জেল আইলাইনার - Shajgoj

জেল আইলাইনার

gel eyeliner

চোখের সাজে আইলাইনার খুবই জরুরী একটা অংশ। আর ভালো আইলাইনারই নিশ্চিত করে একটা ভালো আইমেকাপ। সেরকম ভালো আইলাইনার এর ব্যাপারেই আজকে বলব আপনাদের। রিভিউ দেবো  জেল আইলাইনারের।

সাধারণত জেল লাইনার এর Texture অনেক স্মুদ আর ক্রিমি। একদম কালো কালির মতই ঘন কালো হওয়ার কারণে চোখের ওপর একটা স্ট্রোকই যথেষ্ট। pigmentation যথেষ্ট ভালো। লিকুইড আইলাইনার দিতে গেলে হাত কাঁপে, ছড়িয়ে যায় বা দুই চোখে দু রকম হয়ে যায়, অনেক চেষ্টা করেও যারা আইলাইনার দেওয়ার হাত আনতে পারছেন না, তাদের জন্য এটি আদর্শ। এটি এপ্লাই করার পরে খুব দ্রুত শুকিয়ে যায় যে কারণে সহজে ছড়িয়ে যাবার ভয় থাকেনা। উইংড আইলাইনার বা ক্যাট লাইনার, চোখের ভেতরের লাইনিংটা ড্রামাটিক করতে চাইলে অনায়াসেই করতে পারবেন। এমনকি স্মাজপ্রুফ কাজল হিসেবে চোখের নিচের পাতায় দিতে পারেন। স্মোকি আই করতে চাইলে আইলিড এর বেইস হিসাবে আইলাইনার দিয়ে সাথে সাথে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিলেও চমৎকার দেখাবে। প্রথমে এপ্লাই করার পরে দেখে হয়ত একটু অয়েলি মনে হতে পারে, তবে পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে ম্যাট লুক দেয়।

[picture]

ভালো জেল লাইনারের এর মধ্যে রয়েছে MAC Blacktrack fluidline, Revlon colorstay, Maybeline lasting drama জেল লাইনার।  কসমেটিকস এর জগতে ম্যাকের খ্যাতি অন্য সব ব্র্যান্ডের তুলনায় বেশি। ম্যাক এর blacktrack fluidline এদের জনপ্রিয় প্রোডাক্ট গুলোর মধ্যে একটি। তবে এর সাথে আলাদা করে কোনো আইলাইনার ব্রাশ থাকেনা। আই শ্যাডোর ওপর অনেক সময় আইলাইনার গাঢ় হয়ে বসতে চায় না, হালকা হয়ে থাকে। ম্যাক একটা স্ট্রোকই গাঢ় লাইনারের নিশ্চয়তা দেয়। আলাদা করে প্রাইমার ইউজ করার প্রয়োজন পড়েনা।

রেভ্লন কালার স্টে জেল লাইনার। এর ক্যাপের সাথেই আছে ব্রাশ, তাই এপ্লাই করাটাও সহজ আর ট্রাভেলের সময় সহজে বহনযোগ্য। তবে অন্য জেল লাইনার গুলোর তুলনায় এর পরিমাণ কিছুটা কম। তবে এটা সেমি ম্যাট, শুকিয়ে যাওয়ার পরেও কিছুটা ক্রিমি এফেক্ট দেয়। তাই ৪-৫ ঘণ্টা পরে হালকা স্মাজ হবার একটা সম্ভাবনা থাকে। তবে যারা জেল লাইনার আগে কখনো ইউজ করেন নি, তারা অনায়াসেই আই মেকাপের জন্য বেছে নিতে পারেন এটি।

এরপর আসি মেবেলিন জেল লাইনারের কথায়। আমার কাছে সবচেয়ে  সুবিধাজনক মনে হয়েছে এই কারণে কারন এর সাথেই আইলাইনার এপ্লাই করার ব্রাশ দেওয়া আছে। যা অন্য গেল লাইনার গুলোর সাথে থাকেনা। আর সিঙ্গেল আইলাইনার এর ভালো ব্রাশ আমাদের দেশে খুব একটা দেখা যায় না, তাই নিঃসন্দেহে এই মেবেলিন জেল আইলাইনারটি লুফে নেওয়ার মতই।

যদিও প্রায় সবগুলো জেল লাইনারই দাবি করে ২৪/৩৬ ঘণ্টা স্মাজ প্রুফ হওয়ার, তবে এতো লম্বা সময় ধরে কে আইলাইনার দিয়ে রাখে বলুন! আমি প্রায় ১০ ঘণ্টা দিয়ে ছিলাম, একবারের জন্য। এইটা হালকা হয়ে যায়নি, স্মাজ হয়নি এমনকি পানি লাগার পরেও এতটুকু উঠে যায়নি। তবে প্রায় সব জেল লাইনারেরই একটা কমন সমস্যা হল, শুকিয়ে যাওয়া। এক্ষেত্রে আমি বলব ইউজ করার পরে ক্যাপটা টাইট করে লাগিয়ে রাখার কোন বিকল্প নেই। অনেকদিন পর্যন্ত ভালো থাকবে এটা। আর একটা সহজ টিপস দিয়ে দেই। জেল লাইনারটা ব্যবহারের পরে ঢাকনা শক্ত করে লাগিয়ে উল্টো করে, অর্থাৎ ঢাকনার দিকটা নিচে করে রাখবেন। ক্রিম বা জেল বেইস যেকোনো প্রোডাক্ট এতে সহজে শুকায় না।

একটা কথা বলে রাখা ভালো, জেল লাইনার দিয়ে পারফেক্ট ভাবে আইলাইনিং এর জন্য কিছুটা প্র্যাকটিস এর দরকার হয়। মোটামুটি ৩-৪ বার প্র্যাকটিস করলেই রপ্ত করতে পারবেন। আর ইউজ করার পর লাইনার এর ব্রাশটা ক্লিন করে রাখবেন পরবর্তী সময় ব্যবহারের জন্য।

যারা অনেকদিন ধরেই একটা ভালো আইলাইনারের খোঁজ করছেন, তাদের জন্য এই ব্র্যান্ডগুলো হতে পারে সহজ সমাধান। আর এই আইলাইনার যেহেতু লম্বা সময় ধরে স্মাজপ্রুফ হওয়ার দাবি করে, তাই চোখ থেকে তোলার সময় আই মেকাপ রিমুভার অথবা কটন বলে বেবি অয়েল বা ভ্যাস্লিন দিয়ে তুলতে হবে।

কোথায় পাবেন? এই তিনটি জেল লাইনারই এখন আমাদের দেশে পাওয়া যায়। যমুনা ফিউচার পার্কে  নতুন খোলা কস্মেটিক্স স্টোর  Sapphire এ গেলে পাবেন ম্যাক, রেভলন, মেবিলিন এর জেল আইলাইনার। তাছাড়া আরও পাবেন বিভিন্নও ব্র্যান্ড এর ইউ এস এ  আর ইউকে থেকে আমদানি করা কস্মেটিক্স। তবে আর দেরি কেন? চলে আসুন আর কিনে ফেলুন চোখের সাজের অতি আবশ্যক জেল লাইনার।

লিখেছেনঃ চৌধুরী তাহাসিন জামান

ছবিঃ দিনেটটিভি.কম, মিসনাটিসবিঊটিডায়েরি.কম

0 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...