হেনা প্যাক ব্যবহারে প্রাকৃতিকভাবে চুল হবে মজবুত ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল

হেনা প্যাক ব্যবহারে প্রাকৃতিকভাবে চুল হবে মজবুত ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল

4

হেনা দিয়ে চুল ন্যাচারালি রং করা যায়, এটা তো আমরা সবাই জানি। কিন্তু এর পাশাপাশি হেনা প্যাক চুলের যত্নে কতটা কার্যকরী সেটা জানেন কি? হেনা শুধু পাকা চুল ঢাকে না, সেই সাথে চুল মজবুত ও শাইনি করে এবং চুলে ভলিউম দেয়। চুলের যত্নে হেনা বা মেহেদি প্রাচীনকাল থেকেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। প্রাকৃতিক উপায়ে চুল মজবুত, ঝলমলে ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করতে সাপ্তাহিক হেয়ার কেয়ার রুটিনে রাখতে পারেন হেনা প্যাক। চলুন জেনে নেওয়া যাক হেনা বা মেহেদি চুলে কী কী বেনিফিটস দেয়।

মেহেদি বা হেনা প্যাকের উপকারিতা

১) স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে

ড্যামেজড হেয়ার রিপেয়ার করে হেয়ার কোয়ালিটি ইম্প্রুভ করে হেনা। এটি চুলের পি এইচ ব্যালেন্স রিস্টোর করে। ব্যস্ত জীবনে চুলের যত্ন নেওয়ার ইজি সল্যুশন বলা যেতে পারে এটাকে। এতে আছে নারিশিং প্রোপার্টিজ, যা ড্যামেজ চুলকে করে তোলে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল। যাদের স্ক্যাল্প অতিরিক্ত অয়েলি, সবসময়ই চুলে তেলতেলেভাব থাকে; তাদের জন্য বেস্ট সল্যুশন হচ্ছে হেনা!

২) ন্যাচারাল কন্ডিশনার হিসেবে

হেনা চুলের যত্নে প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে। এটা চুলে প্রোটেক্টিভ লেয়ার তৈরি করে যা চুলকে ড্যামেজ এর হাত থেকে রক্ষা করে। হেনা ব্যবহারে চুল হয় স্ট্রং আর থিক। এটি চুলের ময়েশ্চার লক করে, চুলে ন্যাচারাল শাইন অ্যাড করে চুলকে করে দ্বিগুণ মজবুত।

৩) পাকা চুল ঢাকতে হেনা প্যাক

যদি আপনি চুল কালার করতে চান চুলের কোনো ক্ষতি না করেই, তাহলে হেনা আপনার জন্য বেস্ট অপশন। হেনা একদমই ন্যাচারালভাবে পাকা চুলে লালচে রং নিয়ে আসে। অনেক সময় কেমিক্যাল হেয়ার কালারগুলো স্যুট করে না বা চুলের ন্যাচারাল ময়েশ্চার লেভেল নষ্ট করে দেয়, কিন্তু হেনার কোনো সাইড ইফেক্ট নেই! এই প্রজন্মের অনেক ছেলে মেয়েরই কম বয়সে চুল পেকে যাচ্ছে। এটা বেশ কমন একটা প্রবলেম। এক্ষেত্রে হেনা প্যাক হতে পারে ইজি ও ইফেক্টিভ সল্যুশন।

৪) খুশকি দূর করতে

খুশকি দূর করতে হেনা খুব ভালো কাজ করে। এর অ্যান্টি ফাঙ্গাল ও অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল কনটেন্ট হেয়ার ও স্ক্যাল্প কেয়ারে দেয় মাল্টিপল বেনিফিটস। সপ্তাহে একদিন হেনা প্যাক ব্যবহার করলে ড্যানড্রাফ থেকে মুক্তি পাবেন খুব সহজে।

৫) হেয়ার গ্রোথ বৃদ্ধি করতে

হেনা চুলের পি এইচ লেভেল ব্যালেন্স করে এবং স্ক্যাল্পের অতিরিক্ত অয়েল প্রোডাকশন কমায়। সেই সাথে এটি চুল পড়া কমাতে সাহায্য করে এবং নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। এতে থাকা ন্যাচারাল অ্যাসেনশিয়াল অয়েল হেয়ার গ্রোথ প্রমোট করে।

বাজারে অনেক ব্র্যান্ডের হেনা পাউডার আছে। তবে পারসোনালি আমার পছন্দ রাজকন্যা হেনা পাউডার। চলুন একটু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

রাজকন্যা হেনা পাউডার কেন আমার পছন্দ?

