ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং ও হাইড্রেটেড স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার জানা আছে কি?

ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার জানা আছে কি?

ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার করছে একজন

ইনস্ট্যান্টলি ফেইস গ্লোয়িং আর হাইড্রেটেড করতে আমরা কত কিছুই করে থাকি, তাই না? আর স্পেশাল অকেশন বা পার্টিতে যাওয়ার আগে সব থেকে বেশি মনে হয়, ইসস! স্কিনটা যদি একটু গ্লো করতো। আজকে আমি এমন মাস্ক নিয়ে কথা বলবো যেটি ১০-১৫ মিনিটেই ফেইসকে করে তুলবে গ্লোয়িং, সেইসাথে হাইড্রেটেড। কোন সেই মাস্ক? চিন্তাই পড়ে গেছেন, তাই না? কোরিয়ান বিউটির স্কিন কেয়ার স্টেপের বেশ হাইপড একটি প্রোডাক্ট, শিট মাস্ক! আজকে আমি কয়েকটি শিট মাস্ক সম্পর্কে ধারণা দিবো, সেই সাথে কোন উপাদান কি কাজ করে তা নিয়েই কথা বলবো। ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার জানা আছে কি? তো জেনে নিন ইনস্ট্যান্টলি ফেইস গ্লোয়িং আর হাইড্রেটেড করতে শিট মাস্কের ব্যবহার সম্পর্কে।

ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার সম্পর্কে জেনে নিন

মুখের আবরণে কাটআউট করা একটা ফেব্রিক, যেটা হেভি সেরামে ভেজানো থকে। এই সিরামটি আমাদের স্কিনকে ময়েশ্চারাইজড করে, সাথে ফেইসে চকচকে ভাব আনে। আমাদের বিজি লাইফের ইজি সলিউশন হতে পারে শিট মাস্ক। কোনো ঝামেলা ছাড়াই ঝটপট ইউজ করা যায়। আমার পছন্দের কিছু শিট মাস্কের রিভিউ তুলে ধরছি। আশা করি, আপনারাও বুঝতে পারবেন এতে যে কোন শিট মাস্কটি আপনার জন্য রাইট চয়েস হবে।

NEOGEN – Surmedic Bright Glutathione Mask

নিস্তেজ স্কিনকে যদি ঝটপট গ্লোয়িং এবং একই সাথে হেলদি করতে চান, তাহলে এই মাস্কটি চোখ বন্ধ করে নিতে পারেন! কারণ এতে রয়েছে গ্লুটাথিয়ন যাকে মাদার অফ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বলা হয়। স্কিনকে ব্রাইট করতে এর কার্যকারিতা অপরিসীম। এটা আমার খুব পছন্দের একটি মাস্ক।

(১) এই শিট মাস্কটি ত্বককে ব্রাইট করতে সাহায্য করে।
(২) ত্বকের গ্লো ফিরিয়ে আনে।
(৩) ত্বকের ইলাস্টিসিটি ইম্প্রুভ করে থাকে।
(৪) ইনস্ট্যান্ট নারিশমেন্ট আর হাইড্রেশন দেয়।

SHOP AT SHAJGOJ

    3W Clinic Essential Up Snail Sheet Mask 

    স্নেইল বা শামুক, ত্বকের যত্নে যত যাই হোক শামুক তো মুখে দেয়ার কথা চিন্তাই করা যায় না! কিন্তু বাজারে এখন বিভিন্ন ফর্মে স্নেইল ব্যবহার হচ্ছে। 3W Clinic Essential Up Snail Sheet Mask এ স্নেইল ব্যবহার করা হয়েছে, যা ত্বককে ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং করার পাশাপাশি অন্যান্য প্রবলেম নিয়েও কাজ করে।

    (১) ত্বকের টিস্যু রিপেয়ার করে।
    (২) সানবার্ন কমিয়ে আনে।
    (৩) এই মাস্ক ব্যবহারে অ্যান্টি-এজিং এর বেনিফিট পাওয়া যাবে। চোখের নিচে ভাঁজ, ফেইসে বলিরেখা কমিয়ে আনতে স্নেইল-এর নির্যাস খুবই কার্যকরী।
    (৪) ত্বকের ইলাস্টিসিটি ধরে রাখে।
    (৫) ত্বকে আর্দ্রতা সরবরাহ করে এবং ত্বককে স্মুথ করে।

    DEWY COLLAGEN ESSENCE MASK

    এতে রয়েছে বেদানা বা ডালিম ফলের নির্যাস, যা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর। কী কী বেনেফিট পাবেন এই শিট মাস্কে সেটা দেখে নিন।

    ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার করে মুখ থেকে তুলে ফেলছে একজন মেয়ে পিছে হালকা বেগুনি নীল ব্যাকগ্রাউন্ড

