নেইল পলিশ লং লাস্টিং রাখতে দারুণ কার্যকরী ১০টি হ্যাকস!

নেইল পলিশ লং লাস্টিং রাখতে দারুণ কার্যকরী ১০টি হ্যাকস!

1

পছন্দের কালারের নেইল পলিশ দিয়ে নখ রাঙাচ্ছেন, কিন্তু লং লাস্টিং হচ্ছে না? হাতে লাগানোর পর অল্প সময়ের মধ্যেই উঠে আসছে? কেউ হয়তো এক কালার নেইল পলিশ লাগাতে ভালোবাসেন, কেউবা ডিফারেন্ট কালার, কেউ ভালোবাসেন নেইল পেইন্ট করতে। ম্যাট, গ্লসি, শিমারি বা ট্রান্সপারেন্ট- সব ধরনের নেইল কালারই থাকে পছন্দের তালিকায়। অনেক সময় নিয়ে লাগানোর পর যখন নেইল পলিশ লং লাস্টিং করে না তখন সব পরিশ্রমই বৃথা মনে হয়। এমন সমস্যা যদি আপনিও ফেইস করে থাকেন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্যই। আজকে আপনাদের জানাবো নেইল পলিশ লং লাস্টিং রাখার দারুণ ১০টি হ্যাকস নিয়ে।

নেইল পলিশ কতদিন পর্যন্ত স্টে করে?

লং লাস্টিং হ্যাকসগুলো সম্পর্কে জানার আগে আমাদের একটু জানতে হবে, নেইল পলিশ আসলে কতদিন পর্যন্ত স্টে করে? সত্যি বলতে, এটা আসলে ডিপেন্ড করে বিভিন্ন বিষয়ের উপর। নেইল পলিশের বিভিন্ন ধরনের মতো একেক জনের নখ আর মেনিকিওরের ধরনও আলাদা। নখের ভ্যারিয়েশন অনুযায়ী নেইল পলিশ কয়েকদিন বেশ ভালোভাবেই স্টে করে। আবার যদি লং ওয়্যার ফর্মুলার অথবা জেল পলিশ ব্যবহার করা হয়, সেক্ষেত্রে দুই সপ্তাহ পর্যন্ত নেইল পলিশ লাস্টিং করতে পারে।

নেইল পলিশ লং লাস্টিং রাখতে

নেইল পলিশ লং লাস্টিং রাখার দারুণ ১০টি হ্যাকস

নেইল পলিশ কতদিন পর্যন্ত লাস্টিং করতে পারে তা তো জানা হলো। এবার চলুন জেনে নেই এই লং লাস্টিং এর জন্য কী কী হ্যাকস ফলো করা যায়-

১) থিন কোট অ্যাপ্লাই করুন

নেইল পলিশ লং লাস্টিং করার জন্য কীভাবে এটি অ্যাপ্লাই করা হচ্ছে সেটার দিকে খেয়াল রাখা সবচেয়ে বেশি জরুরি। যদি ভাবেন থিকভাবে নেইল পলিশ অ্যাপ্লাই করলেই সেটি লং লাস্টিং করবে তাহলে একদমই ভুল ভাবছেন। থিক কোট অ্যাপ্লাই করলে শুকাতেও যেমন সময় লাগে, তেমন উঠেও আসে খুব সহজে। তাই সব সময় থিন লেয়ার ইউজ করুন। ওভার লেয়ারিং নেইল পেইন্টকে দ্রুত দুর্বল করে দেয়।

থিন কোট অ্যাপ্লাই

২) রাইট ওয়েতে অ্যাপ্লাই করুন

নেইল পেইন্ট অ্যাপ্লাইয়ের সময় নখের কোনো অংশ বাদ যাচ্ছে কিনা ভালো করে খেয়াল করুন। কোণার অংশগুলোতে বেশি খেয়াল রাখুন কারণ এসব জায়গা থেকেই নেইল পলিশ উঠে যাওয়া শুরু করে। যদি মনে হয় নখে অ্যাপ্লাই ভালো হয়নি, তবে মুছে আবার নতুন করে অ্যাপ্লাই করুন।

৩) নখ ছোট রাখুন

নেইল কালার বেশি সময় স্টে করাতে চাইলে নখ ছোট রাখতে হবে। লম্বা নখ সহজেই ভেঙে যায়। শর্ট নেইলস মেনটেইন করা সহজ।

৪) প্রতি কোটের মাঝে গ্যাপ দিন  

নেইল পেইন্ট করার সময় আমরা দ্রুত ২/৩টি কোট দিয়ে দেই, সাথে ফ্ললেস ফিনিশও চাই। কিন্তু প্রথমবারের ফিনিশিংটা যদি ভালোভাবে না শুকায়, তাহলে কখনোই শেষ ফিনিশিং ভালো হবে না। প্রথম কোটের পর যদি আরও ২/৩টা কোট লাগে তাহলে প্রতিবার কোট দেওয়ার সময় অন্তত দুই মিনিটের একটি গ্যাপ রাখুন। এছাড়া দুই তিনদিন পর পর একবার করে অ্যাপ্লাই করলেও লং লাস্টিং এর সম্ভাবনা বাড়বে।

৫) কাজের সময় নখ ঢেকে রাখুন

আপনাকে যদি রেগুলার ঘরের কাজ করতে হয়, তাহলে নখের সুরক্ষার জন্য অবশ্যই রাবার গ্লভস ব্যবহার করতে হবে। পানির কাজ করার সময় সাবান ব্যবহার করার কারণে নখ দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। নেইল পেইন্ট লং লাস্টিং করার জন্য নখ যেন সাফার না করে সেজন্য সবার আগে সেটি নিশ্চিত করতে হবে।

