ত্বকের পরিচর্যায় ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার পিম্পল ক্লিয়ারিং ফেইসওয়াশ ! - Shajgoj ত্বকের পরিচর্যায় ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার পিম্পল ক্লিয়ারিং ফেইসওয়াশ ! - Shajgoj

ত্বকের পরিচর্যায় ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার পিম্পল ক্লিয়ারিং ফেইসওয়াশ !

মার্চ ২৭, ২০১৬

ত্বকের যত্নে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে পরিচ্ছন্নতা। ত্বক ঠিক মত পরিষ্কার না করলে ব্রণ, ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডসসহ বিভিন্ন ধরনের ত্বকের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় যা ত্বকের মারাত্বক ক্ষতি সাধন করে।তাই নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার রাখা অত্যাবশ্যকীয়।আর এক্ষেত্রে যে নামটি সবার আগে আসে তা হচ্ছে ফেইসওয়াশ। নিয়মিত ত্বক পরিচর্যায় ফেইসওয়াশের যেমন কোন বিকল্প নেই তেমনি সঠিক ফেইসওয়াশ বেছে নেয়ার ক্ষেত্রে ভোগান্তিরও শেষ নেই।ত্বকের সঙ্গে মানানসই হওয়ার সাথে সাথে সাধ্যের মধ্যে থাকাটাও যে জরুরি। আবার কারো দুশ্চিন্তা ব্রণ নিয়ে, তো কারো সংবেদনশীল ত্বক নিয়ে।তাই আজ এমন একটি  ফেইসওয়াশ নিয়ে লিখব যাকে এক কথায় সব সমস্যার এক সমাধান বলাই যায়।

c&c pf 1c&c pf 2

ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার পিম্পল ক্লিয়ারিং ফেইসওয়াশ 

যদিও এটি মূলত যারা ব্রণের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য বিশেষ উপযোগী কিন্তু সব ধরনের ত্বকের অধিকারী ব্যক্তি ব্যবহার করতে পারেন। এতে রয়েছে নিম ও লেবুর নির্যাস যা যেকোন ত্বকের জন্যই উপকারী। এই ফেইসওয়াশ টি নিয়মিত ব্যবহারে ব্রণের উপর দারুণ কাজ করে। ব্যবহারের প্রথম সাতদিনেই সে পরিবর্তন আপনি নিজেই লক্ষ্য করতে পারবেন। এছাড়া এটি সম্পূর্ণ ক্ষতিকর কেমিকেল ও প্যারাবেন মুক্ত। আর অন্যান্য অনেক এন্টি একনে ফেইসওয়াশের মত কড়া গন্ধযুক্তও নয়। তাই যাদের ত্বক অত্যন্ত সংবেদনশীল তারাও ফেইসওয়াশটি নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন।

ফেইসওয়াশটি মূলত জেল বেসড তাই যে কোন ত্বকের সাথে খুব সহজেই মানিয়ে যায়। ত্বক ভেজা অবস্থায় মটরদানার পরিমান ফেইসওয়াশ নিয়ে আলতোভাবে লাগালেই এটি ফোমে রূপান্তরিত হয়।তাই দিনে দুই বার ব্যবহারে ত্বকে লেগে থাকা সব ধরনের ময়লা নিমিষে দূর করে ত্বককে করে তোলে প্রাণবন্ত। এছাড়া তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত তেল তুলে ফেলে ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে। ফলে ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডসের হাত থেকেও ত্বককে রক্ষা করে।

c&c pf 3c&c pf 4

আমার মত যারা আগে হিমালয়ার নিম ফেইসওয়াশটি ব্যবহার করেছেন তারা হয়ত খেয়াল করে দেখবেন যে জেল বেসড ফেইসওয়াশ সহজে ধোয়া যায় না। অনেকক্ষণ ধরে পানি দিয়ে ধোবার পরও যেন ত্বকে লেগে থাকে। এতে ত্বকের বিশেষ ক্ষতি হতে পারে। কিন্তু এক্ষেত্রে তা সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। খুব সহজে ও কম সময়ে ফেইসওয়াশটি ধুয়ে ফেলা যায়। তাই যে কোন শিক্ষার্থী কিংবা কর্মজীবী নারী যাদের হাতে ত্বকের পরিচর্যার জন্য সময় খুব কম থাকে তারা অনায়াসেই এই ফেইসওয়াশটি ব্যবহার করতে পারেন।

এক নজরে এই ফেইসওয়াশ ব্যবহারের ভাল দিক

  • ব্রণ সমস্যার কার্যকরী সমাধান।
  • সব ধরনের ত্বকের উপযোগী।
  • সহজে বহনযোগ্য। তাই নিজের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের সাথে যে কোন জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায়।
  • পরিমানে কম লাগে বলে চলেও অনেকদিন।
  • দামে সাশ্রয়ী।

এত গুণাগুণ সমৃদ্ধ ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার পিম্পল ক্লিয়ারিং ফেইসওয়াশ দামে অনেক সাশ্রয়ী। মাত্র ২৩০ টাকায় আপনি এটি পেতে পারেন। আমি একটি অনলাইন শপ থেকেফেইসওয়াশটি কিনেছি। যে কোন ভাল সুপারশপ কিংবা শপিংমল থেকেও আপনার কাঙ্ক্ষিত ফেইসওয়াশটি কিনে নিতে পারেন।

লিখেছেন –  মুশরাত জাহান দোলা