    (১) ত্বকে ব্রণের দাগ বা কোন রকম পিগমেন্টশন থাকলে তা কমিয়ে আনে।
    (২) সানট্যান রিমুভ করে থাকে।
    (৩) স্কিনকে ইনস্ট্যান্ট হাইড্রেশন প্রভাইড করে, ড্রাইনেস দূর করে।
    (৪) ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে থাকে।
    (৫) ত্বককে সফট এবং স্মুথ করে থাকে।
    (৬) স্কিন ফ্রেশ দেখায়।

    FARM STAY GREEN TEA SEED VISIBLE DIFFERENCE MASK

    একনে বা ব্রণ ট্রিটমেন্টের জন্য এই মাস্কটি বেশ কার্যকরী। এই মাস্কটিতে ব্যবহার করা হয়েছে গ্রীন ট্রি, যা অয়েলি ও সেনসিটিভ স্কিনের জন্য বেশ ভালো কাজ করে।

    (১) সারাদিন বাহিরে রোদে থাকলে অনেকের ত্বক লাল হয়ে যায়। রেডনেস কমাতে এই শিট মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।
    (২) সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি যে আমাদের ত্বকের ক্ষতি করে থাকে, এই শিট মাস্কটি ত্বকের ড্যামেজ রিপেয়ার করতে সাহায্য করে।
    (৩) ব্যাকটেরিয়ার সাথে ফাইট করে, ফলে একনের প্রবলেম অনেকটাই কমে আসে।
    (৪) স্কিনকে ময়েশ্চারাইজড করে।
    (৫) স্কিনকে সফট এবং স্মুথ করে সাথে সাথেই।

    কীভাবে শিট মাস্ক অ্যাপ্লাই করবেন?  

    (১) শিট মাস্ক লাগানোর পূর্বে স্কিন এবং হাত ক্লিন করতে হবে।
    (২) প্যাকেটে থাকা সিরাম ভালো মত মাস্কের সাথে লাগাবো, কারণ অনেক সময় সিরাম প্যাকেটের নিচে পরে থাকে।
    (৩) মাস্কটা উপর থেকে আস্তে আস্তে মুখের নিচ পর্যন্ত অ্যাপ্লাই হবে। স্কিনের সাথে যাতে কোন গ্যাপ না থাকে, খেয়াল রাখবেন।
    (৪) প্যাকেটে থাকা অবশিষ্ট সিরাম গলায়, হাতে লাগিয়ে নিন।

    এখন ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর মাস্কটি উঠিয়ে হাত দিয়ে হাল্কা ম্যাসাজ করে নিন। ফেইসে সিরামটি রেখে দিন। সিরামকে স্কিন আস্তে আস্তে শোষণ করে নিবে। আর মাস্কের মধ্যেই সিরাম থাকার কারণে আলাদা করে কোন সিরাম ব্যবহার না করলেও হবে। ফেইস ওয়াশ ইউজ করা লাগবে না। স্কিন টাইপ অনুযায়ী একটি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে নিলেই হবে। সপ্তাহে ১ বা ২ দিন ব্যবহার করলেই ভাল রেজাল্ট পেয়ে যাবেন। আর শিট মাস্কের আরেকটি মজার ব্যপার হল, গরমকালে ব্যবহারের আগে ১০-১৫ মিনিট ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করলে কিন্তু স্কিনে সেটা কুল ও সুদিং ইফেক্ট দেয়! শিট মাস্ক ইনস্ট্যান্ট স্কিনকে ব্রাইট করার পাশাপাশি স্কিনের অন্যান্য বেনিফিটসও দিয়ে থাকে। যেমন- স্কিনের ডার্ক স্পট কমায়, কোলাজেন প্রোডাকশন বাড়ায়, স্কিনকে হেলদি করে।

    আশা করি, ইনস্ট্যান্ট গ্লোয়িং স্কিন পেতে শিট মাস্কের ব্যবহার জানতে পেরেছেন।  সাজগোজে কিন্তু এই শিট মাস্কগুলো ছাড়া আরও অনেক শিট মাস্ক রয়েছে, চাইলে একটু ওয়েবসাইট অথবা অ্যাপ ঘুরে দেখতে পারেন। অথেনটিক স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট কিনতে আমার সবসময়ই ভরসা শপ.সাজগোজ.কম। অনলাইনে অর্ডার করে ঘরে বসেই প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে যায়। আর বাংলাদেশের সব জায়গায় কিন্তু সাজগোজ ডেলিভারি দিয়ে থাকে। তাছাড়া সাজগোজের দুইটা আউটলেট আছে, যেটা যমুনা ফিউচার পার্ক আর সীমান্ত সম্ভারে অবস্থিত। আপনার প্রয়োজনমতো স্কিন কেয়ার, হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্ট সবই পেয়ে যাবেন সাজগোজে। তাহলে আজ এই পর্যন্তই। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

    ছবি- সাজগোজ

    41 I like it
    9 I don't like it
    পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...