এবারের ঈদ ট্রেন্ডে চলছে যেসব কালার - Shajgoj

এবারের ঈদ ট্রেন্ডে চলছে যেসব কালার

MN7iiZm

আগুন ছড়ানো বদমেজাজি সূয্যিমামা মধ্য আকাশে। প্রখর রোদের ঝাঁজে চোখ মেলে তাকিয়ে থাকাও মুশকিল। আর এমন একটি  সময়েই ঈদ এসে পড়ল। আচ্ছা ভাবুন তো ! রাস্তায় হাঁটছেন আর হুট করেই চোখের সামনে কেউ একজন এসে দাঁড়ালো, কটকটে গোলাপি জামা তার গায়ে, তাতে আবার জরি-চুমকি বসানো। কেমন লাগবে তখন? চোখ তো ঝলসাবেই, সাথে মাথাটাও ঝিমঝিম করে উঠবে। মনেমনে বলেও ফেলতে পারেন, পোশাকের কী ছিরি বাপু!

একথা ঠিক যে মানুষের পছন্দ-অপছন্দ একেক রকম হবেই। কারো হালকা রঙ প্রিয় তো কেউ আবার গাঢ় , উজ্জ্বল সব রঙ ছাড়া অন্য কিছু বোঝে না। ভালো লাগার রকমফের সব জিনিসেই থাকে , থাকবেও । তবে ফ্যাশন বলে যে বস্তুটা রয়েছে, যে সব ধারণার ভিত্তিতে মানুষজন তাদের আলমারির সংগ্রহ সাজায়, সেই ফ্যাশনের ধারা কিন্তু একথাও বলে যে সময়টা খুব বড় একটা ব্যাপার। যে সময়ে যা সহনীয় , তার কাছাকাছি থেকেই পোশাক-পরিচ্ছদ বেছে নেয়া ভালো।

[picture]

রঙের বেলাতেও তাই সময়ের একটা ভূমিকা এসেই পড়ে। সময়টা যখন গরমকাল তখন এই ঈদে পোশাকের রঙে প্রাধান্য পাবে চোখে আরাম দেয়া মিষ্টি রঙগুলি। খুব কড়া ঝকমকে রঙের ব্যবহার আংশিক চললেও পুরো পোশাকে মানাবে না এমন দিনে। তার চেয়ে বরং নরম ধাঁচের উজ্জ্বল রঙ বেছে নিন পরিধেয় হিসেবে। অন্যের চোখেও শান্তি আসবে, স্বস্তি আসবে নিজের মনেও।

গ্রীষ্মজুড়ে পোশাকে কোন রঙগুলি প্রাণবন্ত দেখাবে, দেখে নেয়া যাক এক নজর।

আসমানি

আকাশের মন ভালো করে দেয়া যে মিষ্টি নীল রঙখানা আছে, তার নাম আসমানি। নীলের এই শেড দারুন মানানসই গরমের দিনের পোশাকে। আকাশ থেকে নেয়া বলেই বুঝি এই রঙ চমৎকার মেলবন্ধন তৈরি করে মেঘের সব রঙের সাথে। ধবধবে সাদা হোক, হোক ধূসর কিংবা লালচে-কমলা আভা মাখানো, আকাশির সাথে মানিয়ে যাবে মেঘের সব রঙ।

পিচ

পিচ রঙের ভীষণ চাহিদা বিশ্বজুড়ে গরমের ফ্যাশনে। রঙের দুনিয়ায় একে বেশ অভিজাত বলেই মান্য করা হয়। প্রাণ হাঁসফাঁস করা উত্তপ্ত দিনে এই মিষ্টি নরম রঙটা কেবল চোখ নয়, মন জুড়িয়ে দেয়। পিচ রঙের সবচেয়ে ভালো ব্যাপারটা হলো, এটা মানিয়ে যায় সব রকমের পোশাকের সাথে। অনুষ্ঠানের শাড়ি থেকে নিয়ে অফিসের স্যুট পর্যন্ত আপনি বেছে নিতে পারেন এই পিচ রঙে।

eid 3 f

সী-গ্রীন

সাগরের স্বচ্ছ পানির রঙের বিশ্বে সমাদৃত নাম এইটা। নীল নয়, নয় পরিপুর্ণ সবুজও। তবে রঙটা অসাধারণ। চোখ ফেরাতে মন চায় না, এতো দারুণ এক রঙ এটা। পিচের মতো এই সাগর-সবুজ রঙখানাও ভীষণ অভিজাত। মানিয়ে যায় প্রায় সব ধরণের পোশাকে। প্রখর গ্রীষ্মে সারাদিন বাইরে থাকার কাজ যাদের, এই রঙের পোশাকে সাগরের শীতলতা না মিললেও খানিক শান্তি পেতেই পারেন তারা।

ছাই

ছাই রঙকে দূর ছাই করার কোন উপায় নেই এই গরমে। সাদা, লাল, নীল, কমলা এই রঙগুলির সাথে আকর্ষণীয় মেলবন্ধন করা ছাই রঙের পোশাক হতে পারে আপনার গ্রীষ্মকালের স্বস্তি। পরেও শান্তি পাবেন আর দেখেও চোখ জুড়াবে।

3cb377d1751032a56c56b23787d68ace-24

পেস্তা

সবুজাভ শেডের পেস্তা হচ্ছে আরেকটা গরম উপযোগী রঙ। কালচে লাল, কমলা কিংবা পিচ রঙের সাথে দারুণ মানায় পেস্তা রঙের পোশাক। নীলের সাথেও বেশ ভালো লাগে এই রঙকে। গাঢ় বাদামি রঙ আর পেস্তার মিশেলে পোশাক বেছে নিতে পারেন এই সময়ে পরার জন্য। হালকা রঙে স্বস্তিও রইলো, তার সাথে গাঢ় রঙের আকর্ষণ।

18813865-10154520495220373-7668737941355071372-n

বাদামি

বাদামি রঙটা বেশ সুবিধাজনক এক রঙ, অন্যান্য প্রায় সকল রঙের সাথেই তার ভাব জমে যায়। স্বভাবে নরম অনেক , দেখলে শান্তি আসে। তাই গরমের বন্ধু হিসেবে এই রঙকেও রাখা চাই পোশাকে। সবুজ, লাল, কালোর সাথেও মিলেমিশে আপনাকে চমৎকার সব পোশাক দিতে পারে বাদামি রঙ।

ছবি – প্রথমআলো ডট কম , ডেইলিটাইমসটুয়েন্টিফোর ডট কম , যমুনানিউজটুয়েন্টিফোর  ডট কম

লিখেছেন –  মুমতাহীনা মাহবুব

0 I like it
0 I don't like it
পরবর্তী পোস্ট লোড করা হচ্ছে...