বিগেইনারদের জন্যে মেকআপ গাইড এবং বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস - Shajgoj

বিগেইনারদের জন্যে মেকআপ গাইড এবং বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস

1 (11)

মনে করে দেখুনতো, আপনার প্রথম মেকআপ প্রোডাক্টস কেনার সময়টা! আচ্ছা, কী কী চিন্তা ঘুরছিল মাথায় তখন? বেসিক মেকআপ করতে কী কী লাগে, কোন ব্র্যান্ডগুলো ভাল হবে, কীভাবে বুঝবো কোন প্রোডাক্টগুলো আমার জন্যে, এত এত দামের মধ্যে বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস কোনগুলো হবে এমন আরও হাজারো প্রশ্ন! তাই না? তার উপর মেকআপের এত এত প্রোডাক্টস কিন্তু, কোন প্রোডাক্টস এর কাজ কী? আবার মেকআপের স্টেপগুলোই বা কেমন হয়? এ নিয়েও শুরু শুরুতে কনফিউশনের শেষ থাকেনা। যারা মেকআপ এক্সপার্ট তারাও কিন্তু এক সময় এমন অনেক কিছু ভেবে কনফিউশড হত। তাই শুরু শুরুতে মেকআপ গাইড এবং স্টেপস অনুযায়ী বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস কোনগুলো হবে তাই জেনে নিব আজকের আর্টিকেল-এ।

বিগেইনারদের জন্যে মেকআপ গাইড

সুন্দর করে পারফেক্টলি মেকআপ করার ব্যাপারটা একদমই প্র্যাকটিস এবং নিজের ক্রিয়েটিভিটির উপর। তাই, শুরুতে দুই তিনবার চেষ্টা করার পর যদি মন মত না হয় এতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। রাতারাতি সব কিছু জেনে ফেলতে হবে, ব্যপারটি একদমই তেমন না। তবে বেসিক মেকআপের স্টেপসগুলো জানা থাকলে, আস্তে আস্তে আপনি আপনার মত করে সুন্দর করে মেকআপ করতে শিখে যাবেন সহজেই। তাই, শুরুতেই ছোট্ট করে জেনে নিব মেকআপের বেসিক স্টেপসগুলো কী কী তা নিয়ে।

মেকআপ করার বেসিক স্টেপস অনুযায়ী প্রোডাক্টস গুলো কী কী?

(১) ফেইসকে প্রাইম করতে শুরুতেই একটি “প্রাইমার
(২) স্কিনটোনের শেইড অনুযায়ী একটি ভাল “ফাউন্ডেশন
(৩) ফাউন্ডেশন থেকে এক শেইড লাইট “কনসিলার
(৪) পছন্দ অনুযায়ী একটি সেটিং পাউডার
(৫) কনট্যুর প্যালেট
(৬) ব্লাশ প্যালেট
(৭) আইশ্যাডো প্যালেট
(৮) হাইলাইটার প্যালেট
(৯) মেকআপ ব্রাশ
(১০) সেটিং স্প্রে

এই তো! মেকআপ করার ক্ষেত্রে এই কয়েকটি স্টেপই কম বেশি ফলও করতে হয়। একবারে একসাথে দেখলে অনেক বেশি প্রোডাক্ট মনে হলেও, আস্তে আস্তে যখন প্রোডাক্ট গুছানো হয়ে যায় তখন মেকআপ করা একদম সহজ হয়ে আসে।

মেকআপ স্টেপস অনুযায়ী বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস

প্রাইমার কোনটি সিলেক্ট করবেন?

প্রাইমার সুন্দর করে ব্লেন্ড করে নিলে বেইজ মেকআপ অনেক স্মুথ হয়। প্রাইমারের পরিমাণ বেশি হলে কিন্তু মুখ ওয়েলি লাগবে। আবার কম হলেও কাজ দিবে না। তাই ফেইসে ঠিক যতটুক প্রয়োজন ততটুকুই প্রাইমার ব্যবহার করবেন। ৮০০ টাকারও কমে বেশ ভাল কিছু ব্র্যান্ড এর প্রাইমার পেয়ে যাবেন হাতের কাছেই। যেমন,

১) La Femme ব্র্যান্ড এর Prime Time Foundation primer Brighting। এটি আপনাকে একদম ফ্রেশ এবং স্মুথ একটা ফিল এনে দিবে ফেইসে।

২) W7 ব্র্যান্ড এর Prime Magic Anti-Redness Face Primer 30ml প্রাইমারটিও রেগুলার ইউজ এবং বিগেইনারদের জন্যে হতে পারে একটি পারফেক্ট চয়েজ।

৩) Nicka K এর Face Primer Tube – NYA01 প্রাইমারটিও অনেকের খুবই পছন্দ। মেকআপ করার আগে, মুখের ফাইন লাইনস এবং পোর এর সমস্যা কমিয়ে এনে স্কিনকে ইভেন দেখানোর জন্যে ভাল কাজ করে এটি।

ফাউন্ডেশন কোনটি ভাল হবে?

