রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন | স্কিনকে গ্লোয়িং রাখতে বাজেট ফ্রেন্ডলি চয়েজ

স্কিনকে গ্লোয়িং ও ময়েশ্চারাইজড রাখতে বাজেট ফ্রেন্ডলি বডি লোশন খুঁজছেন?

Rajkonna body lotion

আচ্ছা, আপনার সাথেও কি এমনটি হয়েছে? ঘুম থেকে উঠে হঠাৎ স্কিনটা খুবই ড্রাই মনে হচ্ছে? কেমন যেন একটা  ফ্যাঁকাসে বা মলিন ভাব অনুভব হচ্ছে? মেকআপ করতে যেয়ে কোনো প্রোডাক্টই যেন বসতে চাইছেনা? এমনটা কিন্তু হয় কমবেশি আমাদের সবার সাথেই! আর তখনই বুঝি, শীতকাল তো চলেই এলো! তাইনা? শীতকালে আবহাওয়া হঠাৎ করেই রুক্ষ হয়ে যায়। এসময় স্কিনের প্রপার কেয়ার না নিতে পারলে স্কিনে হতে পারে নানা রকম চর্মরোগেরও। এ থেকে রক্ষা পেতে যেকোন ধরনের অয়েলি ক্রিম, ময়েশ্চারাইজার বা লোশন হতে পারে সমস্যার সহজ সমাধান। কিন্তু কয়জন আমরা আসলেও জানি, কোন প্রোডাক্টটি হতে পারে আমাদের জন্যে বেস্ট চয়েজ? তাই আজকে আমি কথা বলবো, রিসেন্ট ব্যবহার করা আমার খুবই পছন্দের একটি বডি লোশন নিয়ে। আর সেটা হচ্ছে, রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন।

রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন যে কারণে আমার ভাল লেগেছে

১) প্রোডাক্টটির প্যাকেজিং খুবই সুন্দর এবং সিম্পল! প্রথম দেখেই এটি আমার ট্রাই করে দেখতে ইচ্ছে হয়েছিল।

২) অত্যন্ত বাজেট ফ্রেন্ডলি! এছাড়াও রাজকন্যা আমার পছন্দের একটি ব্র্যান্ড।

৩) এটি একই সাথে স্কিনকে যেমন ময়েশ্চারাইজড রাখে, তেমনি স্কিনে ইনস্ট্যান্ট ব্রাইটেনিং লুক দেয়। শীতকাল আসলেই আমার স্কিন অনেক বেশি মলিন এবং ফ্যাকাশে হয়ে যায়। তাই এটি অনায়াসে আমার জন্যে রাইট চয়েজ।

৪) এটি অল টাইপ অফ স্কিনের জন্যে তৈরি করা হয়েছে! তাই আলাদা করে আমাকে কোন ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়নি স্কিন টাইপ অনুযায়ী বাছাই করা নিয়ে। আর এটি আমার স্কিনের সাথে খুব সহজেই মানিয়ে গেছে।

৫) প্রোডাক্টের কনসিস্টেন্সিটা আমার খুব ভালো লেগেছে। এইটা বেশ হালকা টেক্সচার হওয়ায় আমার স্কিনে খুব সহজেই মিশে যায় এবং তেলতেলে বা ভারী লাগে না।

৬) রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন এর একটা হালকা মিষ্টি স্মেল রয়েছে। যা আমার কাছে খুবই রিফ্রেশিং লাগে।

৭) প্রতিদিন ব্যবহারের জন্য এটা খুবই ভালো একটি অপশন।

৮) এতে থাকা ভিটামিন-ই আমার স্কিনের মলিনতা কমিয়ে এনেছে অনেকটা।

৯) আমার স্কিন তুলনামূলক অয়েলি, এই রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন ব্যবহার করলে আমার স্কিনে একদমই এক্সট্রা তেলতেলে ভাব থাকেনা।

এর প্যাকেজিং কেমন?

