কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিক - Shajgoj কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিক - Shajgoj

কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিক

মার্চ ৩০, ২০১৭

মেকাপের জগতে লিকুইড লিপস্টিক বর্তমানে ভালোই পরিচিত। আর আজকে যে প্রোডাক্টের রিভিউ দিতে যাচ্ছি, তা একটা লিকুইড লিপস্টিক এর। সেটা হলো, কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিক।  এই লিকুইড লিপস্টিক এর নাম অনেকেই শুনেছেন এবং অনেকেই কিনেও ফেলেছেন। কিন্তু যারা কিনবেন কিনবেন ভাবছেন কিন্তু কনফিউশনে আছেন , তাদের জন্যে আমার আজকের এই রিভিউ।

প্যাকেজিং

প্রথমেই আসবো প্যাকেজিং-এর বিষয়ে। কালারপপ লিকুইড লিপস্টিকগুলো হোয়াইট কালার-এর পেপার প্যাকেজিং-এ আসে। প্যাকেট-এর এবং টিউব-এর নিচের দিকে শেড-এর নাম দেয়া থাকে। আর লিপস্টিকটির টিউবের কথায় আসলে,  এটি দেখতে অনেকটাই হাই এন্ড ব্রান্ডের টিউবগুলোর মতো। টিউবটি ক্লিয়ার এবং এর লিডটি সিলভার কালারের। লিপস্টিক এপ্লাই করার ওয়ান্ডটিও বেশ ভালো এবং সহজেই অ্যাপ্লাই করা যায়।  সব মিলিয়ে এর প্যাকেজিং আমার বেশ ভালোই লেগেছে।

টেক্সচার এবং পিগমেন্টেশন

কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিক এর টেক্সচারের কথায় আসলে আমি বলবো, এটার টেক্সচার লিকুইডি এবং এর কালারগুলো খুবই পিগমেন্টেড। একবার অ্যাপ্লাইয়েই পুরো ঠোট কাভার করা যায়। এই লিকুইড লিপস্টিকটি ব্যবহারে ঠোঁটে কোনো ড্রাই লাইন দেখা যায় না। এটি অ্যাপ্লাইয়ের সাথে সাথে বেশ দ্রুতই শুকিয়ে যায় এবং সুন্দর একটা ম্যাট ফিনিশ দেয়।

লাস্টিং পাওয়ার

কালারপপ লিকুইড লিপস্টিকগুলোর লাস্টিং পাওয়ার বেশ ভালো। এটি ঠোঁটে ৬-৭ ঘন্টা লাস্টিং করে। যার ফলে বার বার লিপস্টিক এপ্লাই করার প্রয়োজন পড়ে না।

আমার অভিজ্ঞতা

কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিকগুলো আসার পর থেকেই আমার ইচ্ছা ছিলো ট্রাই করার। কিন্তু ওই যে,  কনফিউশনে ছিলাম আমিও। আমি যখন প্রথমবার ট্রাই করি,  আমার বেশ ভালো লেগেছিল। এটি অ্যাপ্লাই করা খুবই ইজি মনে হয়েছে আমার কাছে। আমার ঠোঁটে লিপস্টিকটি ভালোই লাস্টিং করেছে, বিশেষ করে অয়েলি ফুড খাওয়ার পরেও এটি উঠে যায়নি তেমন একটা। তবে অয়েলি ফুড খেলে কালার একটু হালকা হয়ে যায় এইই আর কি!!!  ৬-৭ ঘন্টা খুব ভালোভাবেই লাস্টিং করে এটি। সবথেকে ভালো ব্যাপার যেটা, তা হলো কালারপপ ব্রান্ডের লিপস্টিকের শেড রেঞ্জ খুবই ভালো। প্রায় সব ধরণের কালারই রয়েছে এবং প্রায় সবগুলো কালারই ভালো লাগার মতো।

তবে একটা কথা না বললেই নয়, এদের ২-৩ টা লিপস্টিকের টেক্সচার আমার কাছে একটু ভিন্ন মনে হয়েছে অন্যগুলোর থেকে। বিশেষ করে লাইট কালারগুলোর। কারণ, ওগুলো ঠোঁটে এপ্লাইয়ের পর একটু ড্রাই লাগে আমার ঠোঁট। তবে সেক্ষেত্রে আগে লিপবাম লাগিয়ে নিলেই সমাধান হয়ে যায়।

আর এই লিপস্টিকটা রিমুভ করা আমার কাছে একটু কঠিনই লেগেছে। অয়েল/ভ্যাসলিন দিয়ে তুলতে গেলেও দেখা যায় অনেকটাই উঠতে চায় না সহজে। ডার্ক কালারগুলোতে এমনটা বেশি হয়।

তবে সব দিক বিবেচনা করলে, কালারপপের আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিকগুলো আমার কাছে অন্যান্য হাই রেঞ্জের ব্রান্ডগুলোর থেকে কম মনে হয়নি।

যে দিকগুলো আমার ভালো লেগেছে –

  • হাইলি পিগমেন্টেড
  • শেড রেঞ্জ
  • লং লাস্টিং
  • প্রাইস মোটামুটি রিজনেবল
  • ঠোঁটকে ওভারড্রাই করে দেয় না
  • সুন্দর প্যাকেজিং
  • অ্যাপ্লাই করা সহজ

যে দিকগুলো ভালো লাগেনি – 

  • অয়েলি ফুড খেলে কালার একটু ফেড হয়ে যায়।
  • ডার্ক কালারগুলো রিমুভ করা কষ্টকর।

দাম

 ৮৫০/- টাকায় পেয়ে যাবেন।

রেটিং  

সব দিক মিলিয়ে কালারপপ আল্ট্রা ম্যাট লিকুইড লিপস্টিককে আমি রেটিং দেব ৮/১০।

কোথায় পাবেন? এদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে অর্ডার করলে পেতে পারেন। আর দেশে যমুনা ফিউচার পার্কের শপ.সাজগোজ.কম– এ আসলেই পেয়ে যাবেন। তাছাড়া  অনলাইন অর্ডার করে দেশের যেকোনো প্রান্তে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হোম ডেলিভারি  পারেন। অনলাইনে অর্ডার করতে এখানে ক্লিক করুন

ছবি – পিন্টারেস্ট ডট কম

লিখেছেন – জান্নাতুল মৌ