ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি রাখুন ত্বকের যত্নে!

ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ত্বকের যত্নে রাখুন ভিটামিন সি!

ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি রেঞ্জ ত্বকের যত্নে ব্যবহার করছেন একজন

আচ্ছা, ব্রাইট ও হেলদি স্কিন বলতে আমরা কেমন স্কিনকে বুঝি, বলুন তো? এমন স্কিন যেখানে থাকবে না কোনো দাগ বা স্পট। সাথে নেই একনে বা ব্লেমিশ এর মত সমস্যাও! মেকআপ করা ছাড়াই ফেইসটাকে দেখতে লাগবে খুবই প্রাণবন্ত এবং দীপ্তিময়, তাই না? কিন্তু এমন ফেইস পাওয়া কী আসলেও সম্ভব? সম্ভব! স্কিন কেয়ারে নিয়মিত কিছু স্টেপস ফলো করলে এবং এসকল সমস্যাগুলোকে টার্গেট করে সমাধান দেয় এমন ইনগ্রেডিয়েন্ট যেমন; ভিটামিন সি স্কিন কেয়ারে রাখলে ধীরে ধীরে ব্রাইট ও হেলদি স্কিন পাওয়া সম্ভব। তাই আজকে আমরা জানবো, ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি এর বেনিফিটস এবং ভিটামিন সি যুক্ত কার্যকরী কিছু স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে।

স্কিন কেয়ার জুড়ে থাকুক ভিটামিন সি

আমাদের মধ্যে অনেকেরই ভিটামিন সি যুক্ত স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করার ইচ্ছা থাকলেও, নানা রকম কনফিউশন থাকার কারণে স্কিন কেয়ার রুটিনে তা যোগ করছি না। কিন্তু কেমন হয় যদি দিনের শুরু থেকে শেষটা জুড়েই ভিটামিন সি ব্যবহার করা যায় নিশ্চিন্তে? তাই আজকে আমরা জানবো, এই সময়ে সবার খুব পছন্দের একটি ব্র্যান্ড “Zyan & Myza” এর “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জ নিয়ে। এতে থাকা প্রোডাক্টগুলো নিয়ে জানার আগে চলুন জেনে নেই, স্কিনকে হেলদি এবং ব্রাইট করতে “ভিটামিন সি” কীভাবে কাজ করে সেটা নিয়ে। তাহলে শুরু করা যাক!

ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি কীভাবে কাজ করে?

একটি কমলালেবু ফালি নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন একজন

১) ভিটামিন সি আমাদের স্কিনের কোলাজেন প্রোডাকশনকে উদ্দীপিত করে, যা ত্বকের ফাইন লাইনস বা রিংকেলস কমিয়ে দেয়।

২) আমাদের স্কিনে যে মেলানিনের প্রোডাকশন হয় সেটা কন্ট্রোল করতে ভিটামিন সি এর জুড়ি নেই।

৩) পাশাপাশি, ভিটামিন সি আমাদের ত্বকের হাইপার পিগমেন্টেশন ও বিভিন্ন দাগ দূর করে। আনইভেন স্কিনটোনকে ইভেন করে।

৪) সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে আমাদের ত্বকে যে ক্ষতি হয়, তা রিপেয়ার করতে সাহায্য করে।

৫) ত্বকের রুক্ষতা বা ডালনেস দূর করে ত্বককে করে প্রাণবন্ত ও উজ্জ্বল।

“ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জ দিয়ে ত্বকের যত্ন  

স্কিন কেয়ার রুটিনে যাদের ভিটামিন সি খুবই পছন্দের একটি ইনগ্রেডিয়েন্ট, তাদের জন্যে Zyan & Myza এর “ব্রাইট মি আপ” কনসেপ্টটি হতে পারে চমৎকার একটি সল্যুশন। কীভাবে? চলুন জেনে নেয়া যাক।

“ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জটি স্মল মলিকিউল ফর্মুলায় তৈরি

কী এই স্মল মলিকিউল ফর্মুলা?

খুব সহজ করে বললে, কোন প্রোডাক্ট যদি আসলেও আমাদের স্কিনে ইফেক্টিভ ভাবে কাজ করতে চায় তবে এতে, স্কিন পেনিট্রেশন প্রোপারটির উপস্থিতি থাকা খুবই জরুরী। মাইক্রোস্কোপিক অণুর চেয়ে ছোট এই প্রোপারটিগুলো স্কিনের যত্নে ব্যবহার হওয়া ইনগ্রেডিয়েন্টকে দ্রুত স্কিনের সাথে এডজাস্ট করতে হেল্প করে। পাশাপাশি স্কিনের সমস্যা কমিয়ে কত দ্রুত ইফেক্টিভ রেজাল্ট দিতে পারবে সেটাও ইনসিওর করে। মলিকিউলগুলো যত বড় হবে, স্কিনে এডজাস্ট হতে তত বেশি সময় লাগবে।