ফাউন্ডেশন প্রথম বার কেনার আগে অধিকাংশ মেয়েরাই বিবি ক্রিম বা সিসি ক্রিম ব্যবহার করে অভ্যস্ত থাকেন। তাই ফাউন্ডেশনের শুরুটা একটু লাইট কভারেজ দিবে, এমন হওয়াই ভাল। ১০০০ টাকারও কমে পেয়ে যাবেন খুব ভাল কিছু ফাউন্ডেশন। যার মধ্যে বেস্ট চয়েজ হতে পারে,

১) L.A. Girl ব্র্যান্ড এর PRO Matte Foundation। রাত বা দিন যেকোন সময় এটি ব্যবহার করার জন্যে পারফেক্ট।

২) L.A. Girl ব্র্যান্ড এর Pro Coverage Illuminating Foundation। লং লাস্টিং এর পাশাপাশি এটি আপনাকে দিবে ফ্লোলেস লুক। পাশাপাশি স্কিনকে হাইড্রেটেড রাখতেও হেল্প করবে।

৩) wet n wild ব্র্যান্ড এর Photo Focus Foundation। বিগেইনার দের পাশাপাশি রেগুলার যাদের কোন না কোন কাজে বাইরে যেতেই হয়, তাদের জন্যে এটি একদম পারফেক্ট একটি চয়েজ।

৪) Maybelline ব্র্যান্ড এর Matte + Poreless Fit Me Foundation পছন্দ করেন না এমন মেকআপ লাভার খুঁজে পাওয়াটা কঠিন। যদিও ১০০০ থেকে অল্প কিছু টাকা বেশি গুনতে হবে তবে, এটি আপনার পছন্দ হবেই হবে।

কনসিলার কোনটি সিলেক্ট করবো?

সবসময় চেষ্টা করবেন কনসিলার এর জন্যে এমন একটি শেইড বাছাই করতে যা, আপনার ফাউন্ডেশনের শেইড থেকে এক স্কিন টোন লাইট হয়ে থাকে। ৫০০ টাকারও কমে চলুন দেখে নেই বিগেইনার দের জন্যে দারুণ কয়েকটি কনসিলার।

১) প্রথেমেই আসবে, L.A. Girl ব্র্যান্ড এর Pro Concealer। একি সাথে যেমন সাধ্যের মধ্যে তেমনি ফেইসে নিয়ে আসবে ম্যাজিকাল গ্লোয়িং লুক।

২) wet n wild ব্র্যান্ড এর Photo Focus Concealer এর কাজও খুবই ভাল। ফেইসে থাকা ব্লেমিশেস এবং যেকোন দাগ দূর করে সুন্দর ইফেক্ট এনে দিবে ফেইসে।

৩) আরও একটু ভাল কোয়ালিটির মধ্যে চাইলে নিশ্চিন্তে সিলেক্ট করে ফেলতে পারেন, Makeup Revolution ব্র্যান্ড এর Conceal & Define Supersize Concealer।

মন মত ব্লাশ প্যালেট পাব কোথায়?

শুরুতেই সিঙ্গেল ব্লাশ না কিনে, প্যালেট কিনে ফেলা ভাল। ৫০০ এবং এর কাছাকাছি প্রাইজে পেয়ে যাবেন দারুণ কিছু ব্লাশ প্যালেট। যেমন,

১) Technic ব্র্যান্ড এর Matte finish Mega Blush হতে পারে আপনার প্রথম এবং রাইট চয়েজ।

২) Nirvana Color ব্র্যান্ড এর Face Palette – Windy Monsoon এক কথায় একটি অসাধারণ চয়েজ। এর মাঝে আপনি পেয়ে যাবেন, একের ভিতর সব তাও খুবই রিজনেবল প্রাইজে।

৩) NICKA K ব্র্যান্ড এর DUO BLUSH বিগেইনার দের এর জন্যে এক কথায় অসাধারণ।

পিগমেন্টেড আইশ্যাডো প্যালেট কোনটি?

আইশ্যাডো সিলেক্ট করার আগে আমরা সবসময় চাই তাতে যেন, কালার ভ্যারাইটি থাকে এবং খুব ভাল পিগমেন্টেড হয়। এমনটি আপনিও চাইলে নিশ্চিন্তে কিনে ফেলতে পারেন,

১) Nirvana Color ব্র্যান্ড এর Eye shadow Palette –
I. I Will Be Back
II. Not For Man
III. Memorable Evening এর মধ্যে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যে কোনোটি।

২) এছাড়াও বাজেটের মধ্যে আরেকটি বেস্ট চয়েজ হবে, Technic ব্র্যান্ড এর Pressed Pigment Eyeshadow Palette থেকে-
I. Vacay
II. Goddess
III. Invite Only প্যালেটগুলোর মধ্যে যে কোনোটি।

এবং অবাক হবেন, এই সবগুলো প্যালেটই পেয়ে যাবেন, ৬০০ থেকে ৭০০ টাকার মধ্যেই।

পারফেক্ট গ্লোয়িং লুক দিবে এমন হাইলাইটার কোনটি?

