প্রাকৃতিক উপায়ে জলবসন্তের দাগ দূরীকরণে ১২টি উপায়

প্রাকৃতিক উপায়ে জলবসন্তের দাগ দূরীকরণে ১২টি উপায়

চিকেন পক্স বা জলবসন্ত এক ধরনের ভাইরাল ইনফেকশন যা আমাদের সবারই কম বেশি হয়েছে এবং আমাদের অনেকের মুখে বা শরীরে এর দাগও রয়ে গেছে। ২ সপ্তাহের মধ্যে চিকেন পক্স সেরে যায় কিন্তু চিকেন পক্স বা জলবসন্তের দাগগুলো থেকে যায়। পক্স সেরে যাবার পর পরই উচিত দাগগুলো রিমুভ করা, তা না হলে অনেক সময় এগুলো চিরস্থায়ী হয়ে যায়। আজ আমি হাতের কাছে থাকা উপাদান ব্যবহার করে প্রাকৃতিক উপায়ে জলবসন্তের দাগ দূর করার কথা জানাব। কিছু কিছু মানুষের ক্ষেত্রে যদিও একটু দেরি হয়ে গেছে এই দাগগুলো দূর করার উপায় জানতে, তবুও চেষ্টা করে দেখতে তো দোষ নেই, তাই নয় কি?

প্রাকৃতিক উপায়ে জলবসন্তের দাগ দূরীকরণ

১. ডাবের পানি

শুধু পক্সের দাগ কেন? স্কিনের যেকোনো দাগ দূর করার জন্য প্রথমে যে জিনিসটির কথা মাথায় আসে সেটি হলো ডাবের পানি। বসন্ত সেরে যাবার পর পরই প্রতিদিন কটন বলে ডাবের পানি নিয়ে দাগের উপর দিবেন। আর এভাবে তত দিন করবেন যত দিন না স্কার গুলো ইনভিসিবল হবে।

২. বেকিং সোডা

বেকিং সোডা হলো একটি আ্যালকালিন পদার্থ। যার এসিডিটি খুব নিচু স্তরের। হাফ টেবিল চামচ বেকিং সোডা এক গ্লাস পানিতে নিন। তারপর দাগ যুক্ত স্থান গুলোতে লাগান নিয়মিত।

৩. গাঁদা ফুল

চিকেন পক্সের কারণে যে দাগ হয়েছে সেটি দূর করার জন্য গাঁদা ফুলের জুড়ি নেই। ২ টেবিল চামচ গাঁদা ফুল এক কাপ পানিতে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। তারপর সকালে এটি পেস্ট করে নিন, আর দাগের উপর মাখুন। খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি পাবেন অনাকাঙ্ক্ষিত এই দাগ গুলো থেকে।

৪. লেবুর রস

সব ক্ষেত্রের মত লেবুর রস এবার-ও তার ক্ষমতা দেখিয়ে দিল। অর্ধেক লেবুর রস ২ টেবিল চামচ পানির সাথে মিশিয়ে দাগের উপর লাগান। কিন্তু এই পদ্ধতি শুধু মাত্র রাতে অ্যাপ্লাই করবেন। কারণ দিনের বেলা সূর্যের আলো লেবুর রসের সাথে প্রতিক্রিয়া করে নতুন দাগের সৃষ্টি করবে।

৫. মধু

দাগের উপর নিয়মিত মধু লাগানো চিকেন পক্সের দাগের জন্য আরেকটি উপযুক্ত ট্রিটমেন্ট। যত দিন না দাগ যাবে তত দিন খাঁটি মধু দিনে ৩/৪ বার করে দাগের উপর লাগাবেন।

৬. ওটমিল

আধা কাপ ওটমিলের সাথে এক কাপ গরম পানি নিন। তারপর এটি ঠাণ্ডা করে দাগযুক্ত স্থানে লাগান। এমনকি চিকেন পক্সের কারণে যে চুলকানি হয় সেটাও দূর করতে ওটমিল সক্ষম।

