Rimmel Lasting Finish 25H Foundation With Comfort Serum - Shajgoj

Rimmel Lasting Finish 25H Foundation With Comfort Serum

Rimmel Lasting Finish 25H Foundation With Comfort Serum

একটা সময় ছিল যখন আমাদের দেশের মেয়েদের মধ্যে ফাউন্ডেশন ব্যবহারের তেমন কোন প্রচলন ছিল না তবে এখন আর সে অবস্থা নেই; মেকাপ সচেতন কিংবা সাজগোজ সম্পর্কে সামান্য ধারণা রাখেন এমন যে কেউ ফাউন্ডেশন শব্দটি একবারের জন্য হলেও শুনেছেন। সাধারণত ফাউন্ডেশন বেইজ মেকাপে ব্যবহার করা হয়। মেকাপের ক্ষেত্রে একটি সঠিক ফাউন্ডেশন নির্বাচন সুন্দর বেইজ তৈরির পূর্বশর্ত। আর কথা না বাড়িয়ে আজকে যে প্রোডাক্টটির রিভিউ দেব তার সাথে আপানদের পরিচয় করিয়ে দেই যার নাম হচ্ছে Rimmel Lasting Finish 25H Foundation With Comfort Serum । এটি রিমেল লন্ডন এর একটি লং ওয়্যারিং ফাউন্ডেশন; যেটা দাবি করে যে এই ফাউন্ডেশন আপনাকে ২৫ ঘণ্টা মেকাপ নষ্ট হওয়া থেকে প্রটেকশন দেবে বা মেকাপ স্থায়ী হবে আর সাথে গরম আর আর্দ্রতাপূর্ণ আবহাওয়ায় টিকে থাকবে। তো আমরা সবাই জানি যে, কোম্পানি যা দাবি করে তা বেশির ভাগ সম্পূর্ণ সঠিক হয় না। আজকে দেখব যে, আমার অভিজ্ঞতা এই প্রোডাক্টটির প্রতি কী ছিল।

দামঃ ৯০০-১২০০ টাকা ।

কোথায় পাবেনঃ
যে কোন ফেসবুক পেইজ যারা UK & USA থেকে পণ্য এনে থাকে তাদের দিয়ে সরাসরি Superdrug, Boots, Ulta, Walmart, Walgreen, Target, Amazon, Ebay থেকে আনিয়ে নিতে পারবেন । আর Sapphire থেকে অনলাইনে অর্ডার করতে পারেন বা ষ্টকে আছে কিনা জেনে নিতে পারেন ।

প্যাকেজিং:
ফাউন্ডেশনটি লাল রঙের ঢাকনাসহ স্বচ্ছ কাচের বোতলে প্যাকেজিং করা হয়েছে আর এতে কোন পাম্প নেই। তবে UK, Australia ভার্সনে পাম্প আছে।

পরিমাণ:
৩০ মি.লি.
২৪-৩৬ মাস ( প্যাকের গায়ে উল্লেখ থাকবে মেয়াদ শেষের তারিখ ও সাল )।

শেড:
১০ টি শেড। তবে বাঙালি মেয়েদের জন্য Ivory, True Ivory, Soft Beige, Classic Beige, True Beige, True Nude আর Natural Beige (মিডিয়াম-ডার্ক স্কিনে)-গুলো ভালো মানাবে।

ফাউন্ডেশনটির সবচেয়ে মজার দিক হল যে ঘামার পর এটা আরও সুন্দর দেখায় স্কিনে যা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অন্যান্য ফাউন্ডেশনে আমি দেখিনি। আমি সবাইকে বলব, ভালোভাবে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে ফাউন্ডেশন অ্যাপ্লাই করবেন আর নিজের স্কিনের টোনের সাথে ম্যাচ হয় এমন শেডই কিনবেন। নাহলে আপনি আর আমি যতই দামি প্রোডাক্ট ব্যবহার করি না কেন ভালো ফলাফল পাবো না। আর কিনেই হতাশ হবেন না। একটা প্রোডাক্ট সিজন পরিবর্তনের সাথে সাথে আপনাকে ভিন্ন ফল দিতে পারে। ট্রায়াল অ্যান্ড এরর পদ্ধতিতেই সঠিক শেড আর প্রোডাক্টটি আপনি খুঁজে পাবেন।

যা ভালো লেগেছে:
১. নরমাল আর শুষ্ক ত্বকের জন্য ভালো।

২. থিক হলেও অনেক সুন্দরভাবে স্কিনের সাথে মিশে যায়। ( আমি বিউটি স্পঞ্জ দিয়ে ভালো ফল পেয়েছি )

৩. শেডগুলো ফর্সা, উজ্জ্বল শ্যামলা আর শ্যামলা মেয়েদের জন্য।

৪. ৫ ঘণ্টা পর্যন্ত আমার মুখে কোন শাইন দেখতে পাইনি।

৫. সেট হয়ে যাওয়ার পর ফিনিশ অনেক ন্যাচারেল দেখা যায়।

৬. মিডিয়াম থেকে ফুল কভারেজ দেবে।

৭. স্কিনে কোন ব্রেক আউট হয়নি।

৮. আমার স্কিনে ৮ -১০ ঘণ্টা স্থায়ী ছিল। ফেড হয়নি।

৯. সম্পূর্ণ ট্রান্সফার প্রুফ না তবে ঘাম, গরম আর তাপেও মেকাপ গলে নষ্ট হয়ে যায়নি আমার ক্ষেত্রে ।

১০. এস পি এফ ২০ ; তাই প্রতিদিনের ব্যবহার উপযোগী।

যা ভালো লাগেনি:

১. ডার্ক স্কিনের জন্য শেড খুঁজে বের করা খুব কঠিন;

২. ব্লেনড করতে (আমার স্কিনে) অনেক সমস্যা হয়েছে কিন্তু আরও ২ থেকে ৩ জনের স্কিনে আমি নিজে ফ্লাট ব্রাশ আর আঙ্গুল দিয়ে সুন্দরভাবে ব্লেন্ড করেছি। অবশেষে বিউটি স্পঞ্জ দিয়ে আমার স্কিনে এটা ভালোভাবে ব্লেন্ড হয়ে গেছে।

৩. ফাউন্ডেশনটি বেশ ময়েশ্চারাইজিং তাই তৈলাক্ত ত্বকে এটা অতটা ভালো কভারেজ দেবে না।

৪. আমি ফুল কভারেজ ফাউন্ডেশন এড়িয়ে চলি তাই যারা আমার মতো তাদের এটা তেমন ভালো লাগবে না।

৫. বেশি লেয়ার করলে কেকি হয়ে যেতে পারে।

রেটিং:
৬.৫/১০! নরমাল বা মিশ্র থেকে শুষ্ক ত্বকের অধিকারীরা যারা ভালো কভারেজ চান তারা এটা ট্রাই করে দেখতে পারেন।

ছবি – দ্যাঅফিসালএ্যান.ব্লগস্পট.কম

লিখেছেন – বীণা

0 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...