ঘরোয়া পদ্ধতিতে টোনার তৈরি - Shajgoj ঘরোয়া পদ্ধতিতে টোনার তৈরি - Shajgoj

ঘরোয়া পদ্ধতিতে টোনার তৈরি

জুন ২০, ২০১৪

কোমল ও মসৃণ ত্বক সবারই কাম্য আর সেই সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা আপনার সৌন্দর্যকে আরও বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। তবে এই গরমের প্রকোপ ও সারাদিনের ব্যস্ততার মাঝে ত্বকের সেই লাবণ্য ক্রমশ মলিন হয়ে উঠে। তাই ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিজেই ত্বকের যত্ন নেয়া শুরু করে দিন।

প্রাকৃতিক উপায়ে সহজ কিছু পন্থায় আপনি ঘরে বসেই তৈরি করে নিতে পারেন আপনার স্কিন টোনার।

১। একটি শশা কুচি করে কেটে তার সাথে ১/২ কাপ টক দই মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। তা মুখে লাগিয়ে ৫-১০ মিনিটের জন্য রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ফ্রিজে রেখে আপনি ২-৩দিন  ব্যবহার করতে পারেন।

২। ১ লিটার গরম পানিতে পুদিনা পাতা ছেড়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। তারপর পানি ছেঁকে নিয়ে তা ঠাণ্ডা হতে দিন। তুলার সাহায্যে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এটি ত্বক পরিষ্কার করে ও টোনার হিসেবেও কাজ করে।

৩। গোলাপ জল খুবই উত্তম টোনার হিসেবে কাজ করে। ১/২ লিটার পানিতে ৫টি ডিস্টিল ওয়াটার ও ৮টি গোলাপের পাপড়ি মিশিয়ে অল্প আঁচে জ্বাল করুন। যখন পানিটি প্রায় বেগুনি রঙ ধারণ করবে তখন চুলা থেকে নামিয়ে নিন। ঠাণ্ডা করে পানিটি ছেঁকে নিন। এভাবে গোলাপ জল তৈরি করে আপনি এক মাস ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন। প্রতিদিন ২-৩ বার আপনি এটি ব্যবহার করতে পারেন।

৪। সমপরিমাণ ভিনেগার ও গোলাপ জলের মিশ্রণ তৈরি করেও আপনি টোনার হিসেবে লাগাতে পারেন। টোনার হিসেবে এই মিশ্রণ খুবই উপকারী।

৫। টোনার হিসেবে বরফের ব্যবহার অতি পরিচিত। প্রতিদিন সকালে ও রাতে মুখ ধুয়ে নিয়ে আপনি ৩-৪ টুকরো বরফ ঘষে নিতে পারেন। বরফ আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে আর সেই সাথে খোলা লোমকূপ বন্ধ করে দেয়। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করতেও আপনি বরফ ব্যবহার করতে পারেন।

৬। একটি গ্রীন টি প্যাক ১/২ কাপ পানিতে ১০ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখুন। তারপর পানি ছেঁকে নিন। রোজ সকালে আপনি এই পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে পারেন। কেবল টোনার নয়, এটি আপনার ত্বককে সারাদিনের জন্য কোমল ও সতেজ রাখবে।

৭। লেবুর রস মুখে ঘষে ১০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা করুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৮। ১/৪ চামচ অলিভ অয়েল, ১/৪ চামচ লেবুর রস ও ১ চামচ মধুর মিশ্রণ তৈরি করে মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরন পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৯। মুখ ভালো করে ধুয়ে নিয়ে ডিমের সাদা অংশ লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি মুখের দাগ দূর করতেও কাজ করে। প্রতি রাতে শোবার আগে আপনি এটি ব্যবহার করতে পারেন।

১০। ১ চামচ দুধ, ১ চামচ মধু ও একটি ডিম নিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতি সপ্তাহে ২ দিন আপনি প্যাকটি লাগাতে পারেন।

১১। ৩ চামচ টমেটোর রস ও ১ চামচ মধু মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

১২। মধু ও লেবুর মিশ্রণ খুবই জনপ্রিয় টোনার হিসেবে কাজ করে।এই প্যাকটি আপনার ত্বককে মসৃণও করে তুলে।

১৩। পেঁপে ও আপেল একসাথে ব্লেন্ড করে আপনি টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

নিজেকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে আমরা সবাই চাই। তবে এই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় আপনার সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ, আপনার হাসিটা ধরে রাখার ভার কিন্তু আপনার উপরই রইল। তাই সুস্থ থাকুন, হাসি মুখে থাকুন।

লিখেছেনঃ সামিহা মেহনাজ

ছবিঃ বিউটিফুলইউএটিএল.কম