টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইের আচার - Shajgoj

টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইের আচার

maxresdefault5

শীত চলে যাবার আগেই, বানিয়ে ফেলুন টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইের আচার। আর বছরের বাকিটা সময় খিচুড়ির সাথে মজা করে খান। ঝামেলাবিহীন সহজেই জলপাইয়ের টক-ঝাল-মিষ্টি আচারের রেসিপি নিয়ে এসেছি আজ আপনাদের জন্য । আসুন দেখে নেয়া যাক, কী কী লাগবে উপকরণ টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইের আচার বানাতে ।

উপকরণ

Sale • Talcum Powder, Fragrance
    • জলপাই – ১ কেজি
    • সরিষার তেল -১ কাপ
    •  বড় রসুন – ১ টা
    • পাঁচ ফোড়ন- ১ চা চামুচ
    • শুকনো মরিচ – ৫/৬ টি (প্রয়োজনে কম বেশী করতে পারেন)
    • লবণ – ২ চা চামুচ
    • শুকনো মরিচের গুঁড়া – ১ টেবিল চামুচ
    • আঁখের গুঁড় – ৫০০ গ্রাম (প্রয়োজনে কম বেশী করতে পারেন)
    • ভিনেগার – আধা কাপ
    • গরম মশলা গুঁড়া – ২ চা চামুচ
    • তেজপাতা -৩/৪ টা
    • মৌরী গুঁড়া – ১ চা চামুচ

    [picture]

    প্রণালী

    – প্রথমে একটি হাঁড়িতে জলপাই নিয়ে ভালো মতো ধুয়ে নিন, এরপর ঐ হাঁড়িতে পানি নিয়ে জলপাই সেদ্ধ হতে দিন। চুলার আঁচ বেশি রাখুন এইক্ষেত্রে। সেদ্ধ হয়ে গেলে জলপাইের রং পরিবর্তন হবে ।

    – এরপর একটি হামান দিস্তা /শীল পাটাতে রসুন হালকা ছেঁচে নিন।

    – এবার আরেকটি কড়াইয়ে তেল গরম করে নিন এবং ছেঁচা রসুন দিয়ে দিন। রসুন দেবার ফলে ফেনা হবে, অনবরত নাড়ুন এবং তেজপাতা দিয়ে দিন। রসুন একটু বাদামি হলে, পাঁচফোড়ন দিয়ে দিন। শুকনা মরিচ দিন এবার। আসতে আসতে চুলার আঁচ কমিয়ে দিন।মসলা গুলো ভেজে নিন ভালো মতো।

    – মশলা ভাজা হয়ে গেলে, সেদ্ধ করে রাখা জলপাই দিয়ে দিন। জলপাই একটু ঠাণ্ডা হয়ে গেলে শক্ত হয়ে যায়, তাই চেষ্টা করুন সেদ্ধ করার পরপরই, মশলাতে দিয়ে দিতে। অনবরত নাড়তে থাকুন। একে একে লবণ, শুকনো মরিচের গুঁড়া দিয়ে দিন এবং নাড়ুন।

    – আলাদা করে কোন পানি দিবেন না, এই অবস্থায় গুঁড় দিয়ে দিন। প্রথমে অল্প করে এরপর বেশি দিন। গুঁড় গলে যে সিরা হবে, এই সিরাতেই জলপাই সেদ্ধ হবে ।

    – এভাবে কিছুক্ষণ রেখে, একটি ডাল ঘুঁটনি / মাস্যার দিয়ে জলপাই গুলো ছেঁচে দিতে হবে। আবার কিছুক্ষণ নাড়ুন এবং ছেঁচে দিন জলপাইগুলো। আসতে আসতে দেখবেন গুঁড় একটু শুকিয়ে আসবে, চুলার আঁচ এসময় মিডিয়াম রাখুন। নাড়তে থাকুন অনবরত, নাহলে পুড়ে যেতে পারে আচার ।

    – এরপর আবার মাস্যার দিয়ে জলপাইগুলো ছেঁচে নিন। বেশ সময় নিয়ে জলপাই আঁচার নাড়তে হবে। একসময় দেখবেন, গুঁড় শুকিয়ে গেছে এবং জলপাই পুরোপুরি বাদামী হয়ে গেছে। এখন ভিনেগার দিয়ে দিন। ভিনেগার দেয়াতে যেই পানি পানি ভাবটা হবে, এই পানিটা শুকানোর জন্য নাড়তে থাকুন আবার।

    – এখন অন্য একটি প্যানে মৌরি ভাজুন , বেশি ভাজবেন না। হালকা বাদামী হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে নিয়ে, হামান দিস্তা/ শীল পাটাতে একটু ছেঁচে নিন। মিহি না করে আধা ভাঙ্গা করে নিবেন মৌরিগুলো।

    – এবার  আঁচারে ১ চামচ গরম মশলা দিন, নাড়তে থাকুন । বেশ কিছুক্ষণ নাড়ার পর আবার গরম মশলা দিন ১ চামচ। এভাবে ২ ভাগে মশলা দিলে , আঁচারে মশলা ভালো মতো ঢুকবে। এখন মৌরি দিন হাফ চা চামচ , নাড়ুন আবার কিছুক্ষণ। আবার হাফ চা চামচ মৌরি দিন। নাড়তে নাড়তে দেখবেন একসময় তেল উঠে এসেছে , মানে আঁচার হয়ে যাচ্ছে। এখন টেস্ট করে নিন মিষ্টি  ঠিক আছে কিনা। আরও কিছুক্ষণ নেড়ে নামিয়ে ফেলুন আঁচার চুলা থেকে।

    – সবশেষে আঁচার ঠাণ্ডা করে, কাঁচের বয়ামে সংরক্ষণ করুন।

    ছবি – পিন্টারেস্ট ডট কম

    রেসিপি – তাবাসসুম বিন্তি

    0 I like it
    0 I don't like it
    পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...