একদম হালকা আর সফট পিংক কালারের একটি বোটলে পাওয়া যাবে এটি। এতে রয়েছে আলফা আরবুটিন, ভিটামিন ই এবং ডালিমের রস। এই ইনগ্র্যাডিয়েন্টস এর কাজগুলো কী কী তা সুন্দর ভাবে প্যাকেটের গায়ে দেয়া আছে। এই ইনগ্র্যাডিয়েন্টসগুলো ইনস্ট্যান্ট স্কিন ব্রাইটেনিং এর পাশাপাশি স্কিনকে ভেতর থেকে ময়েশ্চারাইজড করে তুলতে সাহায্য করে। প্যাকেজিং এর একপাশে এটি ব্যবহার বিধিও খুব সুন্দর করে দেয়া থাকবে। তাই কীভাবে ব্যবহার করবেন তা বুঝতে একদমই অসুবিধা হবেনা।

কালার, স্মেল এবং কনসিস্টেন্সি কেমন হবে?

রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশনের কালার খুবই সুন্দর। একদম হালকা গোলাপি রঙের। খুবই লাইট টেক্সচার এবং একদমই তেলতেলে নয়। দেয়ার সাথে সাথেই খুবই রিফ্রেশিং একটা ফিল দেয়। অনেক বেশি পরিমাণে নিতে হয়না। অল্প একটুতেই ভাল কাভারেজ দেয়। স্মেলও খুবই সুন্দর এবং রিফ্রেশিং। কড়া না আবার একদম মাইল্ডও না।

পরিমাণে কতটুক থাকে?

ময়েশ্চারাইজার বা লোশন সাধারণত একটু বড় আকারে কিনতে পারলেই ভাল। রাজকন্যা ব্রাইটেনিং বডি লোশন এর যেটি আমার খুব বেশি ভাল লেগেছে তা হল, এটি পরিমাণে একদম খুব বেশিও নয় আবার একদম কমও নয়। মাঝারি সাইজে এটি কিনতে পাওয়া যায়। যেটি অনায়াসে ১ থেকে ২ মাস ব্যবহার করতে পারবেন। ৩৮০ এম.এল পরিমাণে বাজারজাত করা হয় এটি।

কিন্তু এটির প্রাইজ কেমন?

আমি এর প্যাকেজিং দেখে শুরুতে ভেবেছিলাম দাম খুব বেশি হবে। তবে এর দাম শুনে আমি বেশ অবাকই হয়েছি। ৩৮০ এম.এল এর বোটলটির দাম পড়বে মাত্র ৫২০ টাকা। কোয়ালিটি এবং পরিমাণ অনুযায়ী যা আমার কাছে খুবই বাজেট ফ্রেন্ডলি মনে হয়েছে।

সবই বুঝলাম! কিন্তু কোথায় পাব?

আমি প্রথমে এই প্রোডাক্টটি সাজগোজের অ্যাপেই দেখেছি। তাই আমি সাজগোজ থেকেই অর্ডার করেছি। আপনারা চাইলে খুব সহজেই সাজগোজের অ্যাপ থেকে বা ওয়েবসাইট থেকে অর্ডার করতে পারেন। তাছাড়া যমুনা ফিউচার পার্ক এবং সীমান্ত  স্কয়ারে অবস্থিত শপ.সাজগোজ.কম এর ফিজিক্যাল স্টোরেও পেয়ে যাবেন প্রোডাক্টটি।

আমাদের অনেকের জন্যেই শীতকাল একটি প্রিয় ঋতু! কিন্তু শীতের আগমনে আমাদের স্কিনের জন্যেও কিন্তু প্রয়োজন হয় বাড়তি যত্নের। গরমকাল এবং শীতকালের স্কিনের যত্ন অনেকটাই আলাদা। তাই এ সমস্যাগুলোর সমাধানে আগে থেকেই নেয়া উচিৎ প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা। তবে যাই ব্যবহার করি না কেন, ত্বকের ধরণ অনুযায়ী ব্যবহার করতে হবে অবশ্যই।

18 I like it
4 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...