এই হেনা পাউডার ১০০% ন্যাচারাল, পিওর ও অরগানিক। রাজকন্যা হেনা পাউডার তৈরি করা হয়েছে শুকনো মেহেদি পাতা দিয়ে, এতে কোনো প্রিজারভেটিভ ইউজ করা হয় না। এই হেনা পাউডার স্ক্যাল্পে কুলিং ইফেক্ট দেয় যেটা আমার বেশ ভালো লাগে, বিশেষ করে গরমের দিনে।

তাহলে রাজকন্যা হেনা পাউডারের বেনিফিটগুলো দেখে নিন এক নজরে-

  • চুলের আগা ফাটা রোধ করে
  • মাথার ত্বকের ইচিনেস দূর করে
  • অকালে চুল পড়া, চুল পাকা ও খুশকি প্রতিরোধ করে
  • চুলে ভলিউম এনে দেয়
  • চুল সফট ও সিল্কি করে
  • ন্যাচারাল হেয়ার ডাই (Natural Hair Dye) হিসাবে কাজ করে

কীভাবে ব্যবহার করতে হবে?

১. হেয়ার গ্রোথ প্যাক

এই হেয়ার প্যাক বানাতে হলে আমাদের প্রয়োজন-

  • ২ চামচ রাজকন্যা হেনা পাউডার
  • ১ চামচ রাজকন্যা আমলা পাউডার
  • ৩ চামচ টকদই
  • ১ টা ডিম

সব একসাথে মিক্স করে চুলের গোড়া থেকে আগা অবদি ভালো করে লাগিয়ে ৪৫ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে। এই হেয়ার মাস্ক সপ্তাহে ১ দিন ব্যবহার করা যেতে পারে। হেয়ার গ্রোথ বুস্ট করার পাশাপাশি এই হেয়ার প্যাকটি চুলকে সফট ও শাইনি করে তুলবে।

২. ন্যাচারাল কালারের জন্য হেয়ার প্যাক

এই প্যাকটি বানাতে যা যা লাগবে-

  • ৩ চামচ রাজকন্যা হেনা পাউডার
  • ৪ চা চামচ চায়ের লিকার
  • ১/২ চামচ কফি

সবগুলো উপকরণ ভালোভাবে মিক্স করে পুরো চুলে ছোট ছোট সেকশন করে ভালোভাবে লাগাতে হবে। এরপর শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল কভার করে নিতে হবে যাতে মাস্কটি শুকিয়ে না যায়। ২/৩ ঘন্টা পর নরমাল পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। একবারে কালার না আসলে সেইম প্রসেসে আবার মাস্কটি ব্যবহার করতে হবে।

 

এছাড়াও আপনি বিভিন্ন DIY মাস্কের সাথে মেহেদি পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। চুলের যত্নে হেনা প্যাক এর বেনিফিটস তো জানা হলো। কীভাবে ব্যবহার করতে হবে সেটাও জানা হয়ে গেলো। রাজকন্যা হেনা পাউডার ছাড়াও বিভিন্ন ব্র্যান্ডের হেনা পেয়ে যাবেন সাজগোজে। অথেনটিক হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্ট কিনতে চাইলে সাজগোজের চারটি ফিজিক্যাল শপ- যমুনা ফিউচার পার্ক, সীমান্ত সম্ভার, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার এবং উত্তরার পদ্মনগর (জমজম টাওয়ারের বিপরীতে) থেকে কিনতে পারেন। অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন।

ছবি- সাজগোজ

81 I like it
27 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...