জরুরী।

তাই সম্পর্কের শুরু থেকে যেভাবে আপনার সঙ্গীর সাথে সম্পর্ক চালিয়ে যাবেন সেটা নিয়ে থাকছে ছোট্ট কিছু টিপস।

১. একজন আরেকজনকে ভালোভাবে জানুন।

সম্পর্কের শুরুতে সবার আগে জরুরী হচ্ছে একে অপরকে জানা। একে অপরের সম্পর্কে ভালো ধ্যান ধারণা রাখা। তার পছন্দ অপছন্দ, শখ, প্রিয় জিনিস ইত্যাদি। কারণ আপনি যখন তার চয়েসগুলো জানবেন, তখন সেদিকে লক্ষ্য রাখা আপনার জন্য সুবিধা হবে। আর সেই ক্ষেত্রে, তার অপ্রিয় এমন কিছু ঘটার সম্ভাবনা থাকবে না যা আপনাদের দুইজনের সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

২. একসঙ্গে সময় কাটান।

সম্পর্কের শুরু থেকে একে অপরকে সময় দেয়া জরুরী। একসঙ্গে যত বেশি সময় কাটাবেন, নিজেদের মধ্যে জড়তা বোধটা তত বেশি কমে যাবে। তাই আপনার সঙ্গীকে আপনার সাথে সময় কাটাতে অনুরোধ করুন। দুইজন মিলে বাইরে যান, মুভি দেখুন। কোথাও খেতে যান। নিশ্চিত করুন যে আপনাদের দুইজনের মাঝে বন্ধনটা শক্ত হচ্ছে। এতে সুবিধা হলো, নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়াটা বাড়বে।

৩. তবে খুব বেশি মিশবেন না!

শুরুতেই খুব বেশি মিশবেন না। সময় নিন। আস্তে আস্তে নিজেদের দূরত্ব কমিয়ে আনুন। কারণ শুরুতেই বেশি মিশলে আপনার সঙ্গী আপনার সাথে থাকার আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে পারে। তাই কিছু ব্যাপার খেয়াল রাখুন। প্রতিদিনই দেখা হতে হবে এমন চিন্তা বাদ দিন। কোন কারণে সে আপনার সাথে দেখা না করতে পারলে সেটা নিয়ে উত্তেজিত হবেন না, এই ধরণের ব্যাপার হতেই পারে। সে ব্যস্ত থাকতে পারে, পারিবারিক কোন সমস্যা থাকতে পারে। থাকলে সেগুলো নিয়ে আলাপ করুন।

৪. নিজেদের সময়টা আনন্দময় করে তুলুন।

যতক্ষণ তার সাথে আছেন, ততক্ষন নিজেদের সময়টা আনন্দে কাটানোর চেষ্টা করুন। মজার কিছু করুন। সে যা পারে তা শিখতে চেষ্টা করুন। কিংবা আপনি যা পারেন তা তাকে শেখান। দেখবেন দুইজনের মাঝে আগ্রহের জন্ম নিয়েছে। আর আগ্রহই সম্পর্ককে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

৫. নতুন নতুন ব্যাপারগুলো গ্রহণ করতে শিখুন।

আপনাদের দুইজনের সম্পর্ক যত গভীর হবে, নতুন নতুন ব্যাপার সামনে আসতে থাকবে। সেগুলো নিয়ে ভয় পাবেন না। নির্দ্বিধায় গ্রহণ করুন। এতে সম্পর্কের ভিত আরো শক্ত হবে। যদি কিছু গ্রহণ করতে আপনি অস্বস্তি বোধ করেন তাহলে লুকিয়ে না রেখে তার সাথে সেটা নিয়ে আলোচনা করুন। তাকে বোঝান যে সে আপনার জন্য কতটা জরুরী। যখন আপনি তাকে ব্যাপারগুলো খুলে বলা শুরু করবেন, সে ব্যাপারটার গুরুত্ব বুঝতে পারবে। এবং আপনার ক্ষেত্রেও সে সহনশীল হবে এবং আপনার ব্যাপার গুলো গ্রহণ করতে শিখবে।

৬. তার পরিবার ও বন্ধুদের সম্পর্কে জানুন।

সম্পর্কে আপনি শুধু তার ব্যাপারে জানলেই হবে তা কিন্তু না। তার পরিবার, বন্ধুবান্ধবদেরও জানার চেষ্টা করুন। তাদের সাথেও সময় কাটান। এমনকি নিজের বন্ধু বান্ধবদের সাথেও তাকে পরিচয় করিয়ে দিন। এতে উভয়ের মধ্যে গ্রহণযোগ্যতা বাড়বে। কারণ বন্ধু বান্ধবদের সাথে দূরত্ব থাকার ফলে অনেক সময় সম্পর্কে এ নিয়ে ঝামেলার সৃষ্টি হতে পারে। সেই ব্যাপারটি এড়ানোর জন্য নিজেদের কমিউনিটি একে অন্যের সাথে শেয়ার করুন।

সম্পর্কের শুরুতে এই ব্যাপারগুলো মাথায় রাখলে সবকিছু বেশ সুন্দরভাবেই চলবে। আর শুরু ভালো হলে, শেষটা ভালো হওয়ার আশা করাই যায়।

লিখেছেনঃ ফরহাদ রাকিব।

ছবিঃ ইমেজেসবাজার.কম