মেকআপ লুক কমপ্লিট করার ক্ষেত্রে মন মত একটি হাইলাইটার এর সিলেকশন অনেক বেশি ইম্পরট্যান্ট। আর তা যদি হয় ৫০০ এর কাছাকাছি বা এরও কম প্রাইজে তাহলেতো কথাই নেই।

১) শুরুতেই Nirvana Color ব্র্যান্ড এর Face Palette – Windy Monsoon এর কথা না বললেই না। এটি আপনার সব কাজের একটি অসাধারণ সল্যুশন হবে।

২) এরপরই আসে, Technic ব্র্যান্ড এর Mega Glow Highlighter Palette।

৩) Technic ব্র্যান্ড এর-ই আরেকটি অসাধারণ প্যালেট Colour Fix Highlighter Palette।

৪) এছাড়াও কিনতে পারেন La Femme ব্র্যান্ড এর Ultra Pro HD Contour & Highlight প্যালেটটি।

পারফেক্ট ব্লেন্ডিং এর জন্যে মেকআপ ব্রাশ

হাতের কাছে সব প্রোডাক্টই আছে কিন্তু ভাল মেকআপ ব্রাশ নেই! তবে কিন্তু সব কিছুই বৃথা। শুরুতে অনেকেই হাত দিয়ে মেকআপ ইউজ করতে চান। স্কিনটাইপ অয়েলি হলে এটা হতে পারে মারাত্মক ক্ষতিকর স্কিনের জন্যে। চলুন জেনে নেই, পারফেক্ট ব্লেন্ডিং এ হেল্প করবে এমন কিছু মেকআপ ব্রাশ নিয়ে,

১) Groome ব্র্যান্ড এর Make Up Brush set (Bamboo) এ একসাথে পেয়ে যাবেন অনেকগুলো মেকআপ ব্রাশ তাও ৫০০ টাকারও কমে।

২) Groome ব্র্যান্ড এর 5pcs Full Eye Makeup Brush Set-টি চোখ সাঁজাতে পারফেক্ট চয়েজ।

৩) Groome ব্র্যান্ড এর আরেকটি অসাধারণ ব্রাশ সেট Professional Rose Gold 10Pcs Makeup Brush Set with Bag এটি। কাজেও যেমন পারদর্শী তেমনি দেখতেও অনেক বেশি স্টাইলিশ এবং কালারফুল।

লং লাস্টিং মেকআপের জন্যে সেটিং স্প্রে সিলেক্ট করুণ বুঝে শুনে

মেকআপের সব স্টেপতো ডান! এবার? কোনভাবেই শেষে ফেইসে সেটিং স্প্রে দিয়ে মেকআপ সেট করে নিতে ভুলবেন না। বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস এর মধ্যে সেটিং স্প্রে এর জন্যে সিলেক্ট করতে পারেন,

১) Makeup Revolution ব্র্যান্ড এর Pro Fix Oil Control Fixing Spray।

২) এরপর পরই আসে, L.A. Girl ব্র্যান্ড এর Pro Setting HD Setting Spray।

৩) অথবা সিলেক্ট করতে পারেন, NICKA K ব্র্যান্ড এর PERFECTION SETTING SPRAY MATTE 60ML

এই প্রত্যেকটি সেটিং স্প্রে-ই মুখকে একদম অয়েলি না করে, সুন্দর করে মেকআপকে অনেকক্ষনের জন্যে লক করে রাখতে হেল্প করবে।

আমরা অনেকেই মনে করি, মেকআপ করা এবং মেকআপ প্রোডাক্টস কেনা এক ধরনের বিলাসিতা। আবার অনেকের কাছেই মনে হয়, মেকআপ করতে অনেক অনেক টাকা খরচ করতে হয়। এ ধারণাটি কিন্তু একদমই ঠিক নয়। আমরা যদি মেকআপ করার সঠিক নিয়ম এবং কী কী প্রোডাক্টস ব্যবহার করতে হয় তা সঠিক ভাবে জানি তাহলে, বাজেট ফ্রেন্ডলি মেকআপ প্রোডাক্টস দিয়ে খুব সহজেই মন মত মেকআপ করে নিতে পারবেন। তবে, অনেক অনেক মেকআপ প্রোডাক্টস থাকলেও যদি নিয়মিত স্কিনের প্রপার কেয়ার না করেন তাহলে, আসলেও তেমন একটা লাভ হবেনা। সুতরাং মেকআপের পাশাপাশি নিয়মিত স্কিনের যত্ন নিতেও ভুলবেন না।

আপনার দরকারি এসব প্রোডাক্ট পেয়ে যাবেন শপ.সাজগোজ.কমে, অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ভিজিট করলেই দেখে নিতে পারবেন কী কী প্রোডাক্ট আছে! আর আউটলেট তো রয়েছেই যমুনা ফিউচার পার্ক আর সীমান্ত সম্ভারে। আপনি চাইলে অনলাইন বা শপ থেকে প্রোডাক্ট পারচেস করতে পারবেন।

ছবি- সাজগোজ

 

42 I like it
5 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...