Zyan & Myza এর “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জটিতে যেহেতু স্মল মলিকিউল ফর্মুলা রয়েছে, তাই এটি অতি দ্রুত আমাদের স্কিনের ডিপ লেয়ারে পৌঁছে স্কিনের সমস্যাকে টার্গেট করে কাজ করে। এর ফলে আমরা খুব দ্রুত স্কিনে একটি ব্রাইট ও হেলদি ইফেক্ট দেখতে পাই। Zyan & Myza এর স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টগুলো লো মলিকিউলার ওয়েট দিয়ে তৈরি করা হয়। পাশাপাশি “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জটিতে রয়েছে ৩-ও-এথিল অ্যাসকরবিক অ্যাসিড, যা ভিটামিন সি এর একটি ডেরিভেটিভ। এটি ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে এবং ত্বকের স্পেসিফিক সমস্যাকে টার্গেট করে কাজ করে।

Zyan & Myza ব্র্যান্ডের ক্লেইম 

 Zyan & Myza ক্লেইম করে, “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জের ৪টি প্রোডাক্টই-

  • ১০০% ভেজিটেরিয়ান
  • পি.এইচ নিওট্রাল
  • কোনো স্কিন ইরিটেশন ফিল হবে না
  • অ্যালকোহল ফ্রি
  • সব ধরনের স্কিনের জন্যে স্যুইটেবল
  • ক্ষতিকর কোনো ক্যামিকেল ব্যবহার করা হয়নি
  • ডার্মাটোলোজিক্যালি টেস্টেড
  • ইউনিসেক্স প্রোডাক্ট

“ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জের স্টেজ এবং স্টেপগুলো কী কী?

“ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জটি কীভাবে কাজ করে এবং এর স্পেশালিটি নিয়েতো জানলাম। এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জের স্টেজ এবং স্টেপগুলো কী কী সেটা নিয়ে।

ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি ফেইসওয়াশ ব্যবহার করছেন একজন

স্টেপ ১: ক্লেনজার

“ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জের প্রথমেই রয়েছে ভিটামিন সি যুক্ত একটি ফেইস ওয়াশ। যেটির নাম, BRITE ME UP VITAMIN C FOAM CLEANSER।

এই ফেইস ওয়াশের ফিচার এবং বেনিফিটগুলো কী কী? 
  • ফেইস ওয়াশের মুখে থাকা অ্যাপ্লিকেটর ত্বককে ক্লিন করার পাশাপাশি স্কিনের ব্লাড সার্কুলেশন বাড়াতে হেল্প করবে।
  • ত্বকের ডিপ লেয়ার পর্যন্ত যেয়ে ক্লিন করবে।
  • মেকআপ এবং ডেড সেলস রিমুভ করতে হেল্প করে।
  • স্কিনকে ড্রাই করবে না।
  • ওপেন পোরস মিনিমাইজ এবং একনে ব্রেকআউট রিপেয়ার করে।

স্টেপ ২: এক্সফোলিয়েট

দ্বিতীয় স্টেপে থাকছে, BRITE ME UP VITAMIN C KAOLIN MASK। এটি ত্বকের এক্সফোলিয়েশনে খুব ভালো কাজ করে। বেস্ট রেজাল্ট পাওয়ার জন্য সপ্তাহে এক থেকে দুইবার ব্যবহার করতে হবে। তবে মাস্কটি অ্যাপ্লাই করার আগে অবশ্যই স্কিনকে ভালোভাবে ক্লিন করে নিতে হবে।

Zayn & Myza Brite Me Up Vitamin C Kaolin Mask

এই ফেইস মাস্কের ফিচার এবং বেনিফিটগুলো কী কী?
  • কাওলিন একটি জেন্টল ফেসিয়াল ক্লে, যা আমাদের ত্বক থেকে ময়লা, ডেড সেলস এবং ব্যাকটেরিয়া দূর করে।
  • অয়েল কন্ট্রোল করে এবং ব্রণ কমাতে হেল্প করে।
  • এছাড়াও স্কিনের ড্রাইনেস কমিয়ে আনে।
  • স্কিনটোন ইভেন করতে হেল্প করে।

স্টেপ ৩: সিরাম

স্কিন কেয়ারে আমাদের অনেকের কাছেই ভিটামিন সি যুক্ত সিরাম খুবই পছন্দ। তাদের জন্যে এ সিরামটি নিঃসন্দেহে একটি বেস্ট অপশন। সিরামটি ব্যবহারের আগে অবশ্যই প্যাচ টেস্ট করে নিতে হবে। ভালো রেজাল্ট পাওয়ার জন্যে প্রতিদিন একবার এই সিরামটি ব্যবহার করবেন। যদি স্কিনে স্যুট করে সেক্ষেত্রে সকালে এবং রাতে দুইবার ব্যবহার করতে পারেন। ড্রপারের সাহায্যে ৩ থেকে ৪ ড্রপ ফেইসে অ্যাপ্লাই করে, হাত দিয়ে ড্যাব করে ত্বকের সাথে মিলিয়ে নিতে হবে। সিরাম অ্যাপ্লাই এর আগে ফেইস ভালোভাবে ক্লিন করে নিতে হবে।

