শুষ্ক ত্বক বা ড্রাই স্কিনের জন্য কার্যকরী ৫টি ফেইস ওয়াশ

ড্রাই স্কিনের জন্য ৫টি ফেইস ওয়াশ

1

ড্রাই স্কিনের জন্য ভালো একটি ফেইস ওয়াশ দেখান খুঁজছেন? আমাদের যাদের ত্বক শুষ্ক বা ড্রাই তাদের জন্য এমন ক্লিনজার বা ফেইস ওয়াশ, যা ত্বককে ড্রাই করে ফেলবে না। ত্বককে ক্লিন করার পাশাপাশি ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখবে এমন ফেইস ওয়াশ শুষ্ক ত্বকের জন্য সবাই চাই। তাই আজকে আপনাদের বলব, ড্রাই স্কিনের জন্য ৫টি ফেইস ওয়াশ নিয়ে।

ড্রাই স্কিনের জন্য ৫টি ফেইস ওয়াশ

1. Cerave Hydrating Cleanser For Normal To Dry Skin

শুষ্ক ত্বকের জন্য সব থেকে দরকার হচ্ছে ত্বকের হাইড্রেশন। এই ফেইস ওয়াশটি নরমাল থেকে শুষ্ক ত্বকের জন্য উপযোগী।

১। ডিহাইড্রেটেড কিংবা ব্রণযুক্ত ত্বকের জন্য এই ফেইস ওয়াশটি উপযুক্ত।

২। ব্যবহারে কোন ধরনের জ্বালা-পোড়া হয় না।

৩। এতে রয়েছে হায়ালুরনিক অ্যাসিড রয়েছে, যা ত্বককে হাইড্রেট করতে সাহায্য করে।

৪। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রেখে ত্বক থেকে ময়লা বের করে আনে।

2. Rajkonna Glow Booster Facial Wash With Jojoba Beads

এই ফেইসওয়াশে রাইস এবং টেঞ্জারিন নামক ২টি উপাদান রয়েছে। এটি যেকোন ত্বক বিশেষ করে, সেন্সেটিভ এবং শুষ্ক ত্বকের জন্য বিশেষ ভাবে উপযোগী।

১। রাইসে আছে ভিটামিন এ, ই, সি ছাড়াও ইনসিটল নামক (inositol) অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট থাকে, যা সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে।

২। এই ফেইস ওয়াশটি ত্বকে অ্যান্টি এজিং এর কাজ করে। চোখের নিচের ভাঁজ, ফাইন লাইনস দূর করতে সাহায্য করে।

৩। টেঞ্জারিনে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যার ফলে ত্বকের একনি স্পট, ডার্ক স্পট কিংবা পিগমেন্টেশন থাকলে দিন দিন তা কমে আসতে থাকে। আর এতে ন্যাচারালি ত্বক অনেক বেশি উজ্জ্বল দেখায়।

৪। এছাড়া এই ফেইস ওয়াশটি ত্বককে এক্সফোলিয়েট করে, কারণ এতে আছে জোজোবা বিডস। জোজোবা বিডস ত্বকের মৃত কোষ পরিষ্কার করার সাথে ভেতর থেকে ত্বককে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।

৫। আর এটি জেন্টাল ক্লিনজার হওয়ায় সব বয়েসের মানুষ ব্যবহার করতে পারবে।

3. LILAC Brightening Face Wash Dry and Sensitive Skin

এই ফেইস ওয়াশটি প্রাকৃতিক ইনগ্রেডিয়েন্টস দিয়ে তৈরি হয়েছে। এতে আছে গ্রিনটি এবং অ্যালোভেরা, যা ড্রাই এবং সেন্সেটিভ ত্বকের জন্য উপযোগী।

১। এই ফেইস ওয়াশটিতে থাকা গ্রিন টি ত্বকের ইরিটেশন কমায়।

২। এতে থাকা অ্যালোভেরা ত্বকে অ্যান্টি এজিং এর কাজ করে। এছাড়া কোন রকম পিগমেন্টশন থাকলে সেটাও কমিয়ে আনে।

৩। সান-বার্ন কমিয়ে আনতে সাহায্য করে এবং ব্লেমিস দূর করে।

4. The Body Shop Vitamin E Gentle Facial Wash

এই ফেইস ওয়াশটিতে ভিটামিন-ই থাকার সাথে গমের তেল (Wheat germ oil) রয়েছে। একসাথে এই দুইটি উপাদানের বেনিফিটস পাওয়া যায়। ফেইস ওয়াশটি ত্বকে ডিপলি পরিষ্কার করে এবং ত্বককে নরম ও সতেজ করে।

১। ফেইস ওয়াশটি লাইট এবং ক্রিমি টেকশ্চারের।

২। ত্বককে ময়েশ্চারাইজড এবং হাইড্রেটেড রাখে।

৩। ত্বকের ন্যাচারাল অয়েল ধরে রাখে।

৪। ত্বককে নারিশমেন্ট দিয়ে থাকে।

৫। বেইজ মেকআপ পরিষ্কার করতে খুব ভালো একটি ফেইস ওয়াশ। সহজেই মেকআপ পরিষ্কার হয়ে আসে।

5. Cetaphil Gentle Foaming Cleanser

যারা একটু ফোম টেক্সচারের ফেইস ওয়াশ পছন্দ করেন, তারা Cetaphil Gentle Foaming Cleanser-টি বেছে নিতে পারেন।

১। ত্বককে হেলদি করার পাশাপাশি সফটও করবে।

২। ব্যবহারের পর ফেইস একদম ড্রাই হবে না।

৩। গ্লিসারিন থাকায় ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখে।

৪। ব্যবহারে ত্বকে কোন রকম জ্বালা-পোড়া বা ইরিটেশন ফিল হয় না।

৫। পোরস ক্লগ করে না।

৬। এই ফেইস ওয়াশটি প্যারাবেন ফ্রি।

ড্রাই বা শুষ্ক ত্বকের জন্য এই ফেইস ওয়াশগুলো বেশ ভালো। আশা করি, আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের জন্য হেল্পফুল হবে।

স্কিন ও হেয়ার কেয়ারের জন্য অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে চাইলে আপনারা সাজগোজের দুটি ফিজিক্যাল শপ ভিজিট করতে পারেন, যার একটি যমুনা ফিউচার পার্ক ও অপরটি সীমান্ত স্কয়ারে অবস্থিত। আর অনলাইনে কিনতে চাইলে শপ.সাজগোজ.কম থেকে কিনতে পারেন। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন, সুন্দর থাকবেন।

39 I like it
6 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...