অফিসে থাকার সময়টুকু হোক উপভোগ্য - Shajgoj অফিসে থাকার সময়টুকু হোক উপভোগ্য - Shajgoj

অফিসে থাকার সময়টুকু হোক উপভোগ্য

মার্চ ২৯, ২০১৭

আজকাল আমরা মেয়েরা কিন্তু শুধু ঘরের ভিতরেই আটকে থাকি না, পড়াশোনার গণ্ডি পেরিয়ে জীবিকা নির্বাহ অথবা শখের বশে হলেও চাকরিজীবনে প্রবেশ করতে হয়। আর চাকরি জীবন মানেই হচ্ছে দিনের বেশির ভাগ সময় কর্মক্ষেত্রে পার করা, দিনের বেশির ভাগ সময় সহকর্মীদের সাথে পার করা।

মেনে নিন আর নাইবা নিন কিন্তু সত্যি বলতে, কর্মক্ষেত্রে মাথার উপর ছায়া হিসেবে থাকে কিন্তু আপনার সহকর্মীরা। আমি জানি, অনেকেই এই লেখা পড়তে পড়তে নিজের সহকর্মীর সাথে সম্পর্ক বা বোঝাপড়ার কথা ভাবছেন। ভাবছেন যে, গতকালই তো কথা কাটাকাটি হল আপনার এক সহকর্মীর সাথে তাহলে কিভাবে তারা ছায়া হয়ে থাকে! আসলে কর্মক্ষেত্রে সবচেয়ে আপনজন হল সহকর্মীরাই। তবে সেক্ষেত্রে কিছু ব্যাপার তো আপনাকেও খেয়াল রাখতে হবে। 

সহকর্মীর সাথে কথা বলার সময় একটু হাসলে কিন্তু যিনি শ্রোতা তার ভালো লাগবে। আর হাসি খুশী থাকাটা তো আর দোষের কিছু নয় বলুন! কথা বলার সময় মার্জিত ভাষা ব্যবহার করা সহকর্মীকেই তো সবাই পছন্দ করবে তাই নয় কি?

সহকর্মীর সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকা ভালো তবে তা যেন কখনওই মাত্রা ছাড়িয়ে না যায়। ব্যাক্তিগত কথা খুব বেশি না বলাই কিন্তু বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আর অবশ্যই মাথাই রাখবেন, অফিস কিন্তু আপনার কাজের জায়গা গল্প করার জায়গা না। তাই বলে সারাক্ষণ কাজে ডুবে থাকলে কিন্তু বিরক্ত হয়ে যাবেন। তাই মাঝে মাঝেই সব সহকর্মীদের সাথে কথা বলুন আর তাতে আপনার ভালো লাগবে তাদেরও ভালো লাগবে।

মজার একটা কথা শেয়ার করি আপনাদের সাথে। আমার অফিসে আমরা কিন্তু মোটামোটি একটু পর পর টুকটাক খাওয়া দাওয়া চালিয়েই যাই। যে খাবারই আনি না কেন সবাই মিলে একসাথেই খাই। এটাও কিন্তু বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে অটুট রাখতে সাহায্য করে।

একসাথে দিনের ৮-৯ ঘণ্টা পার করবেন আর মতের অমিল থাকবে না তা তো হয় না। অনেকসময় অনেকেই একটু খারাপ ব্যবহার করে ফেলতে পারে আপনার সাথে কিন্তু তখন তো আর আপনি তার সাথে কথা কাটাকাটি বা ঝগড়া করতে পারেন না তাই না! আপনি যদি ঠিক থাকেন তাহলে আপনার লজিক দিয়ে বুঝিয়ে দিন। দেখবেন কাজ হবে। তাই বলে আবার মুখ বুজে সব সহ্য করবেন না। প্রয়োজন বোধে সুন্দর করে উত্তর দিয়ে দেবেন।

কর্মক্ষেত্র হল প্রতিযোগিতার জায়গা। এখানে হয়ত কেউ চাইবে না যে অন্য কেউ এগিয়ে যাক। এটা মানুষের সহজাত চিন্তা। এটাকে মেনে নিয়েই কাজ করতে হবে। অনেক সহকর্মী পাবেন যারা একটু সাহায্য করতেও নারাজ। তখন আপনাকে বুঝিয়ে বলতে হবে যে কাজটি সবার ভালোর জন্যই করতে হবে, নিজের স্বার্থে নয় বরং কোম্পানির স্বার্থেই কাজ করতে হবে।

ভালো ব্যবহার করলে আপনিও ভালো ব্যবহারই পাবেন। একসাথে টিম হিসেবে কাজ করুন। একে অন্যকে সাহায্য করুন কাজের ক্ষেত্রে দেখবেন অফিসে দারুণ সময় পার করছেন! আপনার অফিসে থাকার সময়টুকু উপভোগ্য হোক! সহজ আর সুন্দর হোক আপনার সাথে আপনার সহকর্মীর সম্পর্ক। শুভ কামনা।

ছবি – কালারবক্স ডট কম

লিখেছেন –  রেজওয়ানা সিরাজ