ঠান্ডা বাতাসে নেইল পলিশ শুকানো

৬) ঠান্ডা বাতাসে নখ শুকিয়ে নিন

নেইল পলিশ কখনো হট এয়ার দিয়ে শুকানো যাবে না। হাতে গরম বাতাস লাগলে দ্রুত শুকাবে এ ধারণা একদম ভুল। হট এয়ার নেইলসকে ভালোভাবে শুকাতে দেয় না। বরং এতে পেইন্ট নখে জমে গিয়ে বাবল তৈরি হতে পারে। এমন হলে নেইল পলিশ উঠে আসে খুব সহজে। এর চেয়ে ঠান্ডা বাতাসে ড্রাই করে নেওয়া ভালো। ফ্যানের বাতাসে অথবা ড্রায়ারের নরমাল এয়ার দিয়েও নেইল পেইন্ট শুকিয়ে নেওয়া যায়।

৭) কিউটিকলস ক্লিন রাখুন 

নেইল পলিশ লাগানোর সময় কিউটিকলসে লেগে যেতে পারে। মনে রাখবেন, নখে যেভাবে নেইল পলিশ বসে, স্কিনে কিন্তু সেভাবে বসে না। আর তাই, খুব সহজেই উঠে আসে। তাই কিউটিকলে নেইল পলিশ লেগে গেলে একটি কটন বলে রিমুভার লাগিয়ে সাবধানে উঠিয়ে ফেলতে হবে।

কিউটিকল ময়েশ্চারাইজ রাখা

৮) নখ ময়েশ্চারাইজ রাখুন 

নেইল পলিশ নিয়মিত লাগাচ্ছেন, কিন্তু নখ ময়েশ্চারাইজড রাখার জন্য কোনোরকম নারিশমেন্ট প্রোভাইড করছেন না তাহলে বেটার রেজাল্ট কীভাবে আসবে বলুন তো? শরীরের অন্যান্য অঙ্গের মতো নখকেও আলাদা অ্যাটেনশন দিতে হবে। কারণ নারিশমেন্টের অভাবে নখে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর মধ্যে নেইল পলিশ লং লাস্টিং না হওয়াও একটা। তাই নিয়ম করে কিউটিকল অয়েল বা হ্যান্ড ক্রিম ব্যবহার করুন। হ্যান্ড ক্রিম অনেকটা সানস্ক্রিনের মতো কাজ করে। নখের পোস্ট মেনিকিওর আসলে এটাই। দিনে অন্তত দুইবার হাতে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে নখ ভালো থাকবে।

৯) নখ কামড়াবেন না 

আপনি কি মনের অজান্তেই নখ কামড়াতে থাকেন? এই অভ্যাস কিন্তু মোটেই নখ ভালো রাখে না! নেইল পলিশ লাগানোর পর যদি নখ কামড়ানো হয়, তাহলে নখ ভাঙতে থাকবে, নেইল পলিশ লং লাস্টিংও হবে না।

১০) পানিতে হাত ভেজাবেন না 

লং লাস্টিং করতে চাইলে নেইল পলিশ অ্যাপ্লাইয়ের আগে হাত ধোয়া যাবে না। কারণ নখ পানিতে ভিজিয়ে নিলে স্ট্রেচ হয়। আবার শুকিয়ে গেলে সংকুচিত হয়ে যায়। যার কারণে নেইল পলিশ শুষ্ক হয়ে উঠে আসতে থাকে।

নেইল পলিশ অ্যাপ্লাইইয়ের আগে হাত না ধোয়া

এই তো জেনে নিলেন নেইল পলিশ লং লাস্টিং করার কয়েকটি হ্যাকস সম্পর্কে। তাহলে এবার নিশ্চয়ই পছন্দের নেইল পলিশটি কতক্ষণ স্টে করবে তা নিয়ে ভাবতে হবে না! হ্যাকস নিয়ে যখন জানালাম তখন আমার রিসেন্ট ফেভারিট নেইল পলিশ নিয়েও জানিয়ে দেই আপনাদের। নিরভানা ব্র্যান্ডের ২৫টি শেইড বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে Sweet Shadow, I Am Jealous, Naughty Hand, Dreams For You নেইল এনামেলগুলো আমার মোস্ট ফেভারিট। নিউট্রাল, প্যাস্টেল থেকে ব্রাইট, শিমারিসহ ডিফারেন্ট শেইডের নেইল পলিশই আছে নিরভানা ব্র্যান্ডে। আর হ্যাঁ, এর অ্যাপ্লিকেশন কিন্তু একদম স্মুথ, একইসাথে লং লাস্টিংও! এ জন্যই এটি আমার পছন্দের তালিকায় শীর্ষে। আউটফিট আর মেকআপের সাথে মিলিয়ে পছন্দের শেইডটি বেছে নিতে পারেন আপনিও!

নেইলপলিশসহ বিউটি, স্কিন, হেয়ারের সব ধরনের অথেনটিক প্রোডাক্টসের জন্য আমার ভরসার জায়গা সাজগোজ। আপনিও আপনার পছন্দের পণ্যটি কিনতে পারেন এখান থেকে। পণ্য কেনার জন্য অনলাইনে শপ.সাজগোজ.কম আর সরাসরি কিনতে চাইলে যমুনা ফিউচার পার্ক ও সীমান্ত সম্ভার থেকেও ঘুরে আসতে পারেন।

ছবিঃ সাজগোজ

10 I like it
1 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...