ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ৫টি উপায় জানেন কি?

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ৫টি উপায় জানেন কি?

ঘাড়ের কালো দাগ - shajgoj.com

সূর্যের ক্ষতিকর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি অথবা অবহেলার কারণে আমাদের অনেকের ঘাড়ে কালো দাগ পড়ে যায়। শরীরের অন্য সব অংশের যত্ন প্রতিদিন নেওয়া হলেও ঘাড়ের যত্ন খুব কমই নেওয়া হয়। কখনো কখনো পুরো ঘাড়ের রঙই কালো হয়ে যায় আর এর কারণে ইচ্ছেমতো চুল বাধা যায় না। পনি টেইল করলেও পেছন থেকে ঘাড়ের কালো অংশ দেখতে বিশ্রী দেখায়। তাই আজ আপনাদের জানাবো ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ৫টি উপায়। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিছু প্যাক দিয়ে ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার উপায়।

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার উপায়

১.  অ্যালোভেরা

আপনারা জানেন যে প্রায় সব ধরনের ত্বকের সমস্যার জন্য অ্যালোভেরা একটি গিফট! অ্যালোভেরা যখন ঘাড়ে ইউজ করা হয়, তখন কেবল একটি প্রাকৃতিক স্কিন লাইটার-এর মতই এটি কাজ করে না, সাথে সাথে ত্বকের গঠনও উন্নত করে এটি। মূলত, অ্যালোভেরা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়াতে এটি নতুন চামড়া পুনর্বিন্যাসে সাহায্য করে।

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে অ্যালোভেরা জেল- shajgoj.com

যেভাবে ব্যবহার করবেন –

একটি অ্যালোভেরা পাতা থেকে এর সবটুকু জেল চামচের সাহায্যে বের করে নিন। তারপর আপনার গলা ও ঘাড়ের চারপাশে জেলটি আঙুল দিয়ে ম্যাসাজ করে ১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে শুকাতে দিন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে ১/২ বার ব্যবহার করুন।

২. শসা

শসা একটি ঠাণ্ডা সবজি যা ত্বক হিল করে এবং শরীর ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে। এটি ইউজ করার পরে টোকের মৃত কোষগুলো অপসারণ হয় এবং এর ফলে ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ হয়ে উঠে।

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে শসা ও লেবু - shajgoj.com

যেভাবে ব্যবহার করবেন –

একটি কচি শসা কেটে ব্লেন্ডার-এ পেস্ট করে নিন। এর সাথে যোগ করুন কয়েক ফোঁটা লেবুর রস। চাইলে মধুও যোগ করতে পারেন। এবারে মিশ্রণটি ঘাড়ে ও গলায় লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। তারপর নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ২/৩ দিন পর পর ব্যবহার করতে পারেন।

৩. ওটস

ওটস দেহের জন্য খুবই স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিগুণে ভরপুর একটি খাবার। রুপচর্চায়ও এর জুড়ি নেই। আপনি যদি নিয়মিত ওটস ব্যবহার করেন তাহলে খুব দ্রুতই ঘাড়ের কালো দাগ থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে দুধ, ওটস ও মধু - shajgoj.com

যেভাবে ব্যবহার করবেন –

১ টেবিল চামচ পরিমাণ ওটস চূর্ণ করে নিন। এর সাথে যোগ করুন ১ টেবিল চামচ কাচা দুধ এবং ১ টেবিল চামচ পরিমান মধু। সবগুলো মিশিয়ে একটি মসৃণ পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই পেস্টটি ঘাড়ে ও গলায় মেখে রাখুন ২০-৩০ মিনিটের মত। তারপর ভালোভাবে শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি খুব দ্রুত কালো দাগ সারাতে সাহায্য করবে।

৪. বাদাম

বাদাম মস্তিষ্ক এবং ত্বকের জন্য খুবই ভালো একটি খাবার। এটি ত্বকের যত্নেও বিশেষ কাজ করে, বিশেষ করে কালো দাগ সারাতে বাদাম খুবই কাজের জিনিস। এটি ভিটামিনে ভরপুর এবং এতে থাকা তেল ত্বকের যেকোনো দাগ খুব সহজেই দূর করতে পারে।

বাদামের পেস্ট - shajgoj.com

যেভাবে ব্যবহার করবেন –

এক মুঠো বাদাম সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকাল বেলায় সামান্য একটু পানি দিয়ে বাদামগুলো পেস্ট করে নিন। এবার এই পেস্ট-টি ঘাড়ের কালো অংশে লাগিয়ে রাখুন ২০-২৫ মিনিট তারপর শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫. লেবুর রস

প্রাকৃতিক ব্লিচিং হিসেবে কাজ করে লেবুর রস। এটি কালো ও ছোপ ছোপ দাগ দূর করে ভেতর থেকে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে তোলে। তাই ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার জন্য তো আমরা লেবুর রস ব্যবহার করতেই পারি। তাই না?

যেভাবে ব্যবহার করবেন –

লেবু চিপে ২ টেবিল চামচ রস বের করে নিন। এর সাথে যোগ করুন এক টেবিল চামচ গোলাপ জল। মিশ্রণটি ঘাড়ে লাগিয়ে ২৫-৩০ মিনিট রেখে শুকিয়ে যেতে দিন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি আপনি সপ্তাহে ২/৩ দিন ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

তাহলে বুঝলেন তো, হাতের কাছে থাকা কত সাধারণ কিছু উপাদান দিয়েই আমরা আমাদের অবহেলিত ঘাড়ের যত্ন নিতে পারি। তাই আর দেরি না করে আজই প্যাকগুলো ব্যবহার করার যে উপায়গুলো আপনাদের জানালাম সেই অনুযায়ী ঘাড়ের যত্ন শুরু হোক।

[shajgoj_shop product_display=”horizontal” columns=2 skus=’6401, 6400, 1195, 1077′]

ছবি – সংগৃহীতঃ ইমেজেসবাজার.কম

23 I like it
4 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...