ইচ্ছে মতন নিজেই করুন টিপ নকশা - Shajgoj ইচ্ছে মতন নিজেই করুন টিপ নকশা - Shajgoj

ইচ্ছে মতন নিজেই করুন টিপ নকশা

এপ্রিল ৮, ২০১৭

কেনা টিপেই সাজতে অভ্যস্ত তবে মাঝে মাঝে একটু অন্য ধাঁচের টিপও পরতে মন চায়, হয় না এমন? অন্য ধাঁচ বলতে তখন কাজল বা কুমকুমে কপালে টিপ আঁকাও হয় হয়তো। কিন্তু এমনটাও তো হতে পারে যে কপাল নয়, টিপের গায়েই রঙের আঁকিবুঁকি করে নিলেন। হ্যাঁ, বলছিলাম টিপকে ক্যানভাস বানিয়ে নকশা আঁকার কথা। ব্যাপারখানা বেশ সহজ। ড্রেসিং টেবিলের ফাঁকফোকরে থাকা জিনিস দিয়েই দিব্যি হয়ে যাবে, বাড়তি তেমন কিছু লাগবে না।

টিপ পরতে ভালোবাসেন, তবে ঘরে অনেক রঙের টিপের পাতা নিশ্চয় আছে? সেটাই দরকার আপনার অঙ্কন প্রতিভা প্রমাণ করতে! আর না থেকে থাকলে কিনে নিন এক পাতা হরেক রঙের টিপ।চাইলে একরঙা টিপেও নকশা আঁকতে পারেন, তবে তাতে তেমন বৈচিত্র্য আসবে না। বিভিন্ন রঙের উপর নকশা এঁকে যেমন মজা পাবেন, নির্দিষ্ট একটা রঙে সেটা হয়তো পাবেন না।

উপকরণ যা যা লাগছে তাহলে-

  • টিপের পাতা (যে কোন রঙের)
  • আইলাইনার, কাজল, কালো এবং সাদা রঙের
  • নেইলপলিশ ও লিপস্টিক
  • চিকন তুলি, কটনবাড

img_20141012_000347

জিনিসগুলি নিয়ে বসুন। তারপর বাকিটুকু আপনার ইচ্ছা! কোন নিয়ম নেই, মানা নেই আপনার আঁকা-আকিতে!

লাল টিপের গায়ে কালো আইলাইনারের সীমানা করে দিন, মাঝখানে সাদা কাজল এলোমেলো খানিক বুলিয়ে দিলেই সাদামাটা লাল টিপটা অন্যরকম হয়ে যাচ্ছে। লাল আর সাদাকালোর মিশেল দেখতেও দারুণ লাগবে! 

গোলাপি নেইলপলিশটা ব্যবহার করুন হলদে টিপের জমিনে। তুলি বা নেইলপলিশের ব্রাশ চিকন হলে সেটা দিয়েই কাজ করুন। ছোট্ট একটা ফুল এঁকে নিন, অথবা এলোমেলো করে রঙ ছড়িয়ে দিয়ে তার উপর আঁকুন আইলাইনারের জ্যামিতিক নকশা।

বাদামি রঙের লিপস্টিকটা কটনবাডে করে সবুজ টিপের গায়ে বুলিয়ে বানাতে পারেন প্রিয় একটা টিপ, কোন একটা শাড়ির সাথে যেটা খুব মানাবে। কালো আইলাইনারের ফোঁটা কেটে দিতে পারেন তাতে সীমানা জুড়ে। 

আইলাইনার বা কাজল নিয়ে কাজ করার সময় সরাসরিই সেগুলি ব্যবহার করতে পারবেন। নেইলপলিশ আর লিপস্টিক ব্যবহার করার জন্য তুলি কিংবা কটনবাড দিয়ে কাজ করতে হবে। নেইলপলিশের রঙটা পাকা হবে, নয়তো লিপস্টিকের ব্যবহার করতে পারেন ইচ্ছে মতন। মজাটা হলো এখানে কোন বাঁধা-ধরা নিয়ম তো নেই! যেমন খুশি তেমন নকশা করুন, ফুটিয়ে তুলুন নিজের পছন্দ টিপের ছোট্ট ক্যানভাস।

মডেল – প্রিয়াঙ্কা রায় মোনা

ছবি – নববর্ষের সাজগোজ ১৪২৩  

লিখেছেন – মুমতাহীনা মাহবুব