ত্বকের যত্নে পেঁপের কিছু ফেইস প্যাক - Shajgoj ত্বকের যত্নে পেঁপের কিছু ফেইস প্যাক - Shajgoj

ত্বকের যত্নে পেঁপের কিছু ফেইস প্যাক

নভেম্বর ২৪, ২০১৩

আমাদের বাসায় এমন অনেক উপকরণ রয়েছে যা নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকে দৃশ্যমান পরিবর্তন আনতে সক্ষম। সেগুলোর মধ্যে পেঁপে হচ্ছে একটি। ভিটামিন এ, সি এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় নিউট্রিয়েন্টসে সমৃদ্ধ এই ফলটি শারীরিক বিভিন্ন উপকারের পাশাপাশি রূপচর্চায়ও সমান প্রশংসার দাবিদার।

পেঁপের অনেক উপকারিতার মধ্যে কিছু হল –

– পেঁপেতে পাপাইন নামক এক ধরনের এনজাইম রয়েছে যা মুখের মরা কোষ দূর করে ত্বকে দীপ্তিময় আভা নিয়ে আসে। এটি মুখের ত্বককে নরম এবং মসৃণ করতে খুব কার্যকর। পাকা পেঁপেতে রয়েছে বেটা হাইড্রক্সি এসিড (BHA) যা খুব ভালো এক্সফোলিয়েটর হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও এটি রোমকুপের ভেতরে জমে থাকা ময়লা এবং তেল বের করে ত্বক ভেতর থেকে পরিষ্কার করে যার ফলে ব্রণের সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

– অনেকেরই একটা কমন সমস্যা হচ্ছে মুখের অসমান স্কিনটোন। পেঁপে এই সমস্যা থেকে দূর করার ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে। নিয়মিত পেঁপের ব্যবহারে ব্রণ বা মুখের কালো দাগ ধীরে ধীরে দূর হয়ে মুখের স্কিনটোন সমান হয়। সানবার্ন দূর করতেও এটি বেশ কার্যকর।

– পেঁপে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি তে সমৃদ্ধ। ভিটামিন সি হচ্ছে এমন এক ধরনের এন্টি অক্সিডেন্ট যা আমাদের শরীরে ফ্রি র‌্যাডিকেলস এর পরিমাণ কমিয়ে এনে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ পড়া থেকে রক্ষা করে। এছাড়াও পেঁপেতে থাকা ফ্ল্যাভনয়েডস ত্বকে কোলাজেন এর প্রোডাকশন বাড়িয়ে দেয় যার ফলে ত্বক নরম এবং নমনীয় হয়ে উঠে।

এবার পেঁপের কিছু ফেইস মাস্ক দেয়া হলঃ

১। পেঁপে এবং মুলতানি মাটির ফেইস মাস্কঃ

-একটি পাকা পেঁপে নিয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কাটুন।

– এক চামচ স্যানডালউড পাউডার বা মুলতানি মাটি নিয়ে এর সাথে মিশান। তবে যাদের ত্বক শুষ্ক তারা মুলতানি মাটি দিবেন না। কারণ মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল কমিয়ে আনে যার ফলে শুষ্ক ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে পড়ে।

– এর সাথে ১ চা চামচ মধু যোগ করুন। মধু হচ্ছে প্রাকৃতিক ময়েশচারাইজার এবং এটি স্কিন হাইড্রেটেড করতে সাহায্য করে।

– এখন সবকিছু একসাথে ভালো মতো মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করুন।

– মিশ্রণটি মুখে এবং ঘাড়ে ভালো মতো লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এই প্যাকটি মুখের ত্বক টানটান করে তোলে এবং এন্টি এজিং মাস্ক হিসেবে খুব ভালো কাজ করে।

২। পেঁপে এবং মধু ফেইস প্যাকঃ

– পেঁপে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে এর সাথে ২ চা চামচ কাঁচা দুধ মিশিয়ে নিন।

– ১ চা চামচ মধু এবং সব উপকরণ ভালো মত মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।

– এবার মিশ্রণটি মুখে এবং ঘাড়ে ভালো মতো লাগান এবং ১৫-২০ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সাথে সাথে পরিবর্তন লক্ষ্য করবেন। ত্বক নরম এবং কোমল হবে।

শুষ্ক ত্বকের জন্য এই মাস্কটি বেশ উপকারী।

৩। পেঁপে এবং কমলার ফেইস প্যাকঃ

কমলা তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুব ভালো কাজ করে। এটি ন্যাচারাল এসট্রিনজেনট এর মতো কাজ করে যা মুখের অতিরিক্ত তেল কমিয়ে আনে। কমলার রসে ত্বক উজ্জ্বল করার জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান বিদ্যমান। এছাড়াও এটি ব্রণের দাগ, পিগমেনটেশন এবং ত্বকের নির্জীব ভাব দূর করে ত্বকে আনে প্রানের ছোঁয়া।

– একটি পাকা পেঁপের কিছু অংশ ছোট ছোট করে কেটে নিন।

– একটি কমলার ৪-৫ কোয়া থেকে রস বের করে পেঁপের সাথে মিশিয়ে ভালো মতো পেস্ট তৈরি করুন।

– মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এই প্যাকটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর।

৪। পেঁপে এবং লেবুর ফেইস প্যাকঃ

লেবু ত্বক উজ্জ্বল করতে খুব কার্যকর একটি প্রাকৃতিক উপাদান। এতে রয়েছে ব্লিচিং প্রপার্টিস যা ত্বকের বিভিন্ন দাগ দূর করে একে উজ্জ্বল করে তোলে। তাই স্কিনটোন উজ্জ্বল করার জন্য এই মাস্কটি ব্যবহার করুন।

– কয়েক টুকরা পেঁপের সাথে ১ চা চামচ লেবুর রস মেশান।

– এরপর এর সাথে ১ চা চামচ মধু যোগ করে সব কিছু ভালো মতো মিশিয়ে নিন।

– মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন এবং এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

তবে একটি কথা মাথায় রাখবেন যে সুন্দর ও স্বাস্থ্যজ্জ্বল ত্বকের মূলমন্ত্রই হচ্ছে ধৈর্য ও নিয়মিত পরিচর্চা। ধৈর্য নিয়ে ত্বকের যত্ন করলে ফল অবশ্যই পাবেন।

লিখেছেনঃ নাহার

ছবিঃ বায়োব্লুমঅনলাইন.কম