মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস - Shajgoj

মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস

10352389_368584159961413_5112312760020199492_n

কেমন আছেন সবাই? ভালো তো? আপনারা যারা ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে পছন্দ করেন এবং তৈলাক্ত স্কিন হওয়ার কারণে কোনো ফাউন্ডেশন ব্যবহার করেই শান্তি পান না, মূলত তাদের জন্যই আজেকের এ রিভিউটি। তাই এ রিভিউটি আমি আমার সব তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারী পাঠকদের উৎসর্গ করছি।

মুস ফাউন্ডেশন কীঃ
আসুন শুরুতেই জেনে নেই মুস ফাউন্ডেশন আসলে কী। এটিও এক ধরনের ফাউন্ডেশন, না লিকুইড না ক্রীমি। এটা অনেকটা ফাউন্ডেশন থেকে কিছু পরিমাণ তারল্য সরিয়ে নেওয়ার মত; যা তৈলাক্ত ত্বকের কথা চিন্তা করে বানানো। অনেক ব্র্যন্ডেরই মুস ফাউন্ডেশন আছে। তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় হল মেবিলিনের ড্রীম ম্যাট মুস ফাউন্ডেশন। আমি নিজেও মেবিলিনের অনেক পণ্য ব্যবহার করেছি এবং ড্রাগস্টোর পণ্যের মধ্যে এদের কোয়ালিটি সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। অনেক দামি প্রসাধনীর তুলনায়ও এরা অনেক বেশি কার্যকর।

কেমন ত্বকে উপযোগীঃ
আগেই বলেছি মুস ফাউন্ডেশন তৈলাক্ত ত্বকের আদর্শ। যাদের ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত তাদের ত্বকেও এটি অতি সহজেই মানিয়ে যাবে। গরমের দিনে তো বটেই শীতেও যাদের ত্বক থেকে তেল ছুটি নেয় না তারা নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন মুস ফাউন্ডেশন। অনেক বেশি ড্রাই স্কিন ব্যবহার না করাই ভালো তবে  কোন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে নিলে ড্রাই স্কিনেও মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস মানিয়ে যাবে সহজেই।

আমার অভিজ্ঞতাঃ
মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস এর প্যাকেজিং খুবই সুন্দর ও আকর্ষনীয়। ছোট্ট গোলাকার কাঁচের পাত্র আর প্লাস্টিকের ঢাকনা। প্রোডাক্টির অনেক গুলো শেড রয়েছে। লাইট, মিডিয়াম ও ডার্ক সিরিজে ভাগ করার পাশাপাশি প্রতিটি সিরিজে আরো ৪-৫ টি করে শেড রয়েছে। তাই বলা যায় এশিয়ানদের জন্য এটিও একটা বড় সুবিধা; কেননা বেশিরভাগ সময়ই আমরা আমাদের কমপ্লেক্সনের ফাউন্ডেশন শেড খুঁজে পেতে ব্যর্থ হই।

মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস খুবই লাইট ওয়েটের একটা ফাউন্ডেশন। মুখে দিলে মনেই হবে না  যে কিছু দিয়েছেন। একদমই ভারী না, তবে কভারেজ দারুন। লাইট থেকে মিডিয়াম এমনকি হাই কভারেজও সম্ভব। যারা একটু অভিজ্ঞ আছেন তারা চাইলেই হাই কভারেজ করে নিতে পারবেন আর যারা ডেইলি ওয়ারেবল কিছু চান তারা হালকা ভাবে ব্যবহার করলেই চলবে। এর টেক্সচার খুবই চমৎকার আর স্কিনে দেওয়া মাত্রই ভেলভেটি একটা ইফেক্ট দেয়-যা আমার খুব প্রিয়। আমার স্কিন ওয়েলি,খুব সহজেই অক্সিডাইজও হয়। মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুসে তেমন কোনো সমস্যা হয় নি। তবে শেড চুস করাটা জরুরী, নয়ত কেকি লাগতে পারে।

ব্যবহারবিধিঃ
সবচেয়ে ভালো ও কার্যকর ফল পাওয়া যায় যদি সঠিক উপায়ে বিউটি ব্লেন্ডার দিয়ে ব্যবহার করা যায়; কেননা কোনো ফাউন্ডেশনই সুন্দর দেখায় না যদি তা ঠিক ভাবে ব্লেন্ড না হয়। তাই আমি বলব আপনার যে ফাউন্ডেশনই ব্যবহার করুন না কেন, অবশ্যই সুন্দরমত ব্লেন্ড করবেন। চাইলে ভেজা ব্লেন্ডারও ব্যবহার করতে পারেন, হাই কভারেজের জন্য।

স্থায়ীত্বঃ
তৈলাক্ত ত্বকে টোনার ও সেটিং স্প্রে সহ ভালো ওয়েদারে ১৬-১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস অপরিবর্তিত থাকতে পারে। তবে যারা একদম আউটডোরে ব্যবহার করতে চান তাদের ক্ষেত্রেও ১০ ঘণ্টা চলে যাবে নিশ্চিন্তেই। আর ড্রাই স্কীন হলে খুব ভালো কোন ক্রীম লাগিয়ে তবেই ব্যবহার করা যাবে। পাউডার দিয়ে সেট করার পরে অনায়াসেই ১০-১২ ঘণ্টা কোনো রকম টাচ আপ ছাড়াই আপনার ত্বককে গ্লোয়িং রাখতে পারবে মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস।

দরদামঃ
ইউকে ও ইউএসএ সাইট ভেদে দাম ভিন্ন হতে পারে। তবে ১৪০০ টাকা এর বেশি হওয়া সমীচীন নয়।

প্রাপ্যতাঃ
এটি এখন আমাদের দেশেই পাওয়া যায়। যমুনা ফিউচার পার্কে  নতুন খোলা কস্মেটিক্স স্টোর  পাবেন  Sapphire  মেবিলিন ড্রীম ম্যাট মুস । তাছাড়া আরও পাবেন বিভিন্নও ব্র্যান্ড এর ইউ এস এ  আর ইউকে থেকে আমদানি করা কস্মেটিক্স।

আশা করি রিভিউটি আপনাদের পছন্দ হয়েছে এবং অনেক উপকারে আসবে। সবার সুস্বাস্থ্য কামনায় শেষ করছি, ভালো থাকবেন সবাই।
লিখেছেনঃ রোজা স্বর্ণা
0 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...