৭. চন্দনের তেল

রূপচর্চার জন্য আমরা অনেকেই এই তেল ব্যবহার করে থাকি। ত্বকের জৌলুশ বাড়াতে চন্দনের তেল যেমন জাদু দেখায় তেমনি চিকেন পক্স জনিত দাগ গায়েব করতে এর জুড়ি নেই। চন্দন তেলের সাথে চাইলে ভিটামিন ই অয়েলও মিশিয়ে নিতে পারবেন।

৮. গাজর ও ধনেপাতা

শুধু বাহ্যিক অ্যাপ্লিকেশন নয় অভ্যন্তরীণ থেকেও পক্সের দাগ নির্মূল করা যায়। ১০০ গ্রাম গাজরের সাথে ৬০ গ্রাম ফ্রেশ ধনে পাতা দিয়ে স্যুপ বানিয়ে ফেলুন। তারপর দিনে ২ বার করে সেবন করুন। এতে আপনার দাগ দূর হবে সঙ্গে চিকেন পক্সের ট্রিটমেন্টেও কাজে লাগবে।

৯. রসুন

পক্সের সময় রসুন খেতে হয়ত মানা কিন্তু মুখের দাগ মুছে ফেলতে তো মানা নেই। তাই নিয়ম করে প্রতিদিন রাতে কাঁচা রসুন দাগের ওপর লাগাবেন।

১০. নারিকেল তেল

এই পদ্ধতি তাদের জন্য যাদের দাগ বেশ আগেই হয়েছে কিন্তু এখনো সে দাগ মিলিয়ে যায় নি। প্রতিদিন সকালে দাগের উপর নারিকেলের তেল রাব করুন।

১১. পেঁপে এবং মধুর পেস্ট

এই দুটো উপাদানই দাগ নির্মূলে কার্যকরী। কারণ এরা এনজাইম, এমাইনো এসিড কনটেইন করে। পাকা পেঁপে আর মধু দিয়ে পেস্ট বানিয়ে দাগের উপর দিন দিনে ২ বার করে।

১২. অ্যালোভেরা জেল

অ্যালোভেরার কাঁচা পাতা থেকে নেয়া জেল দাগের উপর নিয়মিত লাগান। দেখবেন কয়েক দিনের মধ্যে দাগগুলো কোথায় যেন হারিয়ে যাবে।

শুধু মুখে বা শরীরে মেখে নয় চিকেন পক্সের দাগ দূর করার জন্য দৈনন্দিন খাওয়া দাওয়ার ওপর নজর দিতে হবে। ভিটামিন কে স্কিনের জন্য উপকারী। কারণ এরা শরীরের ক্ষত এবং দাগ থেকে ত্বক কে রক্ষা করে।

তাই প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় বাঁধাকপি, টমেটো, লিভার, স্পিনাচ, লিন মিট, শালগম রাখুন। আর দেখুন ভেতর থেকেই আপনি সক্ষম হচ্ছেন আপনার শরীরের বাইরে থাকা দাগ দূর করতে। এছাড়া আমরা তো জানি যে পানি আমাদের শরীরের জন্য উপকারী। ডেইলি ২ লিটার পানি পান করুন। শরীরে থাকা টক্সিন দূর তো হবেই সেই সঙ্গে পক্সের দাগও দূর হবে। পানি সারকুলেশন ও কোলাজেন উৎপন্ন বাড়িয়ে দেয়। ফলে আপনার স্কিন ইভেনলি টোনড থাকে। যখন স্কিন ইভেনলি টোনড থাকে তখন স্কার একটু কমই ভিজিবল হয়। আশা করছি আমার এই টিপস গুলো সবার কাজে লাগবে। ধন্যবাদ।

ছবিঃ সংগৃহীত – বোল্ডস্কাই.কম, ইমেজেসবাজার.কম

2 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...