ক্লে মাস্ক দিয়ে মাত্র ১৫ মিনিটেই স্কিন হবে ব্রাইট ও ফ্রেশ!

ক্লে মাস্ক দিয়ে মাত্র ১৫ মিনিটেই স্কিন হবে ব্রাইট ও ফ্রেশ!

2 (10)

‘ক্লে মাস্ক’ এই নামটি এখন বেশ পপুলার। স্কিনের এক্সেস অয়েল রিমুভ করে স্কিনকে ডিপলি ক্লিন করতে এই ন্যাচারাল মাস্কটি দারুণ কার্যকরী। বিশেষ করে যাদের স্কিন অয়েলি ও একনে প্রন, তারা এই মাস্কের সাথে বেশি পরিচিত। আমার স্কিন যেহেতু অয়েলি, আমি বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ডের ক্লে মাস্ক ইউজ করেছি। আজ শেয়ার করবো আমার রিসেন্ট ফেবারিট একটি ব্রাইটেনিং ক্লে মাস্কের রিভিউ। যারা রিজনেবল প্রাইসে বেস্ট কোয়ালিটির প্রোডাক্ট খুঁজছেন, তাদের জন্যই আজকের ফিচার। দেখে নিন তাহলে।

Rajkonna Brightening Clay Mask

রিসেন্টলি ট্রাই করলাম Rajkonna Brightening Clay Mask। অয়েলি স্কিন হওয়াতে উইকলি স্কিনকেয়ারে অর্থাৎ সপ্তাহে অন্তত একদিন ক্লে বেইজড ফেইস মাস্ক ইউজ করা হয়। আমার এক ফ্রেন্ডের কাছে পজেটিভ রিভিউ শুনে রাজকন্যার এই মাস্কটি পারচেজ করি। সাজগোজ থেকে প্রায়ই কেনাকাটা করা হয়, তাই অ্যাপ বা ওয়েবসাইটে মাঝে মধ্যেই ঢুঁ দেওয়া হয়। আমি আসলে বাজেট ফ্রেন্ডলি অপশন খুঁজছিলাম। আর পেয়েও গেলাম! আজ আমি সেটারই ডিটেইলস রিভিউ শেয়ার করবো, যাতে আপনারাও স্কিনকেয়ারের জন্য বেস্ট প্রোডাক্টটি খুঁজে নিতে পারেন।

ক্লে মাস্ক

প্রথমেই ব্র্যান্ড নিয়ে কিছু কথা

রাজকন্যা আমাদের দেশীয় ব্র্যান্ড। অরগানিক ও ন্যাচারাল ইনগ্রেডিয়েন্টযুক্ত প্রোডাক্টের জন্য এই ব্র্যান্ডটি অলরেডি বেশ হাইপড। কোনো হার্শ কেমিক্যাল বা ক্ষতিকর ইনগ্রেডিয়েন্ট থাকে না, তাই টিনেজ থেকে শুরু করে সব বয়সের সবাই এগুলো ইউজ করতে পারেন নিশ্চিন্তে। এই ব্র্যান্ডের প্রোডাক্টগুলো কিন্তু একদমই রিজনেবল। মানে সাধ্যের মধ্যেই বেস্ট কোয়ালিটি ইনশিওর করে রাজকন্যা! এবার সরাসরি প্রোডাক্ট রিভিউতে চলে যাই।

ক্লে মাস্ক কেন বেনিফিসিয়াল?

চলুন একনজরে দেখে নেই উইকলি স্কিনকেয়ারে ক্লে মাস্ক কী কী বেনিফিটস দিতে পারে-

  • ডেড স্কিন সেলস, ডার্ট, পল্যুশন বা ইমপিওরিটিস ক্লিন করে স্কিনের ডিপ লেয়ার থেকে
  • স্কিনের এক্সেস অয়েলিনেস দূর করে
  • স্কিনে দেয় ইনস্ট্যান্ট ব্রাইটেনিং ইফেক্ট
  • স্কিনকে ইয়াংগার লুকিং রাখে
  • ওপেন পোরসের ভিজিবিলিটি কমিয়ে আনে

 

মেইন ইনগ্রেডিয়েন্টস কী কী?

স্কিনের ব্যাপারে কোনো রিস্ক নিবেন না, জেনে ও বুঝে সঠিক প্রোডাক্টটি বেছে নিন। প্রোডাক্ট সিলেকশনের ক্ষেত্রে ইনগ্রেডিয়েন্ট লিস্ট চেক করে নেওয়া খুবই জরুরি। Rajkonna Brightening Clay Mask এ আছে অ্যাকটিভেটেড চারকোল, অ্যালোভেরা ও ভিটামিন ই। স্কিনকেয়ারে এই উপাদানগুলোর উপকারিতা আসলে কী, সেটা জেনে নেওয়া যাক তাহলে।

অ্যাকটিভেটেড চারকোল 

অ্যাকটিভেটেড চারকোলের আছে সুপার পাওয়ার যা অয়েলি স্কিনের এক্সেস সেবাম বা তেলতেলেভাব নিমিষেই দূর করে। অ্যাবজর্বশন ক্যাপাবিলিটি বেশি হওয়ায় ডিপ লেয়ার থেকে স্কিনকে ডিটক্সিফাই ও পিউরিফাই করে। এটি ন্যাচারাল এক্সফোলিয়েটরের মতো কাজ করে স্কিনকে করে ডিপলি ক্লিন। তাহলে বুঝতেই পারছেন কেন এই উপাদানটি এতো পপুলার।

