ত্বকের যত্ন, সৌন্দর্য পরামর্শ

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য ওটসের প্যাক

উজ্জ্বল ত্বক কার না ভাল লাগে। তার জন্য আমরা বিজ্ঞাপন দেখে একাধিক কেমিক্যাল-যুক্ত ক্রিম, লোশন ইত্যাদি ব্যবহার করে থাকি। তাতে তাৎক্ষণিকভাবে কিছুটা ঔজ্জ্বল্য পাওয়া গেলেও এই সমস্ত ক্রিম-এ থাকা কেমিক্যাল ধীরে ধীরে আপনার ত্বককে ক্ষতিগ্রস্ত করতে শুরু করে। যা তখন আপনি বুঝতে না পারলেও, যখন বুঝবেন তখন দেখবেন অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে।

তাই সবসময় আমাদের মাথায় রাখা উচিত যে, বাজারের কেমিক্যালযুক্ত সৌন্দর্য সামগ্রীর থেকে ঘরোয়া উপায়ে যদি আমরা আমাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করি তা অনেক বেশি উপযোগী হবে এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সম্ভাবনাও থাকবে না।

ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধি করতে ঘরোয়া টোটকায় ওটস হচ্ছে এমনই এক চমৎকারী উপাদান। শুধু তাই নয়, বলিরেখা দুর করার ক্ষেত্রেও ওটসের জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু ওটস মুখে লাগানোরও কিছু পদ্ধতি রয়েছে। তাহলে আসুন দেখে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী …!

 

১) ওটস ও দইয়ের ফেসপ্যাক

ওটসের পাশাপাশি দইয়ের মধ্যে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান রয়েছে। সমপরিমাণে ওটস ও দই নিন। ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে মুখে ভাল করে লাগিয়ে নিন। এতে ত্বকের ট্যান ভাব যাবে, সঙ্গে ত্বকের রংও হাল্কা হবে।

২) ওটস ও লেবুর মাস্ক

১ টেবিল চামচ লেবুর রসের সঙ্গে ২ টেবিল চামচ সেদ্ধ করা ওটস মেশান। এই মিশ্রণটি কিছুক্ষণ রেখে দিন। এবার মুখে লাগিয়ে রাখুন, কিছুক্ষণ বাদে শুকিয়ে এলে পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন। কিন্তু মাথায় রাখবেন এই মাস্কটি লাগানোর পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার লাগাবেন। নয়তো লেবু আপনার ত্বক শুষ্ক করে দিতে পারে।

৩) ওটস ও কলার ফেসপ্যাক

একটি কলার অর্ধেক অংশ ভাল করে চটকে নিন। এতে ১ টেবিল চামচ আমন্ড তেল মেশান। এতে ২ টেবিল চামচ ওটস মেশান। এই মিশ্রণটি মুখে ও গলায় ভাল করে লাগান। ২০ মিনিট বাদে হাল্কা গরম পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন।

৪) ওটস-অলিভ অয়েল স্ক্রাব

১ টেবিল চামচ ওটস মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন। এতে ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মেশান। এই মিশ্রণটি দিয়ে মুখ ও গলা ভাল করে মিনিট পাঁচেক স্ক্রাব করুন। এরপর ভাল করে ধুয়ে নিয়ে কাঁচা দুধ তুলোয় করে মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। তারপর আবার ধুয়ে ফেলুন।

৫) ওটস ও ডিমের ফেসপ্যাক

একটি ডিমের সাদা অংশ ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এতে ১ কাপ সেদ্ধ করা ওটস মেশান। এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে আধ ঘন্টা রেখে দিন। এরপর মুখ ভাল করে ধুয়ে নিয়ে গোলাপ জল লাগিয়ে নিন। ডিমের গন্ধ একেবারে থাকবে না মুখে।

৬) ওটস ও মধুর ফেসপ্যাক

১ কাপ সেদ্ধ করা ওটসের সঙ্গে ২ টেবিল চামচ মধু মেশান। এবার ওটস-টা ঠান্ডা হতে দিন। এই মিশ্রণটা গলায় ও মুখে ভাল করে লাগিয়ে আধঘন্টা রেখে দিন। মিশ্রণটা শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন।

 

মুখটা শুধু ফেইস ওয়াশ দিয়ে ধুয়ে, গলায়-ঘাড়ে-হাতে-পায়ে সাবান মেখে পানি ঢেলেই ব্যস! হয়ে গেল স্কিন কেয়ার! না রে ভাই! তার সাথে আরও নারচার করতেই হবে স্কিন-কে। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধি করে ত্বককে ময়েশ্চারাইজড করে প্রাণবন্ত করে তোলাটা কঠিন কিছু না আসলে। একটু সাথে ফেসপ্যাক লাগানোটাও যে দরকার। সপ্তাহে অন্তত ২ দিন হলেও ত্বকের যত্ন নিন। ভালো থাকুন সুন্দর ত্বকে।

 

লিখেছেন- লিন্নি

Comments

comments

Recommended