এই সিরামের ফিচার এবং বেনিফিটগুলো কী কী?
  • Zyan & Myza এর এই ভিটামিন সি যুক্ত সিরামটি কাকাডু প্লাম দিয়ে তৈরি, যা কমলার তুলনায় ১০০ গুণ বেশি ভিটামিন সমৃদ্ধ।
  • এর স্মল মলিকিউল ফর্মুলার কারণে প্রোডাক্ট স্কিনের সাথে দ্রুত মিশে যায় এবং নন-স্টিকি।
  • এটি ফ্রি রেডিক্যাল এর সাথে ফাইট করে এবং স্কিনকে রাখে হাইড্রেটেড।
  • বয়সের ছাপ বা বলিরেখা কমিয়ে আনে।
  • স্কিনকে করে ভেতর থেকে উজ্জ্বল।
  • ত্বকের ব্লেমিশ এবং ব্রেকআউট দূর করে।

Zayn & Myza Brite Me Up Vitamin C Face Serum

স্টেপ ৪: ময়েশ্চারাইজার

ফেইস ভালোভাবে ক্লিন করে, ফেইস মাস্ক এবং সিরাম অ্যাপ্লাই করার পর এবার BRITE ME UP VITAMIN C NIGHT CREAM নাইট ক্রিমটি অ্যাপ্লাই করে স্কিনের ময়েশ্চার লক করুন। হেলদি এবং ব্রাইট স্কিন পেতে প্রতিদিন রাতে সিরাম অ্যাপ্লাই করার পর নাইট ক্রিম ব্যবহার করতে হবে।

এই নাইট ক্রিমের ফিচার এবং বেনিফিটগুলো কী কী?
  • Zyan & Myza এর নাইট ক্রিমটি ত্বকের কোলাজেন উৎপাদনকে উদ্দীপিত করে, যা ত্বককে টাইট এবং ব্রাইট করতে হেল্প করে।
  • এর নন-স্টিকি ফর্মুলা এবং এতে থাকা মুরুমুরু আর শিয়া বাটার স্কিনকে সফট এবং হাইড্রেটেড রাখে।
  • স্কিনের ড্যামেজ রিপেয়ারে সাহায্য করবে।
  • এটি ফ্রি রেডিক্যাল এর সাথে ফাইট করে স্কিনে ন্যাচারাল ব্রাইটনেস এনে দিবে।
  • এছাড়াও এতে থাকা মুরুমুরু বাটার স্কিন হিলিংয়ে কাজ করে।

Zayn & Myza Brite Me Up Vitamin C Night Cream

ভিটামিন সি ব্যবহারকালীন কিছু সতর্কতা

১/ দিনের বেলায় সানস্ক্রিন ব্যবহার করা কিন্তু মাস্ট। চেষ্টা করবেন অবশ্যই বেশি এস.পি.এফ যুক্ত অর্থাৎ ৩০ প্লাস বা ৫০ এর কাছাকাছি এস.পি.এফ যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে।

২/ ব্যবহারের আগে স্কিনের জন্য প্যাচ টেস্ট করে নেয়া অত্যন্ত জরুরী।

৩/ সিরাম এবং নাইট মাস্ক ব্যবহারের আগে স্কিনকে অবশ্যই প্রোপারলি ক্লিন রাখতে হবে।

৪/ সিরাম এবং নাইট মাস্ক ব্যবহারের পর অব্যশ্যই স্কিন টাইপ অনুযায়ী ভালোমানের একটি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

৫/ ভিটামিন সি যুক্ত এই প্রোডাক্টগুলো ব্যবহারকালীন কোনোভাবে যদি স্কিনে ইরিটেশন বা অন্যান্য সমস্যা দেখা দেয় তবে, তাৎক্ষনিকভাবে ব্যবহার করা বন্ধ রাখতে হবে।

৬/ টিনেজারদের জন্যে এই রেঞ্জ-এর সিরামটি ব্যবহার না করাই ভালো। যাদের বয়স ২০ বা এর বেশি তারা এই রেঞ্জটি নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারবেন।

 

যদিও, ফেইসে দাগ বা পিগমেন্টেশন আমাদের অনেকের জন্যেই খুব কমন একটি সমস্যা। একনে বা ব্রণ চলে যায় কিন্তু রেখে যায় বিরক্তিকর দাগ বা স্পট। আশা করছি Zyan & Myza এর “ব্রাইট মি আপ” ভিটামিন সি রেঞ্জটি ব্যবহার করে খুব সহজেই এমন কমন কিছু সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। ব্রাইট এবং হেলদি স্কিন পেতে ভিটামিন সি কতটা উপকারী, সেটা আজ আমরা জেনে নিলাম। অথেনটিক স্কিনকেয়ার প্রোডাক্টস কিনতে আপনারা চাইলে সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত, সেখান থেকে কিনতে পারেন আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন।

ছবি- সাজগোজ

18 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...