যেখানে ব্রণ নেই সেখানেও ব্রণের প্যাক ব্যবহার করছেন কি? - Shajgoj যেখানে ব্রণ নেই সেখানেও ব্রণের প্যাক ব্যবহার করছেন কি? - Shajgoj

যেখানে ব্রণ নেই সেখানেও ব্রণের প্যাক ব্যবহার করছেন কি?

ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭

আচ্ছা ধরুন, আপনার হাতে সামান্য কেটে গেছে ব্লিডিং হচ্ছে ! আপনি কি করবেন? নিশ্চয়ই সেখানে ব্লিডিং বন্ধ করার জন্য মেডিসিন লাগাবেন পুরে যাওয়ার অয়েনমেন্ট নিশ্চয়ই নয়! ভাবছেন পাগল নাকি কেটে গেলে কেটে যাওয়ার চিকিৎসা পুড়ে গেলে সেই মোতাবেক চিকিৎসা। কিন্তু ত্বকের ক্ষেত্রে কি তাই করছেন? ভেবে দেখুন তো। মুখের সারা অংশ জুড়েই কি ব্রণের বিস্তার নাকি কিছু কিছু স্পেসিফিক যায়গায় ব্রণের উপস্থিতি পান। অথচ এই ব্রণের হাত থেকে  বাঁচতে যেখানে ব্রণ নেই সেখানেও ওই ব্রণের প্যাক লাগিয়ে বসে থাকি আমরা! যা ঠিক নয়। তাহলে কি করব? তা নিয়েই আজকের লিখা।

আসলে আমার নিজের ত্বকের কথা যদি বলি তবে আমার নাক এবং থুঁতনি প্রচন্ড তৈলাক্ত, গালের ত্বক শুষ্ক, চোখের নিচে কালো দাগ, এবং পুরো ত্বকই সজীবতাহীন। সচরাচর, যে কোন একটি মাস্ক এই সকল সমস্যা সমাধান করতে পারেনা কখনোই। এমন অবস্থার থেকে  সমাধান দিতে পারে শুধুমাত্র মাল্টিমাস্কিং।

আপনার ত্বকও যদি হয় এমন তবে আপনিও চাইলে বাসায়ই করতে পারেন মাল্টিমাস্কিং। একটি মাস্ক ব্যাবহার  না করে মাল্টিমাস্কিং করাটা হয়ত একটু বেশি সময়ের ব্যাপার. কিন্তু মাল্টিমাস্কিং এর যে উপকারিতা পাওয়া যাবে তা একটি মাস্ক ব্যবহারে  পাওয়া যাবে না। আসুন তবে জেনে নই মাল্টিমাস্কিং এর ট্রিকগুলো।

প্রথমেই ত্বকের ধরণ অনুযায়ী ফেইসকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করে নিতে হবে। এরপর ত্বকের প্রয়োজন অনুযায়ী মাস্ক নির্বাচন করতে হবে।ধরুন মুখের টি-জোন তৈলাক্ত, চোখের এবং গাল শুষ্ক তখন কেবল একটি মাস্কই পুরো মুখে না লাগিয়ে ত্বকের ধরণ অনুযায়ী মাস্ক নির্বাচন করতে হবে। কীভাবে করবেন এবং এই ত্বকের  ভিন্ন ভিন্ন সমস্যার উপর কোন ধরণের  মাস্ক বা প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন তা নিয়েই লিখছি।

(১) অয়েলি স্কিন এবং পোরস

প্রথমেই লার্জ পোরস ফেইসের যে জায়গাগুলোতে আছে তা খুঁজে বের করবেন। এরপর সেই জায়গা গুলোতে ব্যবহার করবেন  Dead Sea Minerals Anti-Stress Mask ।এই মাস্কটি আপনার ত্বকের লার্জ পোরসগুলোকে ঠিক হতে সাহায্য করবে। আর এই মাস্কটি আপনার ত্বককে করে তুলবে সুন্দর। এই মাস্কটি যে কোন ত্বকে ব্যবহার উপযোগী।

এরপর ত্বকের তৈলাক্তভাব দূর করতে Dead Sea Mud Mask ব্যবহার করতে পারেন। এই মাস্কটি আপনার ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করার সাথে সাথে আপনার ত্বককে করে তুলবে সজীব। এবং আপনার ত্বকের দাগ দূর করতেও সাহায্য করবে। এই মাস্কটিও সব ধরণের ত্বকের জন্য উপযোগী।

(২) ব্রেক-আউটস অ্যান্ড ইরিটেশন

ব্রেক-আউটস এর জন্য  যে মাস্কটি সেটা হল Clear Improvement Active Charcoal Mask । এই মাস্কটি ম্যাগনেটের মতো কাজ করে অনেকটা, কারণ ত্বকের ভেতরের সব ময়লা বের করে নিয়ে আসে। আর এই মাস্কটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করা যাবে।

ইরিটেশন দূর করতে যে মাস্কটি জাদুকরী ভুমিকা পালন করে সেটা হল  Avocado and Oatmeal Clay Mask এই মাস্কটি ইরিটেশন দূর করার সাথে সাথে স্কিনকে ডিপ ক্লিন করে।  এটি সব ধরনের স্কিনেই ব্যবহারযোগ্য।

(৩) নির্জীবতা এবং বলিরেখা

ত্বকের নির্জীবতা বলতে আমরা ডালনেস কে বুঝি। আপনার ত্বকের নির্জীবতা দূর করতে Banana-Oat Instant Smoothing Mask । এই মাস্কটি ব্যবহার করতে পারেন। এই মাস্ক ত্বকের নির্জীবতা দূর করার সাথে সাথে ত্বককে করে তুলে সুন্দর এবং সতেজ।

যে মাস্কটি ফাইন লাইনস দূর করার জন্য অনেক বেশি কাজ করে সেটা হল  Ethiopian Honey Deep Nourishing Mask । এই মাস্ক ফাইন লাইনস দূর করার সাথে সাথে স্কিনকে নারিশ করে।

(৪) কম্বিনেশন স্কিন

টি-জোন বলতে আমরা বুঝি কপাল, নাক এবং থুতনিকে। অনেক সময় আমাদের টি-জন থাকে অনেক বেশি তৈলাক্ত। আর সেই তৈলাক্ত ভাব  আমরা দূর করতে পারি Acai Puifying Clay Mask এই মাস্কটি ব্যবহার করে।

গালের শুষ্কভাব দূর করতে Golden Grain Brightening mask জাদুকরী ভূমিকা রাখে। এই মাস্কটি ড্রাই স্কিনের জন্য সবচেয়ে বেশি উপযোগী।

এই সবগুলো মাস্ক আপনারা পেয়ে যাবেন শপ.সাজগোজ.কম এ।  আপনার ত্বকের ধরণ এবং প্রয়োজন আগে জেনে নিন। এরপর চিন্তা করুন আসলে কোন ফেসমাস্ক ব্যবহার করা উচিত আপনার। সামান্য অসাবধানতার কারণে নিজেই নিজের ত্বকের ক্ষতি করে বসেন না যেন।

প্রয়োজন অনুযায়ী ফেসমাস্ক ব্যবহার করুন এবং নিজে হয়ে উঠুন সবচেয়ে সুন্দর ত্বকের অধিকারী।

ছবি – পিন্টারেস্ট ডট কম, স্টারসডেইলি ডট কম

লিখেছেন – আনিন্তা আফসানা