অ্যাকটিভেটেড চারকোল

অ্যালোভেরা

অ্যালোভেরাতে আছে মিনারেল, এনজাইম ও অ্যাসেনশিয়াল নিউট্রিয়েন্ট যা স্কিন সেলস রিপেয়ার করে স্কিনে দেয় সুদিং ইফেক্ট। বিশেষ করে একনে প্রন স্কিনের যত্নে এটি কাজ করে ম্যাজিকের মতো, কেননা এতে আছে স্যালিসাইলিক অ্যাসিড। এই ম্যাজিকাল প্ল্যান্টের আছে আরও কিছু প্রোপারটিজ যা স্কিনকে হেলদি রাখতে হেল্প করে।

ভিটামিন ই

দারুণ ব্যাপার হচ্ছে এই ক্লে মাস্কে আছে ভিটামিন ই, যা স্কিনের প্রিম্যাচিউর এজিং সাইনস প্রিভেন্ট করে এবং সেই সাথে স্কিন টেক্সচারকেও স্মুথ রাখে। ভিটামিন ই সান ড্যামেজ রিপেয়ার করতেও হেল্পফুল। তাই বিভিন্ন স্কিনকেয়ার প্রোডাক্টে এই উপাদানটির উপস্থিতি দেখা যায়।

কীভাবে ব্যবহার করবো?

খুবই সহজ! জাস্ট টিউব থেকে বের করে সরাসরি ফেইসে অ্যাপ্লাই করতে হয়। কোনো কিছু মিক্স করার ঝামেলা নেই। ১০-১৫ মিনিট ফেইসে রেখে ভালোভাবে ধুয়ে নিবেন। এরপর ময়েশ্চারাইজার অ্যাপ্লাই করে নিতে হবে। অয়েলি অ্যান্ড কম্বিনেশন স্কিনে Rajkonna Brightening Clay Mask দারুণ কাজ করে। সপ্তাহে এক বা দুইবার ইউজ করুন, এতে ভালো রেজাল্ট পাবেন।

স্কিনকেয়ার

ফেইসে একনে থাকলে কি ক্লে মাস্ক ইউজ করা যাবে?

অবশ্যই! ক্লে মাস্ক স্কিনের এক্সেস অয়েলিনেস বা সেবাম প্রোডাকশন রিডিউস করে। পরোক্ষভাবে এটি কিন্তু একনে প্রবলেম কমিয়ে আনতেও হেল্প করে। অ্যাকটিভেটেড চারকোলে আছে অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রোপারটিজ। তাই একনে প্রিভেন্ট করতে এই ক্লে মাস্ক দারুণ কার্যকরী। তবে ব্যবহারের আগে প্যাচ টেস্ট করে নিতে ভুলবেন না।

Rajkonna Brightening Clay Mask কেন ডিফারেন্ট?

আচ্ছা, মার্কেটে তো কত ধরনের ক্লে মাস্ক পাওয়া যায়, আলাদা করে এটা কেন সাজেস্ট করছি, নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছে করছে! চলুন তাহলে জেনে নেই এখনই-

১) এই ক্লে মাস্কে চারকোলের সাথে সাথে অ্যালোভেরা আর ভিটামিন ই আছে, যার কারণে স্কিন ময়েশ্চারাইজড থাকে। সেই সাথে ফেইসে ইনস্ট্যান্ট ব্রাইটেনিং ইফেক্টও আসে।

২) ৬০ গ্রামের আকর্ষণীয় টিউবে পাওয়া যায়। ব্যবহার করা খুবই সহজ, কোনো ঝামেলা নেই। আর সবচেয়ে বড় কথা হলো দামটাও একেবারে হাতের নাগালে।

রাজকন্যা ক্লে মাস্ক

৩) ক্লে বেইজড মাস্ক স্কিনকে পিউরিফাই করে ফ্রেশ লুক দেয়। রাজকন্যার এই মাস্কে কোনো হার্শ কেমিক্যাল না থাকায় নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন। দেশীয় ব্র্যান্ড হলেও কোয়ালিটির ক্ষেত্রে কোনো কম্প্রোমাইজ করে না।

আমার এক্সপেরিয়েন্স

প্রথমবার ইউজ করেই আমার বেশ ভালো লেগেছে। ইনস্ট্যান্টলি ফেইসে ব্রাইট ও ফ্রেশ লুক দেয়। স্কিনের ডালনেসও গায়েব! ধোয়ার পর স্কিন একদমই ড্রাই লাগেনি। এই মাস্কটি খুব বেশি চিটচিটে না, যেটা আমার বেশ ভালো লেগেছে। আঙুল দিয়েই বেশ স্মুথলি ফেইসে অ্যাপ্লাই করা যায়। ওভার অল আমার এক্সপেরিয়েন্স ভালো, অবশ্যই আমি আবারও পারচেজ করবো।

আশা করি ক্লে মাস্ক নিয়ে আপনাদের কনফিউশন দূর করতে পেরেছি। মাত্র ১৫ মিনিটেই ব্রাইট ও ফ্রেশ স্কিন কীভাবে পাওয়া যাবে, সেই সিক্রেটটা জেনে নিলেন তাহলে। অনলাইনে অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে পারেন শপ.সাজগোজ.কম থেকে অথবা সাজগোজের ৪টি শপ- যমুনা ফিউচার পার্ক, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার, উত্তরার পদ্মনগর ও সীমান্ত সম্ভার থেকেও বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি।

 

 

ছবি- সাজগোজ

6 I like it
2 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...