৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন করতে ৫টি কার্যকরী ব্যায়াম

৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন করতে ৫টি কার্যকরী ব্যায়াম

৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন

কোন উৎসব  বা অনুষ্ঠানে যাবেন কিন্তু পছন্দের জামাটি ফিট হচ্ছে না, এ সমস্যাটি আজকাল সব মেয়েদেরই হয়ে থাকে। বাড়তি মেদ কী করে কমানো যায় তা নিয়ে যেন চিন্তার শেষ নেই। এ সমস্যাটির জন্য পছন্দনীয় কাপড় কিংবা পছন্দের সাজ দিতে পারছেন না, তা কোনভাবেই কাম্য না। তাই আজকে আমরা আপনাদের জানাবো কিছু সহজ কার্যকরী ব্যায়াম ,যার সাহায্যে মাত্র ৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন করতে পারবেন। তো চলুন জেনে নেই কীভাবে করবেন খুব সহজে ৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন!

৩০ মিনিটেই ৫০০ ক্যালোরি বার্ন করার সহজ ব্যায়াম

নিচের ব্যায়ামগুলোর মাধ্যমে খুব সহজেই মাত্র ৩০ মিনিটেই বার্ন করতে পারেন ৫০০ ক্যালোরি।

(১) দৌড়ানো

এটি ওজন কমানোর সবচেয়ে সহজ এবং কার্যকরী ব্যায়াম। গবেষণায় দেখা গেছে যে গড় ওজনের একজন ব্যক্তি প্রতি মাইল দৌড়ে প্রতিবার ১00 ক্যালরি বার্ন করে। আপনি যদি ৩০ মিনিটে ৫ মাইল দৌড়ান তাহলে প্রতি মাইলে ১০০ ক্যালোরি করে ৫০০ ক্যালোরি বার্ন করতে পারবেন। তবে যদি আপনি দ্রুত গতিতে দৌড়ান তাহলে ক্যালোরি বার্নের পরিমাণ বাড়বে না। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওল্ড ডমিনিয়ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েলনেস ইনস্টিটিউট এবং গবেষণা কেন্দ্রের গবেষকদের মতে- “এক মাইল ধরে বার্ন হওয়া ক্যালোরির পরিমাণ এখনও প্রায় একই রয়েছে।”

(২) কেটলবেল প্রশিক্ষণ

আমেরিকান কাউন্সিল অন এক্সারসাইজের একটি ২০১০ সমীক্ষায় দেখা গেছে  যে, একটি সাধারণ কেটলবেল ওয়ার্কআউট প্রতি মিনিটে ২০ ক্যালোরি বার্ন করে এবং ২০ মিনিটের মধ্যে ৪০০ ক্যালোরি বার্ন করে। এই গবেষণাটি ২৬-২৯ বছর বয়সী পুরুষ এবং মহিলাদের উপর পরিচালিত হয়েছিল। উইসকনসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা অনুসারে এই ওয়ার্কআউটটি আপনার হার্টের পাম্পের ধারণক্ষমতা ৯৩ শতাংশে বাড়িয়ে তোলে। প্রতিদিন ৩০ মিনিট এই ওয়ার্কআউটটি করলে আপনার ৫০০ ক্যালোরি খুব সহজেই বার্ন হয়ে যাবে।

(৩) তাবাতা (Tabata)

এটি খুবই কার্যকরী একটি ব্যায়াম। জাপানের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ফিটনেস এন্ড স্পোর্টসের একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, যারা  সপ্তাহে পাঁচ দিন তাবাতা করেছেন তাদের দিনে সর্বাধিক ১২০০ ক্যালোরি বার্ন হয়েছে। এটি শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে, প্রচুর পরিমাণে ল্যাকটিক অ্যাসিড এবং গ্রোথ হরমোন তৈরি করে, যা ফ্যাট বার্ন প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করতে বাধ্য করে।

(৪) হাই ইন্টেন্সিটি ইন্টার্ভাল ট্রেনিং (HIIT)

যারা খুব জলদি ক্যালোরি বার্ন করতে চাইছেন তাদের জন্য হাই ইন্টেন্সিটি ইন্টার্ভাল ট্রেনিং অর্থাৎ HIIT খুবই উপযোগী। যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন-লা ক্রোসে বিশ্ববিদ্যালয়ের হিউম্যান পারফরম্যান্স ল্যাবরেটরির ২০১৫ সালের সমীক্ষা অনুসারে, হাই ইন্টেন্সিটি ইন্টার্ভাল ট্রেনিং (HIIT) আপনাকে গড়ে প্রতি মিনিটে ১৫ ক্যালোরি বার্ন করতে সহায়তা করবে। প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে হাই ইন্টেন্সিটি ইন্টার্ভাল ট্রেনিং করলে আপনার ৪৫০ ক্যালোরি বার্ন হবে।

(৫) স্কিপিং বা দড়ি লাফ

 

স্কিপিং বা দড়ি লাফের সাহায্যে খুব সহজেই আপনার শরীরের বাড়তি ক্যালোরি বার্ন করতে পারেন। ব্রিটিশ রোপ স্কিপিং অ্যাসোসিয়েশন অনুসারে স্কিপিংয়ের এক ঘন্টা ১৩০০ ক্যালোরি বার্ন করতে পারে। এটি ৩০ মিনিটের মধ্যে ৫০০ ক্যালোরিরও বেশি। বিশ্বজুড়ে ক্রীড়াবিদরা স্কিপিং বা দড়ি লাফকে তাদের ফিটনেস রুটিনে প্রিয় হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেছেন।

দেখলেনতো কিভাবে খুব সহজেই মাত্র ৫টি কার্যকরী ব্যায়ামের সাহায্যে ৩০মিনিটেই ৫০০ক্যালোরি বার্ন করতে পারবেন। নিয়মিত ব্যায়াম করুন ফিট থাকুন, সুস্থ থাকুন!

 

ছবি- সংগৃহীত: সাটারস্টক

85